ভোটের হাওয়া : সিরাজগঞ্জ-৬

আওয়ামী লীগে বিভক্তি সুযোগ খুঁজছে বিএনপি

প্রকাশ: ১০ জানুয়ারি ২০১৮      

আমিনুল ইসলাম খান রানা ও কোরবান আলী লাভলু, সিরাজগঞ্জ

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিরাজগঞ্জ-৬ (শাহজাদপুর) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন যুদ্ধে পরস্পরের প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে উঠেছেন দুই হেভিওয়েট নেতা বর্তমান সংসদ সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসিবুর রহমান স্বপন এবং সাবেক এমপি চয়ন ইসলাম। বিএনপিতে একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী থাকলেও তারা চাইছেন সরকারদলীয় টানাপড়েনের সুযোগ কাজে লাগাতে। এ জন্য দলটির মনোনয়নপ্রত্যাশীরা তাকিয়ে আছেন কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের দিকে।

আওয়ামী লীগের বর্তমান এমপি হাসিবুর রহমান স্বপন ও সাবেক এমপি চয়ন ইসলামের দ্বন্দ্ব দীর্ঘদিনের। ১৯৯৬ সালের সংসদ নির্বাচনে চয়ন ইসলামের বাবা বাংলা

একাডেমির প্রথম মহাপরিচালক ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ড. মযহারুল ইসলাম হেরে যান তৎকালীন বিএনপি প্রার্থী হাসিবুর রহমান স্বপনের কাছে। পরে স্বপন বিএনপি ত্যাগ করে আওয়ামী লীগের ঐকমত্যের সরকারে যোগ দিয়ে শিল্প উপমন্ত্রীর দায়িত্ব পান। ২০১৪ সালে স্বপন ফের আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন। এর পর চয়ন ইসলাম নিজেকে গুটিয়ে নিতে থাকেন। তবে তিনি চেষ্টা করছেন আগামী সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন পাওয়ার। এর ফলে পুরনো দ্বন্দ্ববিরোধ ফের মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে।

এদিকে সমকাল সাংবাদিক আবদুল হাকিম শিমুল হত্যাকাণ্ডের প্রধান আসামি পৌর মেয়র (সাময়িক বহিস্কৃত) হালিমুল হক মিরুর কর্মী-সমর্থকরাও বর্তমান এমপি স্বপনের বিরোধিতা করছেন। তবে দু'জন বড় নেতার সঙ্গে যত টানাপড়েনই থাকুক, আওয়ামী লীগের তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মধ্যে স্বপনের আধিপত্যের পাশাপাশি গ্রহণযোগ্যতাও রয়েছে। শিমুল হত্যাকাণ্ডের পর স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ ভূমিকার কারণে তিনি নাগরিক সমাজে প্রশংসিত হয়েছেন। কয়েক বছরে তার জনপ্রিয়তা ও সাংগঠনিক তৎপরতার মুখে বিএনপির সরকারবিরোধী আন্দোলন-সংগ্রাম এবং হরতালও শাহজাদপুরে সংঘটিত হতে পারেনি।

প্রধান এ দুই নেতা ছাড়াও আওয়ামী লীগ থেকে এ আসনে মনোনয়ন চাইতে পারেন সিরাজগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট আবদুল হামিদ লাভলু ও কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা সাজ্জাদ হায়দার লিটন।

এদিকে সরকারি দলের সাবেক-বর্তমান এমপি ও সাময়িক বহিস্কৃত পৌর মেয়রের মধ্যে টানাপড়েনের সুযোগ নিতে বিএনপি থেকে মনোনয়ন পেতে মাঠে নেমেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রনেতা, ডাকসুর নির্বাচিত নেতা ও স্বেচ্ছাসেবক দলের বর্তমান কেন্দ্রীয় ভাইস প্রেসিডেন্ট গোলাম সরওয়ার, সাবেক উপপ্রধানমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. এম এ মতিনের ছেলে বিএনপির সমর্থক ড. এম এ মুহিত, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রনেতা শাহজাদপুর পৌর বিএনপির সভাপতি কে এম তরিকুল ইসলাম আরিফ, একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে বিরোধিতাকারী পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর সহযোগী হিসেবে আলোচিত ও সমালেচিত প্রয়াত মওলানা সাইফুদ্দিন এহিয়া খান মজলিশের ছেলে সাবেক এমপি কামরুদ্দিন এহিয়া খান মজলিশ।

