ছিমছাম পোশাক

প্রকাশ: ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

সৈয়দ ত্বহা

রোজকার জীবনে একঘেয়েমি রয়েছে প্রচুর। দিনের শুরু থেকে শেষে কর্মব্যস্ততার ভিড়ে হারিয়ে যেতে যেতে নিজের মতো করে প্রিয় পোশাক বেছে নেওয়ার সুযোগও কমে গেছে। বেশির ভাগ কাজের জায়গাতেই ঠিক করা থাকে কী ধরনের পোশাক পরে আসতে হবে কাজে। কী কী পরা যাবে, তার সঙ্গে বলে দেওয়া থাকে ঠিক কী কী পরে আসা যাবে না। এমনিতেই বিশ্ববিদ্যালয় শেষ করে কাজে যোগদান মানে নানান নিয়মের বাহানা। সাজ-পোশাক নিয়েও যখন বাঁধাধরা কয়েকটি রঙ এবং বাহুল্যহীন নকশার কাপড়ে প্রতিদিন তৈরি হতে হয়, তখন ক্লান্তি চলে আসে খুব সহজেই। আর ক্লান্তি কাজের মনোযোগের অন্তরায়। এ ধরনের সমস্যা নিয়ে ভাবছেন এখন কর্মবিষয়ক অভিজ্ঞরা। ধারনাতে আসছে পরিবর্তন, যার প্রভাব আমরা দেখতে পাই বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে। এর পেছনে রয়েছে কিছু মনস্তাত্ত্বিক যুক্তি।

একটা সময় ছিল যখন চাকরিক্ষেত্রে পোশাক ব্যবহারের ওপর বিশেষভাবে গুরুত্ব দেওয়া হতো। হালকা একরঙা শার্ট অথবা চেক শার্ট হলেও ছোট চেক আর কালো, নেভি ব্লু অথবা হালকা বাদামি রঙের ফরমাল প্যান্ট পরা এক ধরনের নিয়ম হিসেবে মান্য করা হতো। আর মেয়েদের জন্য শাড়িই ছিল একমাত্র পোশাক। কিন্তু দিন বদলের সঙ্গে সঙ্গে মেয়েরা সালোয়ার-কামিজকে কর্মক্ষেত্রে পরিচ্ছদ হিসেবে ব্যবহার শুরু করে। কর্মক্ষেত্রের অঘোষিত এই আইনের সঙ্গে সঙ্গে কর্মজীবীরা মানিয়ে নিলেও স্বাচ্ছন্দ্যের পোশাক হিসেবে একই ধারার পোশাককে আপন করে নিতে পারেনি তেমনভাবে। এ কারণে হয়তো কাজের প্রতি মনোযোগ ও কর্মক্ষমতা কমতে শুরু করে। যার কারণবশত প্রতিষ্ঠানের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা অনেক ভেবেচিন্তে তাদের কর্মচারীদের ওপর থেকে পোশাকের জন্য অঘোষিত যে আইন ছিল তা শিথিল করেন। কর্মক্ষেত্রে ক্যাজুয়াল পোশাকের ব্যবহার কিছুটা এভাবেই শুরু হয়। আর বাংলাদেশে এ চর্চার শুরু হয় একবিংশ শতাব্দীর শুরুর দিকে বৈদেশিক প্রতিষ্ঠানের হাত ধরে। তারা তখনকার সময়ে তাদের করপোরেট সংস্কৃৃতিকে ঠিক সেভাবেই সাজানোর চেষ্টায় ছিল, যা এক সময় সবাই তাদেরকে পথপ্রদর্শক হিসেবে গণ্য করবে। যদিও শুরুতে খুব সহজে সবাই কর্মক্ষেত্রে এই ক্যাজুয়াল সংস্কৃৃতির অবাধ ব্যবহার মেনে নিতে না পারলেও সময়ের পরিবর্তনের ফলে সবার কাছেই এর গ্রহণযোগ্যতা বেড়েই চলেছে দিন দিন। তাই তো এই আধুনিক সময়ে এসে প্রতিষ্ঠানের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারা তাদের অধীনস্তদের কাছ থেকে কাজের ফিরিস্তি চায়, পোশাকের জন্য থাকে নয়। পুরুষদের মধ্যে কলারসহ পোলো শার্ট, রঙ-বেরঙের হাফ হাতা কিংবা ফুল হাতা শার্ট উভয়ের জনপ্রিয়তা রয়েছে। পোলো শার্টে এক রঙ আর স্ট্রাইপের নকশার ব্যবহারই বেশি দেখা যায়। আর রঙের কথা বলতে গেলে এখানে রঙের ব্যবহারের চেয়ে স্বাচ্ছন্দ্যবোধকেই বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়। যদিও সবারই কোনো না কোনোভাবে পছন্দের রঙ থাকে। আর তার সেই রঙের প্রতি একটু দুর্বল হওয়াটাই স্বাভাবিক।

ফুল হাতা শার্টের কথা বলতে গেলে এক রঙের সঙ্গে ইদানীং ফুল, পাখি অথবা বিভিন্ন রকম প্রিন্টের শার্টের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পাচ্ছে। চেক শার্টের কথা বলতে গেলে বলতে হয়, অন্যান্য ডিজাইনের শার্টের চেয়ে চেক শার্টের জনপ্রিয়তা একটু বেশিই। জ্যামিতিক আকারের চেক শার্টের প্রথা বর্তমানে প্রচলিত। যার মধ্যে চতুর্ভুজ আর ষড়ভুজ ডিজাইনের চেক বেশি জনপ্রিয়। দুই বা ততোধিক রঙের চেক শার্টের ব্যবহারই বেশি লক্ষ্য করা যাচ্ছে বর্তমান সময়ে। আর হাফ হাতা শার্টের মধ্যে হাওয়াইন শার্টের মাধ্যমে নিজেদের প্রকাশ কারাই বর্তমান সময়ের ফ্যাশন হিসেবে বিবেচিত। যদি প্যান্টের কথা বলা হয় তাহলে জিন্সের কথা আসবে সর্বপ্রথমে। পরতে স্বচ্ছন্দ, দেখতে সুন্দর, সহজেই মানানসই আর জিন্সের সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো যে কোনো পোশাকের সঙ্গেই পরা যায় ও মানিয়ে নেওয়া যায় খুব সহজভাবেই। অন্যদিকে কর্মক্ষেত্রে সব সময় জিন্স প্যান্ট ব্যবহার না করাই ভালো। সে ক্ষেত্রে গ্যাবার্ডিনের প্যান্ট হতে পারে আরামদায়ক পোশাকের একটি উদাহরণ। বিভিন্ন রকম গ্যাবার্ডিনের যেমন আরামদায়ক তেমন মানানসই প্যান্ট পাওয়া যাচ্ছে বাজারে। শার্ট, পোলো শার্ট, টি-শার্ট কিংবা পাঞ্জাবি, সবকিছুর সঙ্গেই মানিয়ে নেয় গ্যাবার্ডিনের প্যান্ট। পছন্দসই ও আরামদায়ক পোশাক নির্বাচনের ক্ষেত্রে মেয়েরা সব সময় এক ধাপ এগিয়ে থাকে। তাই তো জিন্স, টপস, পালাজ্জো, একটু ভিন্নতায় মোড়ানো সালোয়ার-কামিজ, স্কার্ট অথবা গাউনের মাধ্যমে নিজেদের সাজিয়ে তোলে।

এ সময়ের কর্মব্যস্ত আধুনিক মেয়েরা কাজের জায়গা এবং তার বাইরের জীবন, উভয় স্থানে একই সঙ্গে ফ্যাশন সচেতন ও স্বস্তিদায়ক পোশাক বেছে নিতে চান। এ ক্ষেত্রে তারা প্রাধান্য দিয়ে থাকেন পোশাকের কাটিংয়ের ওপর। বর্তমান সময়ের পোশাকের ফ্যাশনে কাটিংয়ের গুরুত্ব ও ভিন্নতা বেশ লক্ষণীয়। এক সময় পোশাকের পছন্দে অলঙ্করণের গুরুত্ব ছিল সর্বাধিক। এখন সময় বদলেছে। পোশাকে আলঙ্কারিক নকশার চেয়ে গঠনগত নকশাকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। ক্রেতাসাধারণ নন শুধু, নকশাবিদরাও ভাবছেন এ বিষয়ে। এ সম্পর্কে কথা হয় ব্র্যান্ড ইউনিক্লোর প্রধান ডিজাইনার আরিফ ভূঁইয়া মোহাম্মদের সঙ্গে। তিনি বলেন, 'পোশাক তৈরির ক্ষেত্রে আমরা সবচেয়ে গুরুত্ব দিচ্ছি পোশাকের মানের দিকে। কর্মব্যস্ত মানুষের সুবিধার কথা বিবেচনায় রেখে তৈরি পোশাকের প্যাটার্নে আনা হয়েছে বিশেষত্ব। গাঠনিক নকশাতে পোশাক তৈরি করা হয়েছে আধুনিক নকশাতে।'

