সাতকানিয়ায় প্রাণহানির ঘটনায় মামলা, গ্রেফতার ৪

প্রকাশ: ১৫ মে ২০১৮      

চট্টগ্রাম ব্যুরো ও দক্ষিণ চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ার গাটিয়াডেঙ্গা হাঙ্গরমুখ এলাকায় ইফতার সামগ্রী নিতে গিয়ে পদদলিত হয়ে ৯ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় কবির গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ শাহজাহানসহ অজ্ঞাতনামা ১০-১২ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

নিহত হাসিনা আকতারের স্বামী মোহাম্মদ ইসলাম বাদি হয়ে এ হত্যা মামলাটি দায়ের করেছেন। মোহাম্মদ ইসলাম সাতকানিয়া উপজেলার খাগরিয়া মহাজন পাড়া এলাকার বাসিন্দা। 

এ মামলায় মঙ্গলবার বিকেলে গাটিয়াডাঙা এলাকা থেকে চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ইফতার বিতরণ কার্যক্রমে যুক্ত থাকায় তাদের গ্রেফতার করা হয়। 

এছাড়াও ঘটনার প্রকৃত কারণ উদঘাটনে কাজ শুরু করেছে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মাশহুদুল কবীরকে প্রধান করে গঠিত সাত সদস্যের তদন্ত কমিটিও। 

মাশহুদুল কবীর বলেন, সাত কর্মদিবসের মধ্যে রিপোর্ট দিব আমরা। তাই মঙ্গলবার থেকেই কাজ শুরু করেছে তদন্ত কমিটি। দুর্ঘটনার পেছনে কি কারণ ছিল, কারো কোন গাফিলতি ছিল কিনা তা উদঘাটন করব আমরা।

এদিকে প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সোমবার রাত পর্যন্ত ১০ জন নিহত হওয়ার তথ্য দিলেও মঙ্গলবার নিহতের সংখ্যা ৯ বলে উল্লেখ করছেন তারা। ঘটনার সময় নিখোঁজ থাকা একজনকে আহত অবস্থায় অন্যত্র পাওয়ায় নিহতের সংখ্যা ১০ থেকে কমে ৯ হয়েছে। 

অন্যদিকে সাতকানিয়ার হাসপাতালে এখনও চিকিৎসাধীন আছেন নয়জন। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আছেন একজন। আর নিহতদের দাফন প্রক্রিয়াও সোমবার রাতে শেষ হয়েছে।

মামলা দায়েরের সত্যতা নিশ্চিত করে সাতকনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল হোসেন বলেন, কবির গ্রুপের এমডি শাহজাহানসহ অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে হত্যা মামলা করা হয়েছে। আইনগতভাবে আমরা বিষয়টি দেখব।’

নিহতের সংখ্যা ৯ হওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সোমবারে সংগঠিত সাতকানিয়া ট্রাজেডিতে নিহতদের মধ্যে লোহাগাড়া উপজেলার উত্তর কলাউজান গ্রামের রসুলাবাদ পাড়ার কামাল হোসেনের স্ত্রী রহিমা বেগমকে মৃত দেখানো হলেও প্রকৃতপক্ষে সে মারা যায়নি। ঘটনার সময় সে ঘটনাস্থলেই ছিল এবং আহত হয়েছিল। মূলত রহিমার আগের স্বামী আবদুল করিমের নাম প্রচার হয়ে পড়ার কারণেই এ ভুলটি হয়েছিল।

চারজনকে গ্রেফতার করা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, দায়েরকৃত হত্যা মামলায় সন্দেহভাজন হিসেবে গাটিয়াডেঙা এলাকা থেকে মুরিদুল আলম প্রকাশ মুরাদ (২৭), মোহাম্মদ ইদ্রিস (২৬), হাবিব আহমদ শাহেদ (৩২) ও আজগর আলীকে (২৮) গ্রেফতার করেছে সাতকানিয়া থানা পুলিশ। তারা কবির গ্রুপের হয়ে ইফতার বিতরণ কার্যক্রম তদারকি করছিল।

উল্লেখ্য, সোমবার সাতকানিয়ায় ইফতার সামগ্রী আনতে গিয়ে পদদলিত হয়ে নয়জন নিহত হয়েছেন।

আরও পড়ুন

গ্রিজুর গোলে জার্মানিকে হারাল চ্যাম্পিয়নরা

গ্রিজুর গোলে জার্মানিকে হারাল চ্যাম্পিয়নরা

জার্মানির চেনা ছন্দে ফেরার জন্য নতুন চিন্তা সম্পন্ন একটা মাথা ...

শেষের গোলে আর্জেন্টিনাকে হারাল ব্রাজিল

শেষের গোলে আর্জেন্টিনাকে হারাল ব্রাজিল

ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার ম্যাচটি ছিল অনেকটা সৌদির আবহাওয়ার মতো। দিনের বেলায় মরুর ...

বিয়ের আয়োজন করতে গিয়ে ধরা

বিয়ের আয়োজন করতে গিয়ে ধরা

বছরখানেক আগে খাদিজা নামে এক নারী জঙ্গিকে গ্রেফতার করেছিল র‌্যাব। ...

উপকূলের 'রক্ষা দেয়াল' কেটে নিচ্ছে দুর্বৃত্তরা

উপকূলের 'রক্ষা দেয়াল' কেটে নিচ্ছে দুর্বৃত্তরা

কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের সৈকতের পাড়ে দৃষ্টিনন্দন ঝাউবনের গাছগুলো কেটে ...

বিএনপির দুর্গে মরিয়া আওয়ামী লীগ

বিএনপির দুর্গে মরিয়া আওয়ামী লীগ

বিএনপির দুর্গ হিসেবে পরিচিত চট্টগ্রাম। এখন সেই দুর্গ আগলে রাখতে ...

বন্ধ হচ্ছে একের পর এক পোশাক কারখানা

বন্ধ হচ্ছে একের পর এক পোশাক কারখানা

মাত্র ৩ কোটি টাকা বিনিয়োগের ছোট কারখানা থ্রি এস ইন্টারন্যাশনাল। ...

রিয়াদ পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

রিয়াদ পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সৌদি বাদশাহ এবং দুটি পবিত্র মসজিদের খাদেম ...

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধনে সরকারকে নোটিশ

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধনে সরকারকে নোটিশ

সদ্য পাশ হওয়া ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের নয়টি ধারা আগামী ৩০ ...