তবে সরকারবিরোধী বিভিন্ন কর্মসূচিতে নেতাকর্মীদের পাশে সক্রিয়ভাবে না থাকায় তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মধ্যে কামরুদ্দিন এহিয়ার গ্রহণযোগ্যতা শূন্যের কোঠায় নেমে এসেছে। বিএনপির তৃণমূল পর্যায়ে অন্যসব মনোনয়ন প্রত্যাশীর কমবেশি গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। তারা এ গ্রহণযোগ্যতা বাড়ানোর লক্ষ্যে এখন জনসংযোগও বাড়িয়ে দিয়েছেন।

বিএনপি থেকে আরও মনোনয়ন চাইতে পারেন উপজেলা বিএনপির সভাপতি হোসেন শহীদ মাহমুদ গ্যাদন ও শফিকুল ইসলাম সালাম।

গত ২ ফেব্রুয়ারি শাহজাদপুরের মেয়র হালিমুল হক মিরুর (বর্তমানে দল ও মেয়রের পদ থেকে সাময়িক বহিস্কৃত) সহোদর মিন্টু ও পিন্টু দ্বন্দ্বের রেশ ধরে উপজেলা শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি বিজয় মাহমুদকে মেরে হাত-পা ভেঙে মেয়রের বাড়িতে আটকে রাখে। পরে এ নিয়ে সংঘাতের সময় মিরু তার সরকারি লাইসেন্স করা শটগান ও মিন্টু তার অবৈধ অস্ত্র দিয়ে গুলি করেন। এ সময় সমকালের সাংবাদিক শিমুল পেশাগত দায়িত্ব পালন করছিলেন। মিরুর শটগানের গুলি লেগে তিনি গুরুতর আহত অবস্থায় ৩ ফেব্রুয়ারি মারা যান। এ ঘটনায় শিমুলের স্ত্রী ও ছাত্রলীগ নেতা বিজয়ের চাচা এরশাদ আলী শাহজাদপুর থানায় পৃথক দুটি মামলা করেন। শিমুলের স্ত্রীর মামলায় মিরু ও তার সহোদর মিন্টুসহ ১৮ জন এবং অজ্ঞাতপরিচয় আরও ২০-২২ জনকে অভিযুক্ত করা হয়। ছাত্রলীগ নেতা বিজয়ের পক্ষে তার চাচা এরশাদ আলী মেয়রের অন্য সহোদর পিন্টুসহ আরও ২০ জনের নামে মামলা করেন। শিমুলের স্ত্রীর মামলার বিপরীতে তিন মাস তদন্তের পর পুলিশ গত ২ মে মিরু ও মিন্টুসহ ৩৮ জনের নামে শাহজাদপুর আমলি আদালতে চার্জশিট জমা দেয়। এর প্রায় এক মাস পরে অন্য মামলায় পিন্টুসহ বেশ ক'জনের বিরুদ্ধে আদালতে আরেকটি চার্জশিট দাখিল করে শাহজাদপুর থানা পুলিশ। এসব মামলায় আসামিদের অনেকে উচ্চ আদালত থেকে জামিন পেয়েছে, আটজন পালিয়ে আছে। তবে অন্যতম আসামি সাময়িক বহিস্কৃত মেয়র মিরু এখনও জেলা কারাগারে আটক আছেন। শিমুল হত্যার পর বর্তমান এমপি স্বপনের অবস্থানকে পৌর মেয়র মিরুর অনুসারীরা ভালোভাবে নেয়নি। মিরু জেলে থাকায় সংসদ সদস্য স্বপনের সঙ্গে দৃশ্যত বিরোধিতা এখন শুধু চয়ন ইসলামের। তবে ক্ষমতাসীন দলের এ অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ববিরোধের কারণে আগামী সংসদ নির্বাচনে বিএনপি বিশেষ সুবিধা পেতে পারে বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষকরা।

