সোশ্যাল মিডিয়া

আসক্তি কমানোর উপায়

প্রকাশ: ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

শাহনেওয়াজ টিটু

দিনের বড় একটা অংশ কেটে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। এতে আমাদের মানসিক সমস্যা যেমন বেড়ে যাচ্ছে, তেমনি শারীরিকভাবেও অসুস্থ হয়ে পড়ছি। উন্নত দেশগুলোর পাশাপাশি উন্নয়নশীল দেশের তরুণরাও এই সমস্যার মুখোমুখি। এই নিয়ে চিন্তিত বিশেষজ্ঞরাও। তরুণদের মতো ছোটরাও এই জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছে প্রতিনিয়ত। সম্প্রতি ১,২৫,০০০ শিশু-কিশোরকে নিয়ে ২০টি সমীক্ষা করে ব্রিটেনের কার্ডিফ বিশ্ববিদ্যালয়। গবেষণায় যে ফল পাওয়া গেছে তা খুবই ভয়াবহ। চলুন, গবেষকদের হাত ধরে সোশ্যাল মিডিয়া জ্বর কাটানোর উপায় খুঁজে নিই-

হারিয়ে যাওয়ার ভয়

সাধারণত আমরা খুব কষ্ট করে কিছু অর্জন করলে কিংবা অনাকাঙ্ক্ষিত ও স্বপ্নের সমান বড় কিছু পেয়ে গেলে তা হারানোর ভয়ও কাজ করে। তবে এই ভয়টা এখন চেপে বসেছে অনলাইনে। জার্মানির টেশনিকার স্বাস্থ্য বীমা কোম্পানির এক সমীক্ষায় দেখা যায়, শিশু ও তরুণদের শতকরা ১৭ জনই স্বীকার করেছে, দিনে কয়েক ঘণ্টা অনলাইনে না থাকলে তাদের মধ্যে কিছু একটা হারিয়ে যাওয়ার ভয় চেপে বসে। ফলে তারা অস্থির হয়ে ওঠে। এই অস্থিরতা ও হারিয়ে যাওয়া ভয়ের অনুভূতি দিন দিন বেড়েই চলেছে। এই চাপটা কিন্তু এসে পড়ছে সমাজের ওপর। এই চাপ কাটিয়ে উঠতে জার্মানির মোটিভেশন ট্রেনার গাব্রিয়েলে ভিনকে তরুণদের বলেন, 'ডিজিটাল ডায়েট, অর্থাৎ সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার কিছুটা হলেও কমিয়ে নাও।' এই অভ্যাস না কমিয়ে আনলে বড় ধরনের প্রভাব পড়বে সমাজের ওপর।

ঘুমে রেড লাইট

স্মার্টফোন বা আইপ্যাডে চোখ রেখে যারা বিছানায় যান, যাদের স্মার্টফোন ছাড়া চলেই না তাদের জন্য বড় ধরনের সতর্কবার্তা দিয়েছেন গবেষকরা। ঘুমের আগে পিসি বা ফোনের ডিসপ্লের আলো ঘুমের হরমোনকে ছড়িয়ে দিতে বাধা সৃষ্টি করে। এতে শারীরিক সমস্যা যেমন হয়, তেমনি মানসিক সমস্যাও বাড়তে থাকে। তাই তরুণদের প্রতি এবং তাদের বাবা-মায়েদের প্রতি গবেষকদের পরামর্শ, 'ঘুমের আগে যেন তরুণরা ও বাবা-মায়েরা তাদের সন্তানদের প্রযুক্তির সংস্পর্শ থেকে দূরে রাখেন। কারণ তরুণ ও শিশুদের সুস্থভাবে বেড়ে ওঠার জন্য ভালো ঘুমের বিকল্প নেই।'

১০ মিনিট

দিনের অনেকটা সময় এখন কম্পিউটার বা স্মার্টফোনে কাটে। টানা এক জায়গায় বসে থাকতে হয়। এর ফলে শরীর কেমন ম্যাজ ম্যাজ করে। এই একঘেয়েমিতে থেকে শরীরচর্চার সময়ও হয়ে ওঠে না। এ ছাড়াও শরীরে ভর করে অলসতা। এতে কোনো কাজেই মন বসে না। অলসতা আর অস্থিরতা থেকে বেরিয়ে আসতে মাত্র ১০ মিনিট সময় বের করুন। এই সময়টা হাঁটুন বা দৌড়ান। ভালো লাগলে আস্তে আস্তে সময়সীমা বাড়িয়ে নিন। চাইলে সাইকেলও চালাতে পারেন। বন্ধুদের নিয়ে গল্পও জমিয়ে তুলতে পারেন।

শরীরচর্চা

আপনি সোশ্যাল মিডিয়ায় ধীরে ধীরে যেভাবে আকৃষ্ট হয়েছেন ঠিক সেভাবেই আস্তে আস্তে তা কমিয়ে আনুন। একেবারে বাদ দেওয়ার কথা কিন্তু কেউ বলছে না; কাজেই ভয় নেই! আর এর প্রথম পদক্ষেপ মানে হাঁটা কাজে লাগলে দ্বিতীয় লক্ষ্য হতে পারে খেলাধুলা বা শরীরচর্চা। কাজেই পছন্দের জুতো পরে নেমে পড়ূন মাঠে!

