আধুনিক হচ্ছে যশোর বিমানবন্দর

প্রকাশ: ০৬ জুন ২০১৮     আপডেট: ০৬ জুন ২০১৮      

যশোর অফিস

যশোর বিমানবন্দর -ফাইল ছবি

আধুনিকায়ন হচ্ছে যশোর বিমানবন্দর। বিমান উড্ডয়ন, ল্যান্ডিং ও পার্কিং এরিয়া বৃদ্ধিসহ নানা সুযোগ-সুবিধা বাড়াতে তাই পুরোদমে চলছে উন্নয়ন কাজ। তবে পুরাতন এ বিমান বন্দরটির সব সমস্যার সমাধান হচ্ছে না। ফলে যশোরকে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উন্নীত করার দাবিটি অপূর্ণই থেকে যাচ্ছে। অবশ্য কর্তৃপক্ষের দাবি, পরিকল্পনাধীন প্রকল্পের কাজ শেষ হলে সব সংকট কেটে যাবে।

১৯৫৬ সালে ২৮৭ একর জমির ওপর গড়ে তোলা হয় যশোর বিমানবন্দর। শুরুতে প্রতি সপ্তাহে বাংলাদেশ বিমানের মাত্র দুটি ফ্লাইট চলাচল করত। বর্তমানে সরকারি-বেসরকারি মিলিয়ে দিনে নয়টি যাত্রীবাহী বিমান যাওয়া-আসা করে। দিন দিন বাড়ছে যাত্রীসংখ্যাও। এ ছাড়া কার্গো বিমানের ৫ থেকে ৬টি ফ্লাইটও যাতায়াত করছে। বর্তমানে যশোর বিমানবন্দর দিয়ে বর্তমানে গড়ে প্রতিদিন দেড় থেকে দুই হাজার যাত্রী যাতায়াত করেন। তবে সে তুলনায় বাড়েনি সুযোগ-সুবিধা। সেকেলে অবকাঠামো দিয়েই চলছে বিমানবন্দরের কার্যক্রম। পুরাতন ভবন, অসম্প্রসারিত রানওয়ে ও পার্কিং এমনকি বাড়েনি যাত্রীদের বসার জায়গা। এভাবেই চলছে দক্ষিণবঙ্গের একমাত্র বিমানবন্দরটি। 

বিমানবন্দর সংশ্নিষ্টরা জানান, যশোর ঐতিহ্যবাহী জেলা হিসেবে যেমন উন্নয়ন হওয়ার কথা ছিল সে তুলনায় হচ্ছে না। এখানকার বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ঘোষণার দাবি দীর্ঘদিনের। কিন্তু বিভিন্ন সমস্যার কারণে তা হয়ে ওঠেনি। 

৬২ বছরের পুরাতন এ বিমান বন্দরটিকে আধুনিকায়ন করতে সম্প্রতি কাজ শুরু হয়েছে। এ কাজের আওতায় রানওয়ে সম্প্রসারণ, পার্কিং এরিয়া (অ্যাপ্রোন) বৃদ্ধি, পাপাটেপ ও ট্যাপিওয়ের উন্নয়ন করা হচ্ছে। এ ছাড়া এরই মধ্যে সম্পন্ন হয়েছে ভেরি হাই ফ্রিকোয়েন্সি ওমনিডিরেকশনাল রেডিও রেঞ্জ (ডিভিওর), নিরাপত্তা ওয়াল, গেট, ভিআইপি গাড়ি পার্কিং এরিয়া সম্প্রসারণসহ বেশ কয়েকটি কাজ। প্রক্রিয়াধীন রয়েছে ৩৬ কোটি টাকা ব্যয়ে অত্যাধুনিক টার্মিনাল ভবন, কনভেয়ার বেল্ট নির্মাণের কাজ।

যশোর বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপক আলমগীর পাঠান বলেন, বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। সবকিছু সম্পন্ন হলে এটি মানসম্পন্ন ও আধুনিক বিমানবন্দরে পরিণত হবে।

আরও পড়ুন

পুলিশ জানে না খুনি কারা

পুলিশ জানে না খুনি কারা

রাজধানীর উপকণ্ঠ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় তিন যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধারের ...

আস্থার প্রতিদান দিলেন ইমরুল-সাইফ

আস্থার প্রতিদান দিলেন ইমরুল-সাইফ

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুর্দান্ত সেঞ্চুরি করা ইমরুল কায়েস দলের অটোমেটিক চয়েস ...

বাংলাদেশেই চিরশায়িত বাংলার অকৃত্রিম বন্ধু

বাংলাদেশেই চিরশায়িত বাংলার অকৃত্রিম বন্ধু

ফাদার মারিনো রিগনের নিজ হাতে লাগানো 'সোনা ঝুড়ি' গাছটি ফুল ...

এবার সাদা ইয়াবা

এবার সাদা ইয়াবা

এবার সাদা রঙের ইয়াবা উদ্ধার হলো রাজধানীর রামপুরার উলন রোড ...

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ইসির সাক্ষাৎ ১ নভেম্বর

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ইসির সাক্ষাৎ ১ নভেম্বর

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রচারে জীবন্ত কোনো প্রাণী ব্যবহার করা ...

সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আ' লীগ ১০ আসনও পাবে না: কাদের সিদ্দিকী

সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আ' লীগ ১০ আসনও পাবে না: কাদের সিদ্দিকী

বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বলেছেন, সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগ ১০টির ...

চার্জশিটের আগে গ্রেফতারে সরকারের অনুমতি লাগবে

চার্জশিটের আগে গ্রেফতারে সরকারের অনুমতি লাগবে

আদালতে চার্জশিট গ্রহণের আগে সরকারি কর্মচারিদের গ্রেফতারে অনুমতি নিতে হবে-এমন ...

রণবীর-দীপিকার বিয়ের তারিখ চূড়ান্ত

রণবীর-দীপিকার বিয়ের তারিখ চূড়ান্ত

সকল জল্পনার অবসান ঘটিয়ে শিগগিরই বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন বলিউডের দুই ...