বগুড়ার সেই বধ্যভূমিতে খনন শুরু

প্রকাশ: ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭      

বগুড়া ব্যুরো

মুক্তিযুদ্ধকালীন গণকবরের সন্ধানে বগুড়া রেলওয়ে স্টেশন-সংলগ্ন তৎকালীন এসডিও বাংলোর ভেতরে খননের কাজ অবশেষে শুরু হলো। গতকাল বৃহস্পতিবার শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের সকালে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বধ্যভূমির ভরাট হয়ে যাওয়া একটি কূপ খনন শুরু হয়। প্রথম দিন প্রায় ১২ ফুট পর্যন্ত খনন করে দুটি হাড় পাওয়া গেছে।

বগুড়া জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ নূরে আলম সিদ্দিকীর উপস্থিতিতে খননকালে অন্যান্যের মধ্যে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা, রাজনীতিবিদ, জনপ্রতিনিধি, গবেষক ও গণমাধ্যম কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এলাকাবাসী ও মুক্তিযোদ্ধাদের বর্ণনা অনুযায়ী, রেলওয়ে স্টেশনের দক্ষিণে ওই এসডিও বাংলোকে পাকিস্তানি সেনারা টর্চার সেলে পরিণত করেছিল মুক্তিযুদ্ধের সময়টিতে। আশপাশের কোয়ার্টারে বসবাসরত রেলওয়ের তৎকালীন বিহারি কর্মচারীরা বাঙালি তরুণ ও মুক্তিযোদ্ধাদের ধরে এনে পাকিস্তানি সেনাদের হাতে তুলে দিত। পরে তাদের হত্যা করা হতো। আর রক্তাক্ত মৃতদেহগুলো সরিয়ে কূপে ফেলার কাজটি করানো হতো দশীন জমাদার নামে রেলওয়েতে কর্মরত তৎকালীন এক সুইপারকে দিয়ে। যুদ্ধের শেষদিকে কূপটি মাটি দিয়ে ভরাট করা হয়।

নৃশংস ওই হত্যাযজ্ঞের খবর স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সালে 'সংবাদ' পত্রিকায় প্রথম প্রকাশিত হয়। এরপর হাসান হাফিজুর রহমান সম্পাদিত 'মুক্তিযুদ্ধের দলিলপত্র' বই-এর অষ্টম খণ্ডেও তা স্থান পায়। এরপর থেকেই ওই কূপটি খননের দাবি জানিয়ে আসছিলেন এলাকাবাসী। সম্প্রতি এ নিয়ে একাধিক গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশের পর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কূপ খননের উদ্যোগ নেওয়া হয়।

বগুড়ার জেলা প্রশাসক নূরে আলম সিদ্দিকী বলেন, 'যেহেতু মুক্তিযুদ্ধের দলিলপত্রে এখানে গণকবরের কথা উল্লেখ রয়েছে, তাই আমরা এটি খননের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।'

মুক্তিযোদ্ধা সংসদের বগুড়া জেলা কমান্ডার রুহুল আমিন বাবলু বলেন, 'এখানে গণকবর আছে, এমন কথা পত্রপত্রিকার মাধ্যমে জেনেছি। সেটা আজ খনন করা হচ্ছে। এটা অবশ্যই একটা ভালো উদ্যোগ।'

মুক্তিযোদ্ধা ও বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মমতাজ উদ্দিন বলেন, 'গণকবরগুলোও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের একটা অংশ। আগামী প্রজন্মের কাছে এগুলো তুলে ধরতে হবে।'

আগামীতেও মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কিত যে কোনো কাজে সহায়তা দিয়ে যাবেন বলে জানান বগুড়া পৌরসভার মেয়র অ্যাডভোকেট মাহবুবর রহমান।

আরও পড়ুন

নিয়মিত সানস্ক্রিন ব্যবহারে কমে ত্বকের ক্যান্সারের ঝুঁকি: গবেষণা

নিয়মিত সানস্ক্রিন ব্যবহারে কমে ত্বকের ক্যান্সারের ঝুঁকি: গবেষণা

যারা নিয়মিত সানস্ক্রিন ব্যবহার করে তাদের ত্বকের ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ...

সাতক্ষীরায় মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৬৩

সাতক্ষীরায় মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৬৩

সাতক্ষীরায় পুলিশের মাদকবিরোধী বিশেষ অভিযানে ১১ জন নেতাকর্মী ও তিনজন ...

সয়াবিনের ভালোমন্দ

সয়াবিনের ভালোমন্দ

খাদ্য উপকরণ হিসেবে সয়াবিনের ব্যবহার বেশ পুরনো। চীনারা সয়াবিনকে এক ধরনের ...

ম্যালেরিয়ায় মৃত্যু ঠেকাতে নতুন ওষুধ আবিষ্কার

ম্যালেরিয়ায় মৃত্যু ঠেকাতে নতুন ওষুধ আবিষ্কার

ট্যাফেনোকুইন নামের এক ধরণের ট্যাবলেটকে ম্যালেরিয়ায় চিকিৎসায় ব্যবহারের জন্য অনুমোদন ...

আজ গ্যাস থাকবে না রাজধানীর যেসব এলাকায়

আজ গ্যাস থাকবে না রাজধানীর যেসব এলাকায়

গ্যাস পাইপ লাইন স্থানান্তর কাজের জন্য আজ সোমবার সকাল ১০টা ...

ব্যাংকের শীর্ষ ১০ খেলাপির তথ্য নিচ্ছে অর্থ মন্ত্রণালয়

ব্যাংকের শীর্ষ ১০ খেলাপির তথ্য নিচ্ছে অর্থ মন্ত্রণালয়

সরকারি-বেসরকারি সব ব্যাংকের শীর্ষ ১০ জন ঋণ খেলাপির তথ্যসহ ব্যাংকগুলোর ...

কামরানের নির্বাচনী ক্যাম্পে আগুন

কামরানের নির্বাচনী ক্যাম্পে আগুন

শান্তি, সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতির শহর হিসেবে হযরত শাহজালাল (রহ.), হযরত ...

এগিয়ে যাচ্ছে দেশ

এগিয়ে যাচ্ছে দেশ

নানা প্রতিকূলতা ও সীমাবদ্ধতা আছে, তারপরও ইন্টারনেট ব্যবহারে প্রতিদিনই এগিয়ে ...