এত শোক কেমনে সইবেন রিগেন দেওয়ান!

প্রকাশ: ১২ জুন ২০১৮     আপডেট: ১২ জুন ২০১৮      

বিশেষ প্রতিনিধি, চট্টগ্রাম ও রাঙামাটি অফিস

রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি সড়কে যাওয়ার পথে বুড়িঘাট ইউপি কার্যালয়। সেখান থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ধর্মচরণপাড়া। এখানেই থাকতেন রিগেন দেওয়ান। অভাব নিত্যসঙ্গী হওয়ায় এখানকার পাহাড়ের কোলেই গড়েছিলেন তিনি মাথা গোঁজার ঠাঁই। 

এতদিন যে পাহাড় ছিল তার আশ্রয়স্থল, মঙ্গলবার ভোররাতে সেই পাহাড়ই নিঃস্ব করল তাকে। মাটিচাপায় শেষ হয়ে গেছে রিগেন দেওয়ানের সংসার। 

মধ্যরাতের পাহাড় ট্র্যাজেডিতে তিনি হারিয়েছেন বৃদ্ধ মা ফুল দেবী চাকমা, ছোট বোন ইতি চাকমা, স্ত্রী স্মৃতি চাকমা ও ছেলে আয়ুব দেওয়ানকে। একসঙ্গে পরিবারের চারজনকে হারিয়ে এখন শোকে মুহ্যমান রিগেন দেওয়ান।

প্রিয়জনদের নানা স্মৃতি স্মরণে এনে করছেন তিনি আহাজারি। বলছেন, 'আমি এখন কারে নিয়ে বেঁচে থাকব। আমারে রেখে কেন চলে গেলে তোমরা সবাই।'

স্ত্রী-সন্তানের সঙ্গে এক ঘরেই ছিলেন রিগেন। তাই পাহাড় ট্র্যাজেডিতে লাশ হওয়ার কথা ছিল তারও। কিন্তু মাটি চাপার শব্দ কানে আসতেই ঘর ছেড়ে দৌড় দিতে পেরেছিলেন তিনি। এ কারণে প্রাণে বেঁচে গিয়েছেন তিনি। 

ঘটনার স্মৃতিচারণ করে রিগেন দেওয়ান বলেন, 'সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে অদ্ভুত ধরনের একটা আওয়াজ হয়। এরপর আমরা কে কোথায় রয়েছি জানি না। তবে আমি দৌড়ে যাওয়ার পরপর ছোট ভাই ইমন চিৎকার করে বলছিল, দাদা আমাকে বাঁচাও। এরপর দৌড়ে গিয়ে দেখি তার গলা পর্যন্ত মাটি এসে গেছে। অনেক কষ্টে তাকে উদ্ধার করি। কিন্তু উদ্ধার করতে পারলাম না মা, বোন, স্ত্রী ও ছেলেকে।' 

পাহাড় ট্র্যাজেডিতে প্রাণে বেঁচে যাওয়া রিগেন দেওয়ানের ভাই ইমন দেওয়ান জানান, ধর্মচরণপাড়ার একটি পাহাড়ের পাদদেশে মা, বোন, ভাইসহ থাকতেন তারা। মাটির ঘরে থাকলেও তাদের ছিল সুখের সংসার। চাষাবাদ করে সংসার চালাতেন তারা দুই ভাই। টানা বৃষ্টির কারণে তাদের মনে ভয় ছিল। কিন্তু এভাবে পাহাড় তাদের চাপা দেবে তা ভাবতে পারেননি কেউ। সোমবার মধ্যরাতে যখন পাহাড় মাটি চাপা দিয়েছিল, তখন তাকে উদ্ধার করেন ভাই রিগেন দেওয়ান। মাটির নিচে মা, বোন, ভাবি ও ভাতিজা আছে জানলেও তাদের উদ্ধারের কোনো সুযোগ পাননি দুই ভাই। ভোররাতে আশপাশের মানুষ এসে মাটির নিচ থেকে একে একে বের করে তাদের চারজনকে। 

বিষয় : রাঙ্গামাটি

আরও পড়ুন

ইংল্যান্ডের হ্যারি কেন দেখল তিউনেশিয়া

ইংল্যান্ডের হ্যারি কেন দেখল তিউনেশিয়া

রাশিয়া বিশ্বকাপের পরিচিত ঘটনা। শেষ সময়ে গোল করে সমতা ফেরানো ...

ঢাকা উত্তর নিয়ে বিপাকে বিএনপি

ঢাকা উত্তর নিয়ে বিপাকে বিএনপি

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির থানা ও ওয়ার্ড কমিটি নিয়ে বিপাকে ...

বিতর্ক থাকলেও সফল ভিএআর

বিতর্ক থাকলেও সফল ভিএআর

পিয়েরলুইগি কোলিনা এবং ফিফা রেফারি কমিটি সত্যিই প্রশংসার দাবিদার। এবারের ...

বন্যায় ভেসেছে ঈদ আনন্দ

বন্যায় ভেসেছে ঈদ আনন্দ

টানা বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা ঢলে মৌলভীবাজার, সিলেট, ...

ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগ, সুষ্ঠু নির্বাচন চায় বিএনপি

ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগ, সুষ্ঠু নির্বাচন চায় বিএনপি

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন স্থগিত হওয়ার এক মাস ১২ দিনের ...

বঙ্গোপসাগরে ট্রলার ডুবে নিখোঁজ ২১

বঙ্গোপসাগরে ট্রলার ডুবে নিখোঁজ ২১

বঙ্গোপসাগরের বাঁশখালী-কুতুবদিয়া চ্যানেলের সোনারচর এলাকায় ট্রলার ডুবে ২১ জন মাঝিমাল্লা ...

'খালেদা প্রকৃত অসুস্থ হলে হাসপাতাল ঠিক করতে এত সময় নিতেন না'

'খালেদা প্রকৃত অসুস্থ হলে হাসপাতাল ঠিক করতে এত সময় নিতেন না'

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, অনেকেই মনে করেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা ...

লুকাকুর জোড়া গোলে বড় জয় বেলজিয়ামের

লুকাকুর জোড়া গোলে বড় জয় বেলজিয়ামের

প্রথমার্ধ গোল শুন্য সমতায় শেষ হয়েছিল বেলজিয়াম-পানামার ম্যাচটি। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে ...