বেপরোয়া

প্রকাশ: ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

ইব্রাহীম রাসেল

আক্কেল সাহেব বউয়ের সঙ্গে ঝগড়ার একপর্যায়ে বউকে 'বেপরোয়া' বলে বেয়াক্কেল বনে গেলেন। বউ তো তেলে-বেগুনে জ্বলে ওঠে। হুঙ্কার দিয়ে বলে, বেপরোয়া হয় গাড়ি আর গাড়ির ড্রাইভার। তুমি তার সঙ্গে আমার তুলনা করলে? বউ এবার পাল্টা বলা শুরু করে- তুমি বেপরোয়া, তোমার বাপ বেপরোয়া, তোমার চৌদ্দগুষ্টি বেপরোয়া। বউয়ের অগ্নিমূর্তি দেখে এবার আক্কেল সাহেবের আক্কেল গুড়ূম। মনে মনে বিড়বিড় করে বলতে লাগলেন, কেন যে 'বেপরোয়া' বলতে গেলাম। বউ দেখি এখন আমার চৌদ্দগুষ্টি উদ্ধার করছে! আক্কেল সাহেবের বউয়ের ঝাঁজালো কথা তখনও রকেটের গতিতে চলছে। বউ বলে যাচ্ছে, থাকব না এই সংসারে। বিয়ের পর থেকে এক মুহূর্তের জন্যও শান্তি পাইনি। একটা বদ লোকের সঙ্গে বাবা আমার বিয়ে দিয়েছেন। কথায় কথায় দোষ ধরে আর ঝগড়া করে।

আক্কেল সাহেব বুঝতে পারলেন, পরিস্থিতি এবার ভয়াবহ রূপ ধারণ করতে যাচ্ছে। তিনি এবার শীতল হয়ে বউয়ের অগ্নিমূর্তিতে জল ঢালতে শুরু করলেন- দেখ, 'বেপরোয়া' যে শুধু গাড়ির ড্রাইভারকে বলা হয়, এটা আসলে গুজব। এ শব্দটি অনেক ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। তবে তোমার ক্ষেত্রে নয়। এটা তোমাকে বলা আসলে ঠিক হয়নি। ধনী লোকের অনেক আদুরে সন্তান আছে যারা আহদ্মাদে চৌরঙ্গ। মা-বাবা-অভিভাবকদের তোয়াক্কা করে না, যা খুশি তাই করে বেড়ায়, তাদেরও 'বেপরোয়া' স্বভাবের বলা হয়। তুমি শুধু শুধু মন খারাপ কর না।

ব্যস! আক্কেল সাহেব এবার আরও ফেঁসে গেলেন। হিতে-বিপরীত হলো। বউ তো আরও ক্ষেপে গেল। কী...! আমি অভিভাবকের কথা তোয়াক্কা করি না? আমি যা খুশি তাই করি? আমি আহ্লাদে চৌরঙ্গ দিয়ে গেছি? হাতে ছিল পানির গ্লাস, এবার ছুড়ে মারল মেঝেতে। বিকট আওয়াজ তুলে চুরমার হয়ে গেল গ্লাস। আক্কেল সাহেব বেচারা অসহায়ের মতো দাঁড়িয়ে রইলেন। টুঁ শব্দটি করলেন না। বুঝতে পারলেন, এখন কোনো কথা বলা মানে আগুনে ঘি ঢালা। তিনি চুপচাপ পাশের রুমে চলে গেলেন।

১৫ বছরের সংসার জীবন আক্কেল সাহেবের। এই ১৫ বছরে কম করে হলেও ১,৫০০ বার ঝগড়া হয়েছে দু'জনের। প্রতিবার ঝগড়ার সময় বউয়ের কমন ডায়ালগ- থাকব না এই সংসারে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ১৫ বছরেও তার আর যাওয়া হলো না। দু'জনের কোনো সন্তান নেই। আক্কেল সাহেব বলেন, বউয়ের সমস্যা। বউ বলেন আক্কেল সাহেবের সমস্যা। এই নিয়েও বহুবার ঝগড়ার সূত্রপাত। একটা সন্তান লাভের আশায় দু'জনে বহুবার ডাক্তার দেখিয়েছেন। দু'জনের মধ্যে কারোরই কোনো সমস্যা চিহ্নিত হয়নি। অবশেষে সন্তানের বিষয়ে তারা দু'জনেই এটা মেনে নিয়েছেন যে, সৃষ্টিকর্তা বোধহয় আমাদের জন্য এটাই নির্ধারণ করে রেখেছেন। এ বিষয় নিয়ে ঝগড়া একটা সময় বন্ধ হলেও ঝগড়া কিন্তু চিরতরে বন্ধ হয়নি। আক্কেল সাহেবের বউয়ের ইমোশন আর ইগো দুটোই বেশি হওয়ায় অল্প কিছুতেই লেগে যায়। আক্কেল সাহেবেরও দোষ আছে। বউকে সময় সময় তিরস্কার আর ঠ্যাস মেরে কথা বলেন। তারও মনে হয়, বউ ঝগড়া না করলে পেটের ভাত হজম হয় না।

