খাগড়াছড়িতে ২ জনকে গুলি করে হত্যা

প্রকাশ: ১৬ এপ্রিল ২০১৮      

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি

ফাইল ছবি

খাগড়াছড়িতে পৃথক ঘটনায় দু'জনকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। সোমবার দুপুরে জেলা সদরের আপার পেরাছড়া এলাকায় সূর্য বিকাশ চাকমা নামে বিএনপির সাবেক এক নেতাকে গুলি করে হত্যা করা হয়। 

এছাড়া রোববার রাতে দীঘিনালা উপজেলায় জুরন চাকমা নামে এক যুবক গুলিতে নিহত হন। তিনি ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) সাবেক কর্মী। এই দীঘিনালা থেকে জেনার চাকমা নামে আরেকজনকে অপহরণ করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

সোমবার দুপুরে জেলা সদরের আপার পেরাছড়া এলাকার দয়ামোহন কার্বারী পাড়ায় একটি বাড়ির উঠানে বিজু উৎসবের দাওয়াতে ভাত খাচ্ছিলেন সূর্য বিকাশ চাকমা। এ সময় একদল দুর্বৃত্ত এসে তাকে বাইরে ডেকে নিয়ে গুলি করে পালিয়ে যায়। এতে সূর্য বিকাশ চাকমা ঘটনাস্থলেই মারা যান।

সূর্য বিকাশ ২০০১-০৬ সালে বিএনপির রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন। একবার কমলছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে হেরে যান। এরপর রাঙামাটিতেই অবস্থান করতেন তিনি।

খাগড়াছড়ির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এম এম সালাহউদ্দিন জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে রোববার রাতে দীঘিনালা উপজেলার প্রত্যন্ত উন্দুয্যামা ছড়া এলাকায় জুরন চাকমাকে গুলি করে হত্যা করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, জুরন ও তার বড় ভাই লক্ষ্মণ চাকমাসহ চারজন একসঙ্গে ছিলেন। হঠাৎ একদল সন্ত্রাসী এসে জুরনকে গুলি করে পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। তিনি ১নং মেরুং ইউনিয়নের উন্দুয্যামা ছড়া এলাকার অনিন্দ কার্বারী পাড়ার বর্ণ চাকমার ছেলে।

এ ছাড়া একই দিন বিকেলে খাগড়াছড়ি থেকে বাড়ি ফেরার পথে দীঘিনালা স্টেশন থেকে জেনার চাকমাকে অপহরণ করে সন্ত্রাসীরা। কবাখালী ইউনিয়নের কৃপাপুর গ্রামের সুমতি রঞ্জন চাকমার ছেলে জেনার খাগড়াছড়িতে কম্পিউটার প্রশিক্ষণরত ছিলেন। এক সময় পিসিপির সঙ্গে কাজ করতেন তিনি।

এ দুটি ঘটনার জন্য ইউপিডিএফের পক্ষ থেকে জনসংহতি সমিতিকে (সংস্কারপন্থি) দায়ী করা হয়েছে। তবে জনসংহতি সমিতি অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছে, বিভক্ত ইউপিডিএফের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণে এ ঘটনা ঘটতে পারে।

দীঘিনালা থানার ওসি শামসুদ্দিন ভূঁইয়া জানান, তারা এ দুটি ঘটনা সম্পর্কে কোনো অভিযোগ পাননি।


আরও পড়ুন

১৩ আসামিকে বাদ দিয়ে গোপনে চার্জশিট

১৩ আসামিকে বাদ দিয়ে গোপনে চার্জশিট

চট্টগ্রামে যুবলীগ নেতা মেহেদী হাসান বাদল হত্যা মামলার চার্জশিট জমা ...

ঝুঁকিতে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকার প্রকল্প

ঝুঁকিতে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকার প্রকল্প

চীনের জেডটিই করপোরেশনের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের সাম্প্রতিক নিষেধাজ্ঞার কারণে বাংলাদেশের টেলিযোগাযোগ ...

'মেয়ে পঙ্গু হয়ে গেল, এখন আমি কী করব'

'মেয়ে পঙ্গু হয়ে গেল, এখন আমি কী করব'

সংসারে অভাব, তাই প্রাথমিক বিদ্যালয়ের গণ্ডি পেরোতে পারেননি রোজিনা আক্তার। ...

হাতিরঝিলে ভাসছে গাছ

হাতিরঝিলে ভাসছে গাছ

শীতকালে ঝরে পড়া পাতাগুলো নতুন করে গজাচ্ছে। এ দৃশ্য স্বপ্নের ...

দু'দলেই একাধিক প্রার্থী

দু'দলেই একাধিক প্রার্থী

শরীয়তপুর-৩ (ভেদরগঞ্জ, ডামুড্যা ও গোসাইরহাট) আসনে আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ ...

এবার হাত খুললেন ডি ভিলিয়ার্স

এবার হাত খুললেন ডি ভিলিয়ার্স

সময় একটু বেশি নিয়ে ফেললেন এবি ডি ভিলিয়ার্স। আইপিএলের ১১ ...

 দিবারাত্রির টেস্টে ভারতের না

দিবারাত্রির টেস্টে ভারতের না

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ভারতের টেস্ট সিরিজ নির্ধারিত হয়ে আছে নভেম্বর-ডিসেম্বরে। ঠিক ...

রোহিঙ্গা সংকটে ঢাকাকে কমনওয়েলথ নেতাদের অকুণ্ঠ সমর্থন

রোহিঙ্গা সংকটে ঢাকাকে কমনওয়েলথ নেতাদের অকুণ্ঠ সমর্থন

মিয়ানমারের রাখাইনে সব ধরনের সহিংসতা বন্ধ করে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে ...