স্বদেশী

গল্পটা আকতার ইসলামের

প্রকাশ: ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

জোহরা শিউলী

রান্না একটা শিল্প। সেই শিল্পের মাধ্যমে মানুষের মুখের স্বাদ জয় করে মানুষের মনেও ঠাঁই করে নিয়েছেন তিনি। সুস্বাদু খাবারের স্বাদে কীভাবে মানুষের মন জয় করা যায় তার আদ্যোপান্ত নিজে কব্জা করেছেন আকতার ইসলাম। রান্নার এক জাদুশিল্পীই মূলত বলা যায় তাকে।

আকতার ইসলাম সম্পর্কে জেনে নিই এক টুকরো। তিনি অ্যাওয়ার্ড জয়ী একজন শেফ। লাসান নামে তার একটি রেস্তোরাঁ আছে। ভারতীয়-ব্রিটেন খাবারের স্বাদ খুব সহজেই এই রেস্তোরাঁয় নিতে পারেন অনেকে। ২০০৯ সালে লাসান রেস্তোরাঁটি যুক্তরাজ্যের সেরা স্থানীয় রেস্তোরাঁ হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে। যুক্তরাজ্যের চ্যানেল৪-এর গর্ডন রামসে অনুষ্ঠানটির মাধ্যমে লাসান রেস্তোরাঁটি সেরা নির্বাচিত হয়। যুক্তরাজ্যের সেরা সব তারকা রন্ধনশিল্পীর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে তিনি অ্যাওয়ার্ডটি পান। ২০১১ সালে বিবিসিতে গ্রেট ব্রিটিশ মেন্যুতে তার মাছের রেসিপি কোর্স সেরা হয়। গর্ডন রামসে আর বিবিসির মাছের রেসিপিতে সেরা হয়ে যুক্তরাজ্যকে চমকে দিয়েছেন তিনি। আকতার ইসলাম মন জয় করেছেন ব্রিটিশ নাগরিকদের। আকতার ইসলাম বলেন, 'আমি জন্মসূত্রে যুক্তরাজ্যের নাগরিক। কিন্তু আমার বাবা-মায়ের জন্ম বাংলাদেশে। আমাদের বাসায় দেশিয় রান্নাই বেশি হতো। সেই খাবারের স্বাদ অতুলনীয়। বাবার রেস্টুরেন্টের ব্যবসা ছিল, মায়েরও ছিল রান্নার হাত। আমি অনেক বাংলাদেশে ও ভারতীয়কে দেখেছি, তারা দেশ থেকে নতুন এসে দেশের খাবার খাওয়ার জন্য কেমন উদগ্রীব থেকেছে। কোথাও তেমনভাবে খুঁজে পেত না দেশের রান্নার মতো রান্না। অনেককে দেখেছি আমি এমন করে খাবারের জন্য কষ্ট করতে। হয়তো আশপাশের পরিচিতদের এমন খাবারের কষ্ট দেখেই রেস্তোরাঁর প্রতি অজান্তে আগ্রহ তৈরি হয়েছে আমার।'

বার্মিংহামে এক নামে পরিচিত আকতার ইসলাম। তার জন্ম হয় বার্মিংহাম শহরেই। ১৯৮০ সালে জন্মগ্রহণ করেন আক্তার। বাবা-মা বার্মিংহামে থাকতেন। সেই সুবাদে তিনি বার্মিংহামের বাসিন্দা। পাঁচ ভাইয়ের মধ্যে তিনি দ্বিতীয়। তার রান্নার ঝোঁক আসলে শুরু হয়েছে মায়ের হাত ধরেই। বার্মিংহামেই বাবার রেস্তোরাঁ ছিল 'কর্মা'। বাবার রেস্তোরাঁই তাকে রান্নার জন্য উদ্বুদ্ধ করেছে। নিজের রেস্টুরেন্টের খাবারে যখন সুনাম ছড়িয়ে পড়ছে চারদিকে, তখনই প্রস্তাব পান বিবিসিতে রান্নার অনুষ্ঠানের। তিনি তা শুরু করেন এবং নিয়মিত বিবিসির সকালের রান্নার তারকা রাঁধুনি হয়ে যান। আক্তারের রেসিপির গুণমুগ্ধ স্বয়ং রানী এলিজাবেথও।

'চ্যানেল-৪-এর গর্ডন রামসে অনুষ্ঠানটি আমার জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছে। তাদের মাঝখানে আমি আমার রান্না-রেসিপি দিয়ে সেরা হয়েছি এটা আমার জীবনের সেরা পাওয়া। এভাবে প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে বিজয়ী হয়ে আসলে আমি নিজেকে প্রমাণ করেছি। নইলে বার্মিংহামে কে না কে আকতার ইসলাম তাকে তো কারও মনে রাখার কথা না। এই অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে অনেক তারকা রন্ধনশিল্পীর সঙ্গে আমার খুব ভালো বন্ধুত্ব হয়েছে। আমি জীবনকে নতুনভাবে চিনতে পেরেছি। আমার আত্মবিশ্বাস বেড়ে গেছে অনেক' সবশেষে বলেন আকতার ইসলাম।

পরবর্তী খবর পড়ুন : এক নজরে মুস্তাফা মনোয়ার

কোটি টাকায় কেনা দীর্ঘশ্বাস

কোটি টাকায় কেনা দীর্ঘশ্বাস

ধানমণ্ডিতে সুপরিসর একটি ফ্ল্যাট কেনার উদ্যোগ নিয়েছিলেন ব্যবসায়ী আহাদুল ইসলাম। ...

বিএনপির জনসভায় আমন্ত্রণ পাচ্ছে না জামায়াত

বিএনপির জনসভায় আমন্ত্রণ পাচ্ছে না জামায়াত

বিএনপির বৃহস্পতিবারের সম্ভাব্য জনসভায় ২০ দলের শরিক জামায়াতে ইসলামীকে কৌশলগত ...

প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের ক্রুর মাদক সেবন

প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের ক্রুর মাদক সেবন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফ্লাইটের এক কেবিন ক্রুর মাদক সেবন ও ...

দুদককে পঙ্গু করতে চায় একটি মহল

দুদককে পঙ্গু করতে চায় একটি মহল

দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) একটি অথর্ব প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে অপতৎপরতা ...

নিবর্তনমূলক ধারা বাতিল দাবি সাংবাদিক নেতাদের

নিবর্তনমূলক ধারা বাতিল দাবি সাংবাদিক নেতাদের

স্বাধীন সাংবাদিকতায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে পারে- এমন সব ধারা-উপধারা বহাল ...

ইয়াবা কারবারিরা তবু বেপরোয়া

ইয়াবা কারবারিরা তবু বেপরোয়া

মিয়ানমার থেকে নানা কৌশলে ভিন্ন ভিন্ন রুট ব্যবহার করে সারা ...

বিপিএলের কারণে রশিদকে চেনা ইমরুলের

বিপিএলের কারণে রশিদকে চেনা ইমরুলের

হুট করেই ইমরুল কায়েস এশিয়া কাপের দলে ডাক পান। এরপর ...

মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে ব্যাংক ঋণ!

মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে ব্যাংক ঋণ!

বরিশালে মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়ার অভিযোগ ...