তাঁত ও দুধ শিল্পের জন্য বিখ্যাত শাহজাদপুর উপজেলা বা সিরাজগঞ্জ-৬ সংসদীয় আসন নানা কারণেই আলোচিত অঞ্চল। এ আসনে নিজের অবস্থান সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে সংসদ সদস্য হাসিবুর রহমান স্বপন বলেন, শাহজাদপুরে প্রধানমন্ত্রীর সফরে, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন ও কার্যক্রমে নদীতীর রক্ষা বাঁধ নির্মাণের উদ্যোগসহ এ অঞ্চলের সার্বিক উন্নয়নসহ শাহজাদপুরের রাজনীতিতে বরাবরই গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছি। প্রত্যন্ত অঞ্চল ঘুরে ঘুরে তৃণমূলে দলের নেতাকর্মীদের সুসংগঠিত করেছি। দলের সাংগঠনিক ভিত মজবুত থাকায় এখানে বিএনপি হরতাল বা আন্দোলন-সংগ্রাম করতে পারেনি। দলের কেন্দ্রীয় সিনিয়র নেতারাসহ প্রধানমন্ত্রীও এসব সম্বন্ধে অবগত আছেন। তিনি জানান, বিগত নির্বাচনে তাকে মনোনায়ন দেওয়ার পর থেকেই সাবেক এমপি চয়ন ইসলাম দলের পাশাপাশি এলাকায় অনিয়মিত হয়ে পড়েন। বাবার মৃত্যুবার্ষিকী পালন ছাড়া সারাবছর তাকে আর দেখা যায় না। বর্তমান এমপি বলেন, হঠাৎ হঠাৎ শাহজাদপুর এসে দলের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টির চেষ্টা করেও সফল হননি চয়ন ইসলাম। আগামী সংসদ নির্বাচনে তাই শাহজাদপুরে তার বিকল্প নেই বলে দাবি করেন তিনি। স্বপন বলেন, তার পরও জননেত্রী যা সিদ্ধান্ত নেবেন, সেটিই সবাই মাথা পেতে নেব।

সবসময়ই সুস্থ রাজনীতি বিশ্বাস করেন জানিয়ে মনোনয়ন প্রত্যাশী ২০০৮ সালের নির্বাচিত এমপি চয়ন ইসলাম বলেন, সেজন্যই তৃণমূল নেতাকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছি। আগামীতেও তাদের পাশে থাকব। নির্বাচনে মনোনয়ন দেওয়া হলে স্বচ্ছতার সঙ্গে দলের জন্য কাজ করব। অনেকেই ধারণা করছেন, মনোনয়নের ক্ষেত্রে তাকেও গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করা হচ্ছে। কারণ গত ২২ নভেম্বর শাহজাদপুর উপজেলা সদরের শক্তিপুরে 'নূরজাহান ভবন' চত্বরে ড. মযহারুল ইসলামের ১৪তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণসভা হয়; সেখানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, 'বঙ্গবন্ধুর রক্তভেজা বাংলায় যখন আমরা এতিম, তখন অনেক সিনিয়র নেতার দরজায় কড়া নাড়লেও তারা দরজা খোলেননি। অথচ সে সময়েও ড. মযহারুল ইসলাম আমাদের সাহস জুগিয়েছেন, অনুপ্রেরণা দিয়েছেন। এসব ভোলার নয়। দলের ভেতরে প্রতিযোগিতা থাকবে। তবে তা যেন অসুস্থ বা কলুষিত না হয়। যারা উন্নয়ন করবেন আর সবার সঙ্গে ভালো আচরণ করবেন, আগামী নির্বাচনে তাদেরই মনোনয়ন দেওয়া হবে।'

১৯৭৯ সালে বিএনপি থেকে এমপি হওয়ার পর জাতীয় পার্টিতে যোগ দেন অধ্যাপক ডা. এম এ মতিন। ২০০১ সালে তিনি ফের চারদলীয় জোটপ্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হন। দলের সদস্য না হওয়ার পরও ১৯৯১ সালে দল থেকে মনোনয়ন পেয়ে এমপি নির্বাচিত হন কামরুদ্দিন এহিয়া খান মজলিশ। পরে তিনি ১৯৯৬ সালের জুনের নির্বাচনে মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে দল থেকে বহিস্কৃত হন। ওই সময় নির্বাচিত এমপি হাবিবুর রহমান স্বপন পরে আওয়ামী লীগে যোগ দেন। এসব ঘটনার দিকে ইঙ্গিত করে বিএনপির মনোনায়ন প্রত্যাশী গোলাম সরওয়ার বলেন, '১৯৭৯ সাল থেকে শাহজাদপুরে যারাই বিএনপি থেকে নির্বাচিত হয়েছেন, তারা হয় দলত্যাগ করেছেন অথবা মনোনয়ন-বঞ্চিত হয়ে দলের বিপক্ষে গিয়ে বহিস্কৃত হয়েছেন। নিজেদের স্বার্থ হাসিল করতে এসে কেউই তৃণমূলে সংগঠন গড়ে তোলার ওপর গুরুত্ব দেননি, তৃণমূল নেতাদের খোঁজখবর নেননি। সরকারবিরোধী বিভিন্ন আন্দোলন-সংগ্রামেও তৃণমূলের পাশে দাঁড়াননি তারা। তাদের কারণে নেতাকর্মীদের বরং ক্ষতি হয়েছে।'

সাবেক উপপ্রধানমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. এম এ মতিনের ছেলে ডা. এম এ মুহিত বলেন, তার বাবা শুধু শাহজাদপুর উপজেলা নয়, সিরাজগঞ্জবাসীর জন্য অনেক কিছু করেছেন। বাবার আদর্শে দীক্ষিত তিনিও বিএনপির সমর্থক হয়ে সবসময় তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে রয়েছেন। এ জন্য দল, তৃণমূল ও জনগণ অবশ্যই তার সঠিক মূল্যায়ন করবে বলে মনে করেন তিনি। মনোনয়ন পেলে জয়ী হওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রদল নেতা কে এম তরিকুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘদিন ধরে তৃণমূলের সঙ্গে রয়েছি। ট্রেন পোড়ানোসহ ১০টি রাজনৈতিক মামলাও হয়েছে। সরকারবিরোধী প্রতিটি আেেন্দালন-সংগ্রামে তৃণমূলের সঙ্গে আছি, থাকব। সাবেক এমপি কামরুদ্দিন এহিয়া খান মজলিসের দাবি, শাহজাদপুরে তার শক্তিশালী প্ল্যাটফরম রয়েছে। এখানে যতগুলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আছে, সেগুলো তার বা তাদের পরিবারের হাতে গড়া। শাহজাদপুরবাসী অবশ্যই তাকে অতীতের মতো ভবিষ্যতেও মূল্যায়ন করবেন।

আরও পড়ুন

২৭ অক্টোবর খুলনায় ইভিএম মেলা

২৭ অক্টোবর খুলনায় ইভিএম মেলা

আগামী ২৭ অক্টোবর খুলনায় ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) মেলা করতে ...

সব কারাগারে আদালত কক্ষ স্থাপন করা হবে

সব কারাগারে আদালত কক্ষ স্থাপন করা হবে

বিশেষ পরিস্থিতি বা জরুরী প্রয়োজনে বিচারকার্য পরিচালনা করতে দেশের সব ...

বিএনপির ২ নেতা রিমান্ডে

বিএনপির ২ নেতা রিমান্ডে

বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান শামীম ও চট্টগ্রাম মহানগর ...

হাসপাতালে ডাক্তারদের উপস্থিতি-অনুপস্থিতির তালিকা চেয়েছেন হাইকোর্ট

হাসপাতালে ডাক্তারদের উপস্থিতি-অনুপস্থিতির তালিকা চেয়েছেন হাইকোর্ট

দেশের সকল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডাক্তারদের উপস্থিতি- অনুপস্থিতির বিষয়ে একটি ...

‘দেবী’র আয় কত?

‘দেবী’র আয় কত?

প্রথমবার প্রয়াত বরেণ্য লেখক হুমায়ূন আহমেদের মিসির আলী উঠে এলেন ...

শিক্ষা ও দক্ষতা উন্নয়নে আরও বিনিয়োগ করতে হবে: রাষ্ট্রপতি

শিক্ষা ও দক্ষতা উন্নয়নে আরও বিনিয়োগ করতে হবে: রাষ্ট্রপতি

রাষ্ট্রপতি এম আবদুল হামিদ ভবিষ্যৎ চাহিদা মেটাতে মানবসম্পদ, শিক্ষা এবং ...

মইনুলের বিরুদ্ধে আরও ৪ মামলা, দুইটায় গ্রেফতারি পরোয়ানা

মইনুলের বিরুদ্ধে আরও ৪ মামলা, দুইটায় গ্রেফতারি পরোয়ানা

সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে চরিত্রহীন বলায় ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে আরও ...

মইনুলের গ্রেফতারে রাজনীতির সম্পর্ক নেই: নাসিম

মইনুলের গ্রেফতারে রাজনীতির সম্পর্ক নেই: নাসিম

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও ১৪ দলের মুখপাত্র স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ ...