পায়ের তলায় শর্ষে

তুষারঝড়ের দেশে

পায়ের তলায় শর্ষে

প্রকাশ: ১৭ মে ২০১৮      

বিদ্যা সিনহা মিম

ভ্রমণ প্রায় মানুষেরই পছন্দ। সেই ভ্রমণ যদি হয় প্রিয় কোনো জায়গায় তাহলে তো আর কথাই নেই। যেন সোনায় সোহাগা! সম্প্রতি পরিবারের সবাইকে নিয়ে ঘুরতে গিয়েছিলাম যুক্তরাষ্ট্রে। এই ভ্রমণের আনন্দ যেন ফুরানোর নয়। যুক্তরাষ্ট্র আর কানাডা মিলে প্রায় এক মাস থেকেছি। নায়াগ্রা ফলস, ফ্লোরিডার হলিউড স্টুডিওতে ঘুরেছি। আরও দু'একটি স্টুডিও ঘুরেছি। এগুলো অন্যরকম। বলে বোঝানো যাবে না। অনেক অভিজ্ঞতা সঙ্গী করে দেশে ফিরেছি।

হলিউড স্টুডিওতে সারাদিন ঘোরার পর রাতে খুব ক্লান্ত হয়ে গিয়েছিলাম। একসঙ্গে তিনদিনের টিকিট কেটেছিলাম। উপায়ান্তর না দেখে ক্লান্ত শরীর নিয়েই বাকি দু'দিন ঘুরেছি। আর নায়াগ্রা ফলস ঘুরে আসার পর রাতেই আমার প্রায় ১০৩ ডিগ্রি জ্বর। চারদিন রুমেই ছিলাম। ওই সময়টা বেশ অস্বস্তিতে কেটেছিল। এখন টরন্টোর নাম শুনলেই ভয় লাগে। ওই ট্যুরেই অসুস্থ হয়ে বিছানায় ছিলাম। অনেক পরিকল্পনা ছিল কিন্তু সব মাটি হয়ে গেছে।



আমার ঘুরতে ভালো লাগে। সেটা দেশ কিংবা আর বিদেশ হোক। অভিনয় ব্যস্ততাকে ভুলে মাঝে মধ্যে যান্ত্রিক এ শহর ছেড়ে বাইরে কোথায় গেলে মনটা হারিয়ে যায় অন্যরকম আনন্দে। এ সময় ভাবি এখন অনেক কিছু দেখার বাকি। কবি তাই তো বলেছিলেন, 'দেখা হয় নাই চক্ষ মেলিয়া...'। আসলেই তাই। সময়-সুযোগ পেলেই ছুটে যাই দেশ-বিদেশে। নতুন কোনো দেশে পা রাখার আগে চেষ্টা করি সেখান সম্পর্কে জানতে। অজানাকে আবিস্কার করতে ভালোই লাগে। অন্যরকম আনন্দ খুঁজে পাই। প্রথমেই জানার চেষ্টা করি সেখানকার ঐতিহ্যবাহী স্থানগুলো সম্পর্কে জানতে। এরপর খাবার সংস্কৃতি ও অন্যান্য বিষয়। চেষ্টা করি ভ্রমণের পুরো সময়টাই আনন্দ নিতে।

দেশের বাইরে প্রথমবার পা রেখেছিলাম যখন তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ি। সেবার ইন্ডিয়া গিয়েছিলাম মা-বাবার সঙ্গে। সেই আবছা স্মৃতি এখন চোখে ভাসে। এক মাসের মতো সেখানে সময় কাটিয়েছিলাম। প্রথম সবকিছুই তুলনাহীন। আমাকে দার্জিলিংয়ে ভর্তি করাতে নিয়েছিলেন বাবা। এরই ফাঁকে আমরা ঘুরেছি। পরে কান্নাকাটি দেখে আর সেখানে ভর্তি করাননি। ভর্তির বদলে ট্যুর। তখন ছোট ছিলাম। খুব একটা মনে নেই। যতদূর মনে পড়ে অনেক জায়গায় ঘুরেছি। বিশেষ করে ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল পার্কের কথা এখনও মনে পড়ে। এখনও কলকাতা গেলে নস্টালজিক হয়ে যাই। মনে হয় এই তো সেই জায়গা, যেখানে ছোটবেলায় এসেছিলাম। কলকাতার মানুষের জীবনযাত্রা ভালো লাগে। তখন ছোট বোন ছিল না, একাই ছিলাম। তাই যেখানে ঘুরতে চেয়েছি সেখানেই বাবা নিয়ে গেছেন। এখন ভ্রমণে আরও মজা হয়। সবাই মিলে একসঙ্গে ঘুরে দিন কেটে যায় মহানন্দে। দেশের বাইরে ৩৫টি দেশ ঘুরে দেখা হয়েছে। বাকি রয়েছে অনেক সুন্দর সুন্দর দেশ দেখার।