কিন্তু এবারের ঝগড়াটা একটু অন্যরকম মনে হচ্ছে। বউ এক সপ্তাহ ধরে কোনো কথা বলছে না। আক্কেল সাহেব বেচারা বিপদে আছেন। কোনো কথা বলার সাহসও পাচ্ছেন না- আবার কোন কথা ধরে আরও রেগে যায়! অফিসে তিনি বিষয়টা নিয়ে বেশ চিন্তিত ছিলেন। কাজে ঠিক মনোযোগ বসাতে পারছিলেন না। অফিস কলিগ কেরামত সাহেবের চোখে বিষয়টি ধরা পড়ে। তিনি নিজের চেয়ার ছেড়ে এসে আক্কেল সাহেবকে সরাসরি প্রশ্ন করলেন- কী আক্কেল সাহেব! ভাবির সঙ্গে লেগেছে বুঝি? আক্কেল সাহেব এবার অসহায় ভঙ্গিতে বলেন, আর বইলেন না ভাই। এবারের লাগালাগিটা একটু জটিল পর্যায়ে চলে গেছে। পুরো বিষয়টা কেরামত সাহেবকে খুলে বলেন আক্কেল সাহেব। কেরামত সাহেব এবার নিজের কথার বাক্স খোলেন। তার বউয়ের সঙ্গে মাসে এমন দু'চারবার হয়। আপন সংসারের যুদ্ধের গল্প বলতে বলতে আক্কেল সাহেবের মাথাটা আরও ভারী করে তুললেন। শেষ পর্যায়ে এসে বললেন, শুনুন! আপনাকে একটা পরামর্শ দিচ্ছি। সেই অনুযায়ী কাজ করুন। দেখবেন ভাবির রাগ পানি হয়ে গেছে।

কেরামত সাহেবের পরামর্শ অনুযায়ী আক্কেল সাহেব মার্কেটে গেলেন। বউয়ের পছন্দের ডাবল ডাবল জিনিস কিনলেন। শাড়ি, ব্লাউজ, থ্রিপিস, কসমেটিক্স, স্বর্ণের কানের দুল, হাতের বালা, গলার চেইন। মোটামুটি লাখ টাকার কেনাকাটা করে বাসায় ফিরলেন আক্কেল সাহেব। এই টাকাটা জমিয়েছিলেন আরও কিছু টাকা জমিয়ে একসঙ্গে নিজের জন্য একটা বাইক কিনবেন বলে। তা আর কেনা হলো না। বউয়ের মান ভাঙাতে উৎসর্গ করতে হলো।

বাসায় পৌঁছে আক্কেল সাহেব দু'হাত ভরা শপিং ব্যাগগুলো বউয়ের সামনে রাখলেন। একটা একটা খুলছেন আর বউকে দেখিয়ে বলছেন, পছন্দ হয়েছে তোমার? সব শেষে হাতের বালা আর গলার চেইনটা যখন খুললেন বউয়ের মুখে এবার নতুন চাঁদের মতো হাসি দেখা গেল। বউ এবার মুখ ফুটে বললেন, কী ব্যাপার! হঠাৎ তোমার এই 'বেপরোয়া' শপিং! দু'জন-দু'জনের দিকে তাকিয়ে এবার হো-হো করে হেসে উঠলেন।
বরিশালে ইউপি চেয়ারম্যানকে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা

বরিশালে ইউপি চেয়ারম্যানকে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা

বরিশালের উজিরপুর উপজেলার জল্লাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বিশ্বজিৎ হালদার নান্টুকে ...

দুবাই যাচ্ছেন সৌম্য-ইমরুল

দুবাই যাচ্ছেন সৌম্য-ইমরুল

ড্রেসিংরুম থেকেই জরুরি তলব ঢাকায়-ওপেনিংয়ে কিছুই হচ্ছে না। সৌম্য সরকারকে ...

খালেদা জিয়ার সঙ্গে স্বজনদের সাক্ষাৎ

খালেদা জিয়ার সঙ্গে স্বজনদের সাক্ষাৎ

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করেছেন তার পরিবারের সদস্যরা। ...

'নায়ক' গেলো সেন্সরে

'নায়ক' গেলো সেন্সরে

ঢাকাই ছবির জনপ্রিয় নায়ক বাপ্পি ও নবাগতা অধরা খান জুটির ...

সোনাহাট স্থলবন্দরে শ্রমিকদের সংঘর্ষ, ১৪৪ ধারা জারি

সোনাহাট স্থলবন্দরে শ্রমিকদের সংঘর্ষ, ১৪৪ ধারা জারি

কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারী উপজেলার সোনাহাট স্থলবন্দরে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। ...

পাকিস্তানকে ভালো লক্ষ্য দিল আফগানরা

পাকিস্তানকে ভালো লক্ষ্য দিল আফগানরা

এশিয়া কাপে নিজেদের ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছে আফগানিস্তান। ভালো রান সংগ্রহ ...

চার জাতির টুর্নামেন্টে দর্শক মেসি

চার জাতির টুর্নামেন্টে দর্শক মেসি

আগামী মাসে সৌদি আরবে চার জাতির একটি টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হবে। ...

নির্বাচনের আগে সিনহা অপপ্রচারে উসকানি না দিলেও পারতেন: কাদের

নির্বাচনের আগে সিনহা অপপ্রচারে উসকানি না দিলেও পারতেন: কাদের

সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা নির্বাচনের আগে বই প্রকাশ ...