সময়সূচিতে বদল

কয়েক দিনের মাথায় নিজেকে নতুন করে আবিস্কার করতে পারবেন। তখন দরকারি কাজের তালিকা করে নিন। তারপর দুপুর, বিকেলে বন্ধুদের সঙ্গে ফোনে কথা বলা বা আড্ডায় যাওয়ার যেই সময় তালিকা তা লিখে ফেলুন। এই তালিকায় নতুন করে শরীরচর্চাটাও লিখে ফেলুন। শুধু তাই নয়, বন্ধুরা যারা কাছাকাছি থাকে তাদের সঙ্গে ফেসবুক চ্যাট না করে বাসায় গিয়ে ওদের সঙ্গে কথা বলুন। বন্ধুদের নিয়ে বাসায় বসে না থেকে মুক্ত হাওয়ায় খেলাধুলা বা হাঁটাহাঁটি করতে পারেন। এতে অন্যরকম একটা ভালো লাগা খেলা করবে মনে।

অজুহাত নয়

বৃষ্টি, গরম, আবহাওয়া খারাপ, যেতে ইচ্ছা করছে না বা সময় নেই- এমন অজুহাত চলবে না কিন্তু! লম্বা দিনের মাত্র কয়েকটা মিনিট বা ঘণ্টাখানেক সময় নিজের শরীরে জন্য খরচ করুন। মাসখানেক পর দেখবেন ধীরে ধীরে আনন্দ পাচ্ছেন।

এভাবেই এক সময় সোশ্যাল মিডিয়ার ওপর আগ্রহ খানিকটা কমে যাবে এবং ক্ষতিকারক দিকগুলো থেকে স্বাভাবিক নিয়মেই নিজে বেরিয়ে এসেছেন। তখন টেরই পাবেন না যে অলসতা কোথায় পালিয়ে গেছে!

পুরস্কার নিজের হাতেই

মোটিভেশন ট্রেনার গাব্রিয়েলে ভিনকের মতে, কিছু দিন ওপরের নিয়মে চলার পর দেখবেন শারীরিক ফিটনেস ফিরে আসার পাশাপাশি আত্মবিশ্বাসও ফিরে এসেছে। এবার নিজের সাফল্যের জন্য নিজেকেই পুরস্কৃত করতে পারেন। খুব আনন্দ করে এক গ্লাস গরম চকলেট ড্রিঙ্ক, কোল্ড কফি পান করে কিংবা বিশাল একটি পিৎজা অথবা এক হালি প্রিয় রসগোল্লায় মুখ ডুবাতে পারেন। কিংবা নিজের প্রিয় কোনো জিনিস নিজেকেই উপহার দিন। অথবা প্রিয় কিছু পরিবারের কাছ থেকেও চেয়ে নিতে পারেন। আমি নিশ্চিত, আপনার এমন পরিবর্তনে পরিবারের সবাই খুশি হবে এবং আপনাকে নতুন করে আবিস্কার করবে তাদের মাঝে। তখন যা চাইবেন তাই পাবেন পরিবারের কাছ থেকে। শুধু তাই নয়; পরিবারে আপনার গুরুত্বটাও বেড়ে যাবে।

পরবর্তী খবর পড়ুন : একটু আগেই ক্যারিয়ার

মাসুদ রানায় যুক্ত হলেন অমিতাভ, নির্মাণ করবেন হলিউডের পরিচালক

মাসুদ রানায় যুক্ত হলেন অমিতাভ, নির্মাণ করবেন হলিউডের পরিচালক

কাজী আনোয়ার হোসেনের সাড়া জাগানো থ্রিলার সিরিজ 'মাসুদ রানা'। দীর্ঘদিন ...

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় বিচারকের প্রতি ২ আসামির অনাস্থা

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় বিচারকের প্রতি ২ আসামির অনাস্থা

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ন্যায়বিচার না পাওয়ার আশঙ্কার কথা ...

কিডনির ক্ষতি হয় যেসব অভ্যাসে

কিডনির ক্ষতি হয় যেসব অভ্যাসে

কিডনি শরীরের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। প্রতিদিন সারা বিশ্বে লাখ লাখ মানুষ ...

হস্তক্ষেপের অধিকার নেই জাতিসংঘের: মিয়ানমারের সেনাপ্রধান

হস্তক্ষেপের অধিকার নেই জাতিসংঘের: মিয়ানমারের সেনাপ্রধান

মিয়ানমারের ক্ষমতাধর সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইং বলেছেন, তার দেশের সার্বভৌমত্বে ...

বিয়ে করলেন আরেফ সৈয়দ

বিয়ে করলেন আরেফ সৈয়দ

হুমায়ূন আহমেদের মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক উপন্যাস অবলম্বনে মোরশেদুল ইসলাম নির্মাণ করেছিলেন চলচ্চিত্র ...

৪৭ বছর ধরে ‘নাগরিকত্বহীন’ জীবন ছকিনার

৪৭ বছর ধরে ‘নাগরিকত্বহীন’ জীবন ছকিনার

জন্ম বাংলাদেশে, বেড়ে ওঠাও এ দেশের মাটিতে তবুও তার নেই ...

বৃহস্পতিবার রাজধানীতে সমাবেশ করার ঘোষণা বিএনপির

বৃহস্পতিবার রাজধানীতে সমাবেশ করার ঘোষণা বিএনপির

রাজধানীতে আগামী বৃহস্পতিবার সমাবেশ করার ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি।সোমবার রাজধানীর নয়া ...

পাওয়া গেলো সেরা ১০ সুন্দরী

পাওয়া গেলো সেরা ১০ সুন্দরী

চলছে 'মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ-২০১৮’ এর  সেরা সুন্দরী বাচাই পর্ব। দ্বিতীয়বারের ...