মেধাবী মুখ

লক্ষ্যটা ঠিক করে নাও

প্রকাশ: ১২ আগস্ট ২০১৮      

তাইম শেখ

বিসিএস মানেই ধরাবাঁধা নিয়ম না যে, আপনাকে চব্বিশ ঘণ্টা টেবিলে বই নিয়ে বসে থাকতে হবে। এর জন্য চাই নিয়ম মাফিক বই পড়া। নিজের পড়াটাকে রুটিনের ভেতর রাখা। আর বিসিএসের জন্য যেটা খুবই জরুরি সেটা হলো, নিজের লক্ষ্যটাকে ঠিক করা। জীবনে লক্ষ্য স্থির না করলে সাফল্য অর্জন করা সম্ভব না। সাফল্য অর্জন করতে হলে নিজের প্রতি আস্থাশীল ও লক্ষ্যটাকে ঠিক করতে হবে। তাহলেই বিসিএসের মতো যে কোনো কৃতিত্বপূর্ণ কাজ অর্জন করা সম্ভব হবে। আর তেমনি একজন লক্ষ্য স্থিরকারী সফল ব্যক্তি জাকির মুন্সী। তিনি ৩৬তম বিসিএসে প্রশাসন ক্যাডারে ৭৪তম স্থান অর্জন করেছেন। তার গ্রামের বাড়ি গোয়ালপাড়া, বারদী, সোনারগাঁ, নারায়ণগঞ্জে। তার বাবা এসহাক মুন্সী পেশায় কৃষক, মা হাফেজা বেগম একজন গৃহিণী। নবম শ্রেণিতে থাকা অবস্থায় বিসিএস সম্পর্কে একটু-আধটু ধারণা পান স্কুলশিক্ষক জয়নাল আবেদিনের কাছ থেকে। তারপর ২০০৫ সালে গোয়ালপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ব্যবসায় শিক্ষা শাখা থেকে জিপিএ ৪.২৫ পেয়ে মাধ্যমিক পাস করেন। তারপর ভর্তি হন দনিয়া কলেজে। সেখান থেকে জিপিএ ৪.৮০ পেয়ে ব্যবসায় শিক্ষায় উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন ব্যবস্থাপনা বিভাগে। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সিজিপিএ ৩.৫৮ পেয়ে বিবিএ পাস করেন ২০১১ সালে এবং ২০১২ সালে সিজিপিএ ৩.৭৩ পেয়ে এমবিএ শেষ করেন। এরই মধ্যে ৩৫তম বিসিএসের সার্কুলার দেয়। তখনই পড়ার প্রতি বেশ মনোযোগী হয়ে ওঠেন জাকির মুন্সী। ২০১৫ সালে এসআই পদে চাকরি পান। কিন্তু আরেকজন গুণী ব্যক্তির ছায়া ও অনুপ্রেরণা তার ওপরে ছিল সেকারনে এসআই চাকরিটা করেননি। যার প্রেরণায় চেষ্টা করেছেন বিসিএসের জন্য তিনি হলেন মিরপুর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক রোকসানা পারভীন সাথী। ২০১৫ সালে ৩৫তম বিসিএসে নন-ক্যাডারের জন্য সুপারিশ প্রাপ্ত হন। তারপরও তাকে কোনো অলসতা মগ্ন করে রাখতে পারেনি। তিনি প্রস্তুতি নিয়েছেন ৩৬তম বিসিএসের জন্য। ২০১৫ সালের মে মাসে ৩৬তম বিসিএসের সার্কুলার হলে তাতে অংশ নেন তিনি। আত্মবিশ্বাস ছিল। ভাইভার রেজাল্ট যখন দেখেন, তিনি প্রথম পছন্দের প্রশাসন ক্যাডারের জন্য ৭৪তম স্থানের জন্য সুপারিশ প্রাপ্ত হয়েছেন। তখন খুশির বন্যা চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। তার এত বড় অর্জনের পেছনে ছিল নিরলস সাধনা। জাকির মুন্সী বলেন, বিসিএসের জন্য খুবই জরুরি হলো গ্রুপ স্টাডি।

পরবর্তী খবর পড়ুন : সুযোগ আছে ইতালিতে

শনিবার আধাবেলা বন্ধ দূরপাল্লার বাস

শনিবার আধাবেলা বন্ধ দূরপাল্লার বাস

আগামী শনিবার বাংলাদেশ আন্তঃজেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের কার্যকরী কমিটির ...

এ কেমন শিক্ষক!

এ কেমন শিক্ষক!

নারায়ণগঞ্জে এক কলেজ শিক্ষকের ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণে স্তম্ভিত সবাই। তিনি মোবাইল ...

নয়া পল্টনে সংঘর্ষের ঘটনায় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি আ. লীগের

নয়া পল্টনে সংঘর্ষের ঘটনায় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি আ. লীগের

রাজধানীর নয়া পল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনাকে ...

বিমানে আরেকটি ড্রিমলাইনার যুক্ত হচ্ছে পহেলা ডিসেম্বর

বিমানে আরেকটি ড্রিমলাইনার যুক্ত হচ্ছে পহেলা ডিসেম্বর

দিন দিন বড় হচ্ছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের আকাশপথ। বিমানের বহরে ...

সবাই নির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত, সেখানে আমাদের আটকে রাখা হয়েছে: খালেদা

সবাই নির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত, সেখানে আমাদের আটকে রাখা হয়েছে: খালেদা

আদালতকে উদ্দেশ্য করে বিএনপি চেয়ারপারসন খলেদা জিয়া বলেছেন, একদল নির্বাচন ...

হেলমেটধারী এজেন্টরা পুলিশের গাড়িতে আগুন দিয়েছে: রিজভী

হেলমেটধারী এজেন্টরা পুলিশের গাড়িতে আগুন দিয়েছে: রিজভী

বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের গাড়িতে হেলমেটধারী এজেন্টরা আগুন লাগিয়েছে ...

রাস্তায় চানাচুর বিক্রেতা থেকে এমপি প্রার্থী!

রাস্তায় চানাচুর বিক্রেতা থেকে এমপি প্রার্থী!

স্যোসাল মিডিয়ায় ভাইরাল তিনি। সেখান থেকে এখন হচ্ছেন খবরের শিরোনাম। ...

দাবিগুলো বিবেচনার আশ্বাস দিয়েছে ইসি: ড. কামাল

দাবিগুলো বিবেচনার আশ্বাস দিয়েছে ইসি: ড. কামাল

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে করা বিভিন্ন দাবি পূরণের জন্য ...