এসব দেশের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র ঘুরতে বেশি ভালো লাগে। এবার কানাডার ভ্যাকুয়ার গিয়েও সেই জায়গাটি পছন্দের তালিকায় চলে এসেছে। এটি আমার কাছে ছবির মতো মনে হয়। সুইজারল্যান্ডও ভালো লাগে। যাকে পৃথিবীর স্বর্গরাজ্য বলা হয়। আসলেই দেশটির মধ্যে অনেক সুন্দর জায়গা রয়েছে। সেখানে গেলে মনটা হারিয়ে যায় অন্য জগতে। বরফে ঢাকা পহাড়ের গায়ে মেঘ লেগে থাকা নিসর্গের এমন অপরূপ সৌন্দর্য পৃথিবীর আর কোথাও পাওয়া যাবে কি-না আমার জানা নেই। সুইজারল্যান্ডের সব শহরের স্থাপত্যে রয়েছে আভিজাত্য ও শৈল্পিক নিদর্শন, যা সহজেই নিয়ে যায় শৈল্পিক ভুবনে। পৃথিবীর নানা দেশ ঘুরেছি। মুগ্ধ হয়ে দেখেছি প্রাকৃতিক সৌন্দর্য। নানা ভাষাভাষী, জাতি-বর্ণের মানুষ পৃথিবীকে চিনিয়েছেন নানা আঙ্গিকে। তবু নিজের দেশের প্রতি মনের যে তীব্র আকর্ষণ তা কোনোভাবেই ফিকে হয়ে যায়নি। তাই তো দেশের প্রকৃতির সৌন্দর্য বারবারই আমাকে টানে। নিজের দেশের কিছু জায়গাতেও যাওয়া বাকি রয়েছে। আমাদের দেশেও অনেক সৌন্দর্যময় স্থান রয়েছে। শুটিংয়ের একটু ফাঁক পেলেই ঘুরতে বের হই সেসব স্থানে। আসলেই এমন দেশটি কোথাও খুঁজে পাওয়া যাবে না। া


ওয়াটসনের সেঞ্চুরিতে আইপিএল শিরোপা চেন্নাইয়ের

ওয়াটসনের সেঞ্চুরিতে আইপিএল শিরোপা চেন্নাইয়ের

মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে হারিয়ে আইপিএলের ১১তম আসরের শিরোপা ...

দেশের এ অবস্থা জাতির জন্য হুমকি: ফখরুল

দেশের এ অবস্থা জাতির জন্য হুমকি: ফখরুল

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আজকে গণতন্ত্রকে যেভাবে ...

সৌদি থেকে ফিরলেন আরও ৪০ নারী

সৌদি থেকে ফিরলেন আরও ৪০ নারী

সৌদি আরবে কর্মক্ষেত্রে নির্যাতনের শিকার আরও ৪০ নারী দেশে ফিরছেন। ...

বিশিষ্টজনের সঙ্গে রাষ্ট্রপতির ইফতার

বিশিষ্টজনের সঙ্গে রাষ্ট্রপতির ইফতার

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ রোববার বঙ্গভবনে প্রধানমন্ত্রীসহ দেশের বিশিষ্ট নাগরিকদের ...

তাপপ্রবাহের আভাস, গরম আরও বাড়বে

তাপপ্রবাহের আভাস, গরম আরও বাড়বে

টানা বৃষ্টির কারণে এবার চৈত্র ও বৈশাখে পারদ চড়তে পারেনি। ...

ঈদে নতুন নোট ৩ জুন থেকে

ঈদে নতুন নোট ৩ জুন থেকে

ঈদ উৎসবে নতুন নোটের বাড়তি চাহিদা তৈরি হয়। এ চাহিদা ...

আগামী জাতীয় নির্বাচন সবার জন্য চ্যালেঞ্জ: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

আগামী জাতীয় নির্বাচন সবার জন্য চ্যালেঞ্জ: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

ফরিদপুর জেলা পুলিশের আয়োজনে ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্থানীয় ...

রামোসের শাস্তি চেয়ে দেড় লাখের বেশি ভক্তের স্বাক্ষর

রামোসের শাস্তি চেয়ে দেড় লাখের বেশি ভক্তের স্বাক্ষর

রিয়াল মাদ্রিদ ডিফেন্ডার সের্গিও রামোস লিভারপুলের তারকা মোহাম্মদ সালাহকে ইচ্ছাকৃতভাবে ...