পোশাকের কাটিংয়ের পাশাপাশি রঙের ব্যবহারেও দেখা যাচ্ছে বিচিত্রতা। রঙে একঘেয়েমির কোনো জায়গা যেন তৈরি না হয়, নজর রাখা হচ্ছে সে বিষয়ে। চোখে পড়ছে ভিন্ন ধরনের রঙের মিশেল, যা আকর্ষণ করছে ক্রেতাদের। কামিজ ব্যবহার বেশ জনপ্রিয় কর্মজীবীদের কাছে। কামিজের নিচের অংশে অ্যাসিমেট্রিক্যাল কাট অর্থাৎ অসমান কাট জনপ্রিয়তার তালিকায় আছে বেশ কয়েক বছর ধরে। পোশাকের বটম হিসেবে পালাজ্জো এবং প্যান্ট নজর কেড়েছে অনেকের।

এবার আসা যাক সাজগোছের ব্যপারে। ছিমছাম সাজ মানেই পোশাকের সঙ্গে মানানসই চুল ও মেকআপ। এ বিষয়ে কথা হয় রূপ বিশেষজ্ঞ আফরোজা পারভীনের সঙ্গে। তিনি বলেন, 'ব্যস্ত জীবন যাপনে অভ্যস্তদের সাজের প্রতি খেয়াল রাখতে হবে নিয়মিত। সময় নিয়ে করতে হবে ত্বকের পরিচর্যা। আর বাইরে বের হওয়ার সময় মেকআপের বেজের প্রতি রাখতে হবে নজর। হালকা মেকআপে স্নিগ্ধতা তাদেরকে করে তুলবে অতুলনীয়। চোখে কাজল পরতে হবে। সেই সঙ্গে মাশকারা। মানানসই রঙের লিপস্টিকে সাজতে হবে। চুল খোলা রাখা যেতে পারে, তবে কাজের সময় বেঁধে রাখলে বেশ স্বস্তি মিলবে। চলাফেরায় আসবে স্বাচ্ছন্দ্য। গয়না পরতে হবে হালকা। হাতে থাকবে রুচিশীল ঘড়ি।'



মডেল : রোদেলা, নাহিদ ও তাসনুভা

পোশাক : গ্রামীণ ইউনিক্লো

মেকআপ : রেড বিউটি স্যালুন

ছবি : রনি হোসেন
এবার ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় টাইগারদের

এবার ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় টাইগারদের

গল্পে পড়া উঠের পিঠে চড়া সেই বেদুইনরা নাকি এখন শুধুই ...

বালুখেকোরা খুবলে খাচ্ছে সুরমা

বালুখেকোরা খুবলে খাচ্ছে সুরমা

সিলেটের প্রাণ সুরমা নদীকে খুবলে খাচ্ছে বালুখেকোরা। অথচ এই নদী ...

বরিশালেও প্রকাশ্যে অবৈধ বালু উত্তোলন

বরিশালেও প্রকাশ্যে অবৈধ বালু উত্তোলন

হিজলা ও মুলাদী উপজেলার মধ্যবর্তী নয়াভাঙ্গুলী নদীর ৮-১০টি পয়েন্টে এবং ...

জাতিসংঘে রোহিঙ্গা নিয়ে বিশ্বের সমর্থন চাইবেন প্রধানমন্ত্রী

জাতিসংঘে রোহিঙ্গা নিয়ে বিশ্বের সমর্থন চাইবেন প্রধানমন্ত্রী

রোহিঙ্গা সংকট মোকাবেলায় বিশ্ব সম্প্রদায়কে সহযোগিতার জন্য ফের আহ্বান জানাবেন ...

সালাহ ফিরেছেন, জিতেছে লিভারপুল

সালাহ ফিরেছেন, জিতেছে লিভারপুল

'ফর্মে নেই সালাহ।' কথাটা উঠে গিয়েছিল। কারণ মিসর তারকা মোহামেদ ...

২০ হাজার টাকা ঘুষের জন্য ওসির রাতভর নাটক

২০ হাজার টাকা ঘুষের জন্য ওসির রাতভর নাটক

একটি প্রতারণার মামলায় দুর্গাপুরের ঝালুকা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মোজাহার ...

আয়কর রিটার্ন দাখিল আরও সহজ করতে হবে: প্রধান বিচারপতি

আয়কর রিটার্ন দাখিল আরও সহজ করতে হবে: প্রধান বিচারপতি

জনগণের হয়রানি বন্ধে আয়কর রিটার্ন দাখিল আরও সহজ করার আহ্বান ...

ষড়যন্ত্রের ঐক্য কোনো ফল দেবে না: সমাজকল্যাণমন্ত্রী

ষড়যন্ত্রের ঐক্য কোনো ফল দেবে না: সমাজকল্যাণমন্ত্রী

সমাজকল্যাণমন্ত্রী ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেছেন, ...