রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ছড়াচ্ছে ডিপথেরিয়া

তিন হাজারের বেশি আক্রান্ত শিশুসহ মৃত্যু ৩০ জনের

প্রকাশ: ০৯ জানুয়ারি ২০১৮      

মুহাম্মদ হানিফ আজাদ, উখিয়া (কক্সবাজার)

ফাইল ছবি


উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ৫ নম্বর মেডিকেল সেন্টারে পাঁচ বছরের ছেলে শফিউলের চিকিৎসার জন্য এসেছেন ফাতেমা বেগম (৩০) নামে এক রোহিঙ্গা নারী। তিনি জানান, ছেলেটি এক সপ্তাহ ধরে অসুস্থ। কিছুতেই তার জ্বর কমছে না। একই সঙ্গে সর্দি-কাশিও লেগে আছে। অনেকবার ডাক্তার দেখিয়েছেন। ওষুধ নিতে আবারও ডাক্তারের কাছে এসেছেন।

চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে জানা গেল, শফিউল ডিপথেরিয়ায় আক্রান্ত। রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে শফিউলের মতো অনেকেই আক্রান্ত হচ্ছে এই ছোঁয়াচে রোগে। গত নভেম্বরে প্রথম ১০৮ জন ডিপথেরিয়া রোগী শনাক্ত করা হয় ক্যাম্পগুলোতে। এর পর থেকে এ পর্যন্ত সেখানে ডিপথেরিয়ায় আক্রান্তের সংখ্যা তিন হাজার ২০০ ছাড়িয়েছে। শিশুসহ মোট ৩০ জন মারা গেছে প্রাণঘাতী ডিপথেরিয়ায়। তাই আতঙ্ক বেড়েছে ক্যাম্পগুলোতে। তবে ডিপথেরিয়ার লক্ষণগুলো শীতজনিত অন্যান্য রোগের মতো বলে অনেকেই বুঝতে পারছে না, তারা ডিপথেরিয়ায় আক্রান্ত কি-না। ফলে চিকিৎসাসেবার আওতায় আসছে না অনেকেই।

শরণার্থী শিবিরগুলোতে ডিপথেরিয়া আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে জানিয়ে উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নিকারুজ্জামান বলেন, ডিপথেরিয়ায় আক্রান্তদের চিকিৎসায় ব্রিটিশ ইমারজেন্সি মেডিকেল টিম কাজ করছে। উখিয়া ও টেকনাফের ১২টি ক্যাম্পে অনেক মেডিকেল ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে। এসব ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি স্থানীয়দের চিকিৎসাসেবা দেওয়া হচ্ছে। একই ভাবে উখিয়ার হাসপাতালেও রোহিঙ্গাদের জন্য বাড়তি আসনের ব্যবস্থা  করা হয়েছে।

কক্সবাজারের সিভিল সার্জন ডাক্তার আবদুস সালাম বলেন, 'এই রোগে নতুন করে যাতে কোনো রোহিঙ্গা ও স্থানীয় বাসিন্দা আক্রান্ত না হতে পারে, সেজন্য এরই মধ্যে দুই লাখ ৫০ হাজার ৬০৭ রোহিঙ্গাকে টিকা দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি ১ জানুয়ারি ৩০ হাজার স্থানীয়কে টিকা দেওয়া হয়েছে। একইভাবে ক্যাম্পের ভেতর ও পাশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর শিক্ষার্থীদেরও এই টিকা দেওয়া হচ্ছে। আরও ৩৫ হাজার শিক্ষার্থীকে ডিপথেরিয়ার টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়েছে।'

কক্সবাজারের শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার কার্যালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোহাম্মদ আবুল কালাম বলেন, 'টেকনাফ ও উখিয়ার ১২টি আশ্রয়কেন্দ্রে বর্তমানে সব মিলিয়ে প্রায় ১২ লাখ রোহিঙ্গা রয়েছে। এত বিপুলসংখ্যক শরণার্থীকে একসঙ্গে চিকিৎসাসেবা দেওয়া সত্যিই কঠিন। এর পরও কলেরা, হাম, ডায়রিয়া, ম্যালেরিয়াসহ নানা রোগের টিকা ও অন্যান্য চিকিৎসাসেবা দেওয়া হয়েছে। ডিপথেরিয়া রোধেও টিকা দেওয়া হচ্ছে।'

আরও পড়ুন

সবই কি 'চাষের মাছ'

সবই কি 'চাষের মাছ'

রাজধানীর মতিঝিলে বাংলাদেশ ব্যাংকের পাশের অস্থায়ী সান্ধ্য কাঁচাবাজারে এক মাছের ...

সম্পর্কে ঈর্ষা

সম্পর্কে ঈর্ষা

সম্পর্কে ঈর্ষা থাকবে, এটাই স্বাভাবিক। বিশেষ করে সঙ্গীর জন্য যদি ...

বিএনপির কোনো নীতি আদর্শ নেই: তোফায়েল

বিএনপির কোনো নীতি আদর্শ নেই: তোফায়েল

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, 'বিএনপির কোনো নীতি আদর্শ নেই। তারা ...

যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত হবে 'বালিঘর'

যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত হবে 'বালিঘর'

আরও একটি যৌথ প্রযোজনা চলচ্চিত্রের ঘোষণা এলো। কলকাতার বর্তমান সময়ের ...

নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে আ'লীগের ভরাডুবি হবে: ফখরুল

নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে আ'লীগের ভরাডুবি হবে: ফখরুল

নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে আগামী নির্বাচন হলে এবং সব মানুষ ভোট দিতে ...

কুমারখালীতে ১৪৪ ধারা

কুমারখালীতে ১৪৪ ধারা

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে উপজেলা জাসদ ও ছাত্রলীগ একই স্থানে সভা ডাকায় ...

৮৮ বছর ধরে মাটি খাওয়া যার অভ্যাস

৮৮ বছর ধরে মাটি খাওয়া যার অভ্যাস

প্রতিদিন ভাত-রুটি না হলেও চলে কিন্তু মাটি না খেয়ে  একদিনও ...

পদ্মা সেতুর দ্বিতীয় স্প্যান বসতে পারে মঙ্গলবার

পদ্মা সেতুর দ্বিতীয় স্প্যান বসতে পারে মঙ্গলবার

চলতি সপ্তাহেই পদ্মা সেতুর দ্বিতীয় স্প্যান বসানোর অপেক্ষায় রয়েছে সেতু ...