ক্যান্সার চিকিৎসায় ইন্টারফ্যাসিয়াল বায়োসেনসিং

আবু সিনার সাফল্য

প্রকাশ: ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী

মরণব্যাধি ক্যান্সার গবেষণায় সাফল্য দেখিয়েছেন বাংলাদেশি গবেষক ড. আবু সিনা। মানবদেহে ক্যান্সারের উপস্থিতি নির্ণয়ে ইন্টারফেসিয়াল বায়োসেনসিং নামে একটি সহজ পদ্ধতি আবিস্কার করেছেন তিনি। বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের বিখ্যাত বায়োইঞ্জিনিয়ারিং ও ন্যানোটেকনোলজি ইনস্টিটিউটে ক্যান্সার নিয়ে গবেষণা করছেন সিনা। তার গবেষণার মূল বিষয় ক্যান্সারের নতুন বায়োমার্কার সন্ধান করা এবং এর মাধ্যমে শরীরে ক্যান্সার ছড়িয়ে পড়ার আগে প্রথম স্টেজেই এর উপস্থিতি নির্ণয়ের সহজ পদ্ধতি আবিস্কার করা। এ বিষয়ে ইতিমধ্যে তিনি অনেকটা সাফল্য পেয়েছেন এবং শরীরে ক্যান্সারের বায়োমার্কারের উপস্থিতি নির্ণয়ের একটি সহজ পদ্ধতি আবিস্কার করেছেন, যা ইন্টারফ্যাসিয়াল বায়োসেনসিং নামে পরিচিত। তার আবিস্কৃত ইন্টারফেসিয়াল বায়োসেনসিং পদ্ধতি রয়্যাল সোসাইটি অব কেমিস্ট্রি, ইংল্যান্ড এবং আমেরিকান কেমিক্যাল সোসাইটির বিখ্যাত জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। আবু সিনা বলেন, 'ইন্টারফেসিয়াল বায়োসেনসিং এমন একটি পদ্ধতি, যেটি মেটাল গোল্ডের সঙ্গে নরমাল এবং ক্যান্সার আক্রান্ত রোগীর কিছু নির্দিষ্ট বায়োমলিক্যুল বা জৈব অণু যেমন ডিএনএ এবং প্রোটিনের মিথস্ট্ক্রিয়ার ধরন বিবেচনা করে ক্যান্সার সংশ্নিষ্ট জৈব অণুগুলোকে আলাদা করতে পারে।'

তার এ কাজের নেতৃত্বে আরও ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার বিখ্যাত গবেষক প্রফেসর ম্যাট ট্রাউ, ড. লরা কারাসকোসা এবং ড. এলেইন। আরও যুক্ত ছিলেন বাংলাদেশি মোস্তাক আহমেদ। ড. আবু আলী ইবনে সিনার জন্ম চাঁদপুর সদর উপজেলার বাবুরহাট অঞ্চলের দাসদী গ্রামে। তার বাবা চাঁদপুরের বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ শহীদ উল্লাহ মাস্টার। মা বাবুরহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষিকা। ড. আবু সিনা বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেনে বসবাস করছেন। শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগ থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি শেষে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োকেমিস্ট্রি অ্যান্ড মলিক্যুলার বায়োলজি বিভাগে শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। এরপর তিনি অস্ট্রেলিয়ার বিখ্যাত কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ওপর পিএইচডি সম্পন্ন করেন।

-চাঁদপুর প্রতিনিধি
জয়পুরহাটে লেভেল ক্রসিংয়ে অল্পের জন্য বাঁচলো ৪৮ বাস যাত্রী

জয়পুরহাটে লেভেল ক্রসিংয়ে অল্পের জন্য বাঁচলো ৪৮ বাস যাত্রী

জয়পুরহাটের আক্কেলপুর পৌর এলাকার পশ্চিম আমুট্ট (মহিলা কলেজ সংলগ্ন) এলাকায় ...

সিডরে নিখোঁজের ১১ বছর পর প্রত্যাবর্তন

সিডরে নিখোঁজের ১১ বছর পর প্রত্যাবর্তন

প্রলংয়করী ঘূর্ণিঝড় সিডরে নিখোঁজের ১১ বছর পর বাড়ি ফিরেছেন শরণখোলা ...

সরকারি কাজে বাধা দেয়ায় রাবি ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতির জেল

সরকারি কাজে বাধা দেয়ায় রাবি ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতির জেল

সরকারি কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক ...

আসন বণ্টনের আলোচনা চেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে এরশাদের চিঠি

আসন বণ্টনের আলোচনা চেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে এরশাদের চিঠি

আসন বণ্টন নিয়ে আলোচনা করতে সময় চেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ...

নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র দেশবাসী ক্ষমা করবে না: বি. চৌধুরী

নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র দেশবাসী ক্ষমা করবে না: বি. চৌধুরী

যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান ও বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেছেন, নির্বাচন ...

মিটু আন্দোলন: যৌন নিপীড়নের বিরুদ্ধে সোচ্চার বাংলাদেশের নারীরাও

মিটু আন্দোলন: যৌন নিপীড়নের বিরুদ্ধে সোচ্চার বাংলাদেশের নারীরাও

যৌন নিপীড়নের শিকার যে কেউ হতে পারে। শুধু নারী ও ...

নির্বাচনকে হালকা করে দেখার সুযোগ নেই: আসাদুজ্জামান নূর

নির্বাচনকে হালকা করে দেখার সুযোগ নেই: আসাদুজ্জামান নূর

সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেছেন, 'নির্বাচনকে হালকা করে দেখার কোনো সুযোগ ...

পক্ষপাতহীনভাবে নির্বাচন পরিচালনা করবে ইসি: গণপূর্ত মন্ত্রী

পক্ষপাতহীনভাবে নির্বাচন পরিচালনা করবে ইসি: গণপূর্ত মন্ত্রী

নির্বাচন কমিশন (ইসি) পক্ষপাতহীনভাবে নির্বাচন পরিচালনা করবে বলে আশা প্রকাশ ...