তারাও বিদায় বলে দিলেন

প্রকাশ: ১৫ নভেম্বর ২০১৭      

স্পোর্টস ডেস্ক

একটা প্রজন্মের বিদায়। একসঙ্গে এক যুগের মতো খেলেছিলেন তারা। ইতালির ফুটবলে অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে ছিলেন। ড্যানিয়েল ডি রোসি, জর্জিও চিয়েল্লিনি, আন্দ্রে বারজাগলি- এ তিন ফুটবলার প্রায় একই সময়ে দেশের জার্সি গায়ে জড়িয়েছিলেন। ২০০৪ সালে ইতালির সিনিয়র দলে অভিষেক হয়েছিল তাদের। সে তারাই একসঙ্গে আন্তর্জাতিক ফুটবলকে বিদায় বলে দিলেন। ২০১৮ রাশিয়ান বিশ্বকাপের টিকিট কাটতে ব্যর্থ হয় ইতালি। প্লে-অফে সুইডেনের কাছে হেরে ৬০ বছর পর বিশ্বকাপে উঠতে পারেনি আজ্জুরিরা। ম্যাচ শেষে চোখের জলে বিদায় জানান গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি বুফন। তার পথ ধরে আন্তর্জাতিক ফুটবলে গুডবাই জানান ডি রোসি, চিয়েল্লিনি ও বারজাগলি।

বুফনের ক্লাব সতীর্থ বারজাগলি। দু'জনই জুভেন্তাসের হয়ে খেলছেন। ২০০৪ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ইতালির জার্সি গায়ে জড়িয়ে ৭৩টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন বারজাগলি। দুটি বিশ্বকাপ, তিনটি ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ ও একটি কনফেডারেশনস কাপ খেলেছিলেন ৩৬ বছর বয়সী জুভেন্তাসের এ তারকা। বিদায়বেলায় হতাশ বারজাগলি, 'ফুটবলীয় অর্থে আমার জীবনে সবচেয়ে বড় হতাশাজনক ঘটনা এটাই। কী ঘটেছে আমি জানি না। শুধু জানি, আমরা বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গিয়েছি। আমাদের জন্য এটা লজ্জার ঘটনা এভাবে শেষটা হয়েছে। আর কষ্ট হচ্ছে এই ছেলেগুলোকে ছেড়ে যেতে।'

বিদায় বলতে সবচেয়ে বেশি কষ্ট হয়েছে ড্যানিয়েল ডি রোসির। কোচের সঙ্গে ঝামেলার কারণে সানসিরোতে সোমবার রাতে সুইডেনের বিপক্ষে দ্বিতীয় লেগে খেলা হয়নি রোমার এ তারকার। ন্যাপোলির ইনসিগনিকে নামানো নিয়ে কোচ ভেনচুরার সঙ্গে ঝামেলা হয় ডি রোসির। তাই সাইড বেঞ্চেই বসে দলের হার দেখতে হয়েছে তাকে। ইতালির হয়ে ২০০৪ সালে অভিষেক হয়েছিল ৩৪ বছর বয়সী এ মিডফিল্ডারের। জাতীয় দলের হয়ে ১১৭ ম্যাচে গোল করেছেন ২১টি। ইতালির বিদায়কে ফুটবলের জন্য কালো দিন হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন ডি রোসি, 'আমাদের ফুটবলের জন্য এটা কালো একটা দিন।'একটু পর আশার কথাই শুনিয়েছেন তিনি, 'আমরা আবার শুরু করব। অতীতের হতাশার মুহূর্তগুলো ছেড়ে যেভাবে ফিরে এসেছি, এবার সেভাবে ফিরে আসার চেষ্টা করব। ইতালির এই জার্সি পরে আমি সারা দুনিয়া ঘুরে বেড়িয়েছি। শেষবারের মতো এটা খুলে রাখতে খুব কষ্ট হচ্ছে। আমি বিশ্বাস করি না যে, ১৮০ মিনিটের লড়াইয়ে জয়ের যোগ্যতা আমাদের ছিল না। তাদের পারফরম্যান্সের জন্য অবশ্যই সুইডেন প্রশংসার দাবিদার।'

রক্ষণভাগে ইতালির অন্যতম ভরসার প্রতীক ছিলেন জর্জিও চিয়েল্লিনি। বুফনের সঙ্গে জুভেন্তানের জার্সি গায়ে খেলছেন তিনি। ২০০৪ সালে ইতালির হয়ে অভিষেক হয়েছিল তার। ৯৬ ম্যাচ খেলে ৮ গোলও করেন চিয়েল্লিনি। আজ্জুরিদের জার্সি গায়ে জড়িয়ে দুটি বিশ্বকাপও খেলেছিলেন তিনি। আগামী প্রজন্মের দিকে তাকিয়ে আছেন ৩৩ বছর বয়সী চিয়েল্লিনি। বিদায় বেলায় তিনি বলেন, 'আগামী প্রজন্মের ওপর আস্থা দেখাতে হবে, ভালোবাসতে হবে। সামনে বহুদূর যেতে হবে। ব্যর্থতার পর অনেক পরিশ্রমের প্রয়োজন।'

পরবর্তী খবর পড়ুন : বুফনের বিদায়ী বক্তব্য

ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড পেলেন জয়া

ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড পেলেন জয়া

ভারতের জিও ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড পেলেন বাংলাদেশি অভিনেত্রী জয়া আহসান। শনিবার ...

নির্বাচন বানচাল করে বিএনপি চায় 'ভূতের সরকার'

নির্বাচন বানচাল করে বিএনপি চায় 'ভূতের সরকার'

সহায়ক সরকার ও খালেদা জিয়ার মুক্তি আগামী নির্বাচনে বিএনপির অংশগ্রহণের ...

দেশে রাজনীতি করার কোনো পরিবেশ নেই

দেশে রাজনীতি করার কোনো পরিবেশ নেই

সরকারের অগণতান্ত্রিক কর্মকাণ্ড, বিরোধী পক্ষকে জেল-জুলুম-নির্যাতনের মাধ্যমে দমন করার কৌশল ...

গুরু পাপে লঘু দণ্ড

গুরু পাপে লঘু দণ্ড

বাংলাদেশ ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক মো. খুরশিদ আলমের বিরুদ্ধে আলোচিত অর্থ আত্মসাতের ...

'আজও তার সাধনা থামেনি'

'আজও তার সাধনা থামেনি'

'যখন পাঞ্জাবি আর পাজামা চাপিয়ে শরীরে, সকালে কিংবা বিকেলে একলা ...

অল্প পুঁজি, বড় স্বপ্ন

অল্প পুঁজি, বড় স্বপ্ন

অল্প পুঁজি, বড় স্বপ্ন- এ নিয়ে প্রথমবারের মেলায় অংশ নিয়েছে ...

প্রায় নিশ্চিত আওয়ামী লীগ অনিশ্চয়তা বিএনপিতে

প্রায় নিশ্চিত আওয়ামী লীগ অনিশ্চয়তা বিএনপিতে

সুনামগঞ্জ-৩ (জগন্নাথপুর-দক্ষিণ সুনামগঞ্জ) আসনের ভোটারদের প্রায় এক-চতুর্থাংশই প্রবাসী। তাই এখানকার ...

'বড় ভাই'র নেতৃত্বে কিলিং মিশনে যাচ্ছিল ওরা

'বড় ভাই'র নেতৃত্বে কিলিং মিশনে যাচ্ছিল ওরা

তিনটি মোটরসাইকেলে চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়াম এলাকায় কিলিং মিশনে যাচ্ছিল ...