ধর্ষণ ও খুনের হুমকিতে আসিফার আইনজীবী

আসিফা ধর্ষণ-হত্যার বিচার শুরু

প্রকাশ: ১৭ এপ্রিল ২০১৮      

সমকাল ডেস্ক

কাশ্মীরের কাঠুয়ায় ধর্ষণ ও হত্যার শিকার ৮ বছরের শিশু আসিফা বানুর জন্য ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ে নেমে নিজেই 'ধর্ষণ ও হত্যার শিকার' হওয়ার হুমকিতে পড়েছেন নারী আইনজীবী দীপিকা এস রাজাওয়াত। জীবননাশের হুমকি পাওয়ার কথা জানিয়ে গতকাল ভারতের সুপ্রিম কোর্টের কাছে সুরক্ষা চেয়েছেন তিনি। আসিফার পরিবারও নিরাপত্তা শঙ্কায় ভুগছে। এমন পরিস্থিতিতে নিরাপত্তার বিষয়টি আমলে নিয়ে সুপ্রিম কোর্ট আসিফার পরিবার ও ওই আইনজীবীকে নিরাপত্তা দিতে রাজ্য সরকারকে নির্দেশ দিয়েছেন। দেশজুড়ে অব্যাহত তুমুল প্রতিবাদ ও বিক্ষোভের মধ্যে গতকাল কাঠুয়ার দায়রা জজ আদালতে আসিফাকে ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনার বিচার শুরু হয়েছে। তবে মামলার বিচার কার্যক্রম কাঠুয়া থেকে চণ্ডীগড়ে স্থানান্তরের আবেদন জানিয়েছেন আসিফার বাবা। খবর এনডিটিভির।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে জম্মু-কাশ্মীর রাজ্যের কাঠুয়া উপত্যকায় ঘোড়াকে ঘাস খাওয়াতে গিয়ে অপহরণের শিকার হয় স্থানীয় মুসলিম শিশু আসিফা। তাকে একটি মন্দিরে আটকে রেখে গণধর্ষণ করা হয়। এভাবে সাত দিন ধরে নির্যাতনের পর মাথায় পাথর মেরে ও গলা টিপে খুন করে লাশ ফেলে দেওয়া হয় পাশের জঙ্গলে। আদালতে দায়ের করা মামলার বিবরণ অনুযায়ী, আসিফা নামের ওই শিশুকে অপহরণে জড়িত দেবীস্থান মন্দিরের হেফাজতকারী সানজি রাম, তার এক ভাগ্নে ও এক পুলিশ সদস্য। এ ছাড়া ধর্ষণ ও হত্যায় জড়িত আরও চার পুলিশ কর্মকর্তাসহ আটজনকে অভিযুক্ত করেন ভারতের আদালত। মধ্য জানুয়ারির ওই ঘটনায় দায়ের করা মামলায় গত ১০ এপ্রিল অভিযোগপত্র জনসমক্ষে আনা হয়। জানুয়ারিতে এ নিয়ে তেমন উত্তেজনা না হলেও এ ঘটনায় অভিযোগপত্র দেওয়া হয়। পুলিশ কয়েকজনকে গ্রেফতারও করে। এই গ্রেফতার ও অভিযোগপত্রের প্রতিবাদ জানিয়ে স্থানীয় বিজেপি ও হিন্দু নেতারা বিক্ষোভ করলে বিষয়টি আলোচনায় আসে। জম্মু বার অ্যাসোসিয়েশনের নেতারাও অভিযোগপত্র দেওয়ার বিরুদ্ধে প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেন। পরে ধর্ষণের প্রতিবাদে সোচ্চার হয়ে ওঠেন রাজনৈতিক নেতা, বলিউড তারকাসহ সারা ভারত।

পরবর্তী খবর পড়ুন : রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন

কোটি টাকায় কেনা দীর্ঘশ্বাস

কোটি টাকায় কেনা দীর্ঘশ্বাস

ধানমণ্ডিতে সুপরিসর একটি ফ্ল্যাট কেনার উদ্যোগ নিয়েছিলেন ব্যবসায়ী আহাদুল ইসলাম। ...

বিএনপির জনসভায় আমন্ত্রণ পাচ্ছে না জামায়াত

বিএনপির জনসভায় আমন্ত্রণ পাচ্ছে না জামায়াত

বিএনপির বৃহস্পতিবারের সম্ভাব্য জনসভায় ২০ দলের শরিক জামায়াতে ইসলামীকে কৌশলগত ...

প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের ক্রুর মাদক সেবন

প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের ক্রুর মাদক সেবন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফ্লাইটের এক কেবিন ক্রুর মাদক সেবন ও ...

দুদককে পঙ্গু করতে চায় একটি মহল

দুদককে পঙ্গু করতে চায় একটি মহল

দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) একটি অথর্ব প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে অপতৎপরতা ...

নিবর্তনমূলক ধারা বাতিল দাবি সাংবাদিক নেতাদের

নিবর্তনমূলক ধারা বাতিল দাবি সাংবাদিক নেতাদের

স্বাধীন সাংবাদিকতায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে পারে- এমন সব ধারা-উপধারা বহাল ...

ইয়াবা কারবারিরা তবু বেপরোয়া

ইয়াবা কারবারিরা তবু বেপরোয়া

মিয়ানমার থেকে নানা কৌশলে ভিন্ন ভিন্ন রুট ব্যবহার করে সারা ...

বিপিএলের কারণে রশিদকে চেনা ইমরুলের

বিপিএলের কারণে রশিদকে চেনা ইমরুলের

হুট করেই ইমরুল কায়েস এশিয়া কাপের দলে ডাক পান। এরপর ...

মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে ব্যাংক ঋণ!

মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে ব্যাংক ঋণ!

বরিশালে মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়ার অভিযোগ ...