৩ শিক্ষক দিয়ে চলছে ৫৬৬ শিক্ষার্থীর পাঠদান

প্রকাশ: ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

বানিয়াচং (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি

শিক্ষক সংকটে ব্যাহত হচ্ছে বানিয়াচংয়ের একমাত্র সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পাঠদান। বিদ্যালয়টি ১৯৬৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। আর সরকারীকরণ হয় ১৯৮৫ সালে। বর্তমানে এই শিক্ষক ও কর্মচারী সংকটের ফলে বিদ্যালয়ের অবকাঠামো কর্মকাণ্ডসহ পাঠদান চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে।

বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে এই বিদ্যালয়ে মোট ছাত্রীর সংখ্যা ৫৬৬ জন। অন্যদিকে ৫৬৬ জন শিক্ষার্থীর পাঠদানে প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) নিয়ে মাত্র তিনজন শিক্ষক রয়েছেন। সহকারী শিক্ষক নিয়ে যেখানে ১০ জন থাকার কথা সেখানে মাত্র সাতজন (খণ্ডকালীন) শিক্ষক দিয়ে চলছে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাঠদান। এমএলএসএস পদে ছয়জনের মধ্যে আছেন মাত্র একজন। পাশাপাশি এই বিদ্যালয়ে শূন্য রয়েছে অফিস সহকারী ও নাইটগার্ডের পদ। গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলোতে শিক্ষক সংকটের কারণে শিক্ষাবঞ্চিত শিক্ষার্থীরা।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কাওছার শোকরানা জানান, সরকারের পক্ষ থেকে শিক্ষা কার্যক্রমের উদ্যোগের অভাব নেই। এরই মধ্যে শিক্ষক সংকট দূর করার জন্য বিভিন্ন ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। প্রধান শিক্ষকের শূন্য পদের বিপরীতে জ্যেষ্ঠ শিক্ষক ভারপ্রাপ্ত হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। নতুন নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ হলে শিক্ষক সংকট দূর হবে। বিদ্যালয়ের কয়েক ছাত্রীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সংকট থাকার পরও অনেক শিক্ষক নিয়মিত ক্লাস নেন না। বানিয়াচং সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আলফাজ উদ্দিন শিক্ষক সংকটের কথা স্বীকার করে জানান, একটি বিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মচারী প্যাটার্ন অনুযায়ী এই বিদ্যালয়ে ১০ জন শিক্ষক থাকার কথা। কিন্তু বর্তমানে তিনজন শিক্ষক ও খণ্ডকালীন সাত শিক্ষক দিয়ে ৫৬৬ শিক্ষার্থীর পাঠদান দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে আমাদের। এই বিদ্যালয়ে দূরের কোনো শিক্ষক বদলি হয়ে আসতে চান না।

অভিভাবকরা জানান, সরকারি বিদ্যালয়গুলোতে সাধারণত শিক্ষার মান ভালো হয়। এ কারণে অভিভাবকরা চেষ্টা করেন সেসব বিদ্যালয়ে তাদের ছেলেমেয়েদের ভর্তি করাতে। সম্প্রতি শিক্ষক সংকটের ফলে শিক্ষার্থীদের পড়ালেখা মারাত্মক বিঘ্নিত হচ্ছে। পাশাপাশি ফলাফলে দেখা দিয়েছে বিপর্যয়।
নির্বাচনের আগে সিনহা অপপ্রচারে উসকানি না দিলেও পারতেন: কাদের

নির্বাচনের আগে সিনহা অপপ্রচারে উসকানি না দিলেও পারতেন: কাদের

সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা নির্বাচনের আগে বই প্রকাশ ...

'জাফর ইকবাল আমার গান ছাড়া অন্য কারো কণ্ঠে লিপ দিতে চাইতেন না'

'জাফর ইকবাল আমার গান ছাড়া অন্য কারো কণ্ঠে লিপ দিতে চাইতেন না'

লক্ষ কোটি তরুণের প্রিয় শিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ। সেই ১৯৮২ সালে ...

আমিরাতকে বড় ব্যবধানে হারাল মেয়েরা

আমিরাতকে বড় ব্যবধানে হারাল মেয়েরা

ছুটির দিনে গ্যালারিতে বসে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৬ মেয়েদের খেলা দেখছেন বেশ ...

মানুষ আওয়ামী লীগকেই ভোট দেবে: শাজাহান খান

মানুষ আওয়ামী লীগকেই ভোট দেবে: শাজাহান খান

নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, 'এবারের নির্বাচন আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ। এই ...

অটোরিকশায় বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে পড়ে ৪ জনের মৃত্যু

অটোরিকশায় বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে পড়ে ৪ জনের মৃত্যু

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে সিএনজি চালিত অটোরিকশায় পল্লী বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে পড়ে ...

সুলতান সুলেমানের পর এবার ‘জান্নাত’

সুলতান সুলেমানের পর এবার ‘জান্নাত’

বাংলাদেশের টিভি চ্যানেলগুলোতে বিদেশি সিরিয়াল গুলো বাংলা ডাবিং করে প্রচার ...

২ কর্মী হত্যায় ইউপিডিএফ দুষছে সংস্কারবাদী জেএসএসকে

২ কর্মী হত্যায় ইউপিডিএফ দুষছে সংস্কারবাদী জেএসএসকে

রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলায় নিজেদের দুই কর্মীকে হত্যার তীব্র নিন্দা ও ...

গায়ের জ্বালা মেটাতে সিনহা মিথ্যা কথা লিখেছেন: আইনমন্ত্রী

গায়ের জ্বালা মেটাতে সিনহা মিথ্যা কথা লিখেছেন: আইনমন্ত্রী

আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক বলেছেন, ...