গোপালগঞ্জের সেই শিক্ষা কর্মকর্তা সাময়িক বরখাস্ত

প্রকাশ: ১৫ আগস্ট ২০১৮     আপডেট: ১৫ আগস্ট ২০১৮      

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি

মুকসুদপুর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মুন্সি রুহুল আসলাম

এক স্কুল শিক্ষিকার দায়ের করা মামলার জের ধরে গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মুন্সি রুহুল আসলামকে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন-২) নার্গিস সাজেদা সুলতানা স্বাক্ষরিত গত ১২ আগস্টের এক প্রজ্ঞাপনে এই আদেশ জারি করা হয়। গত ৫ জুন থেকে আদেশটি কার্যকরের বিষয়ে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে। 

গোপালগঞ্জে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মাসুদ ভূঁইয়া বলেন, ওই শিক্ষা কর্মকর্তার সাময়িক বরখাস্তের প্রজ্ঞাপন আমাদের কাছে এসে পৌঁছেছে।

এক স্কুল শিক্ষিকা মাস দেড়েক আগে শিক্ষা কর্মকর্তা রুহুল আসলামকে তার সন্তানের বাবা দাবি করে গোপালগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন টাইব্যুনালে মামলা দায়ের করেন। এরপর গত ৩ জুলাই ওই শিক্ষা কর্মকর্তার ডিএনএ টেস্টের নির্দেশ দেন আদালত। গত ১৩ আগস্ট ঢাকার মালিবাগের সিআইডি কার্যালয়ে ওই শিক্ষিকার গর্ভজাত সন্তান ও শিক্ষা কর্মকর্তা মুন্সি রুহুল আসলামের ডিএনএ পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোপালগঞ্জ থানার এসআই বকুল আহমেদ বলেন, আদালতের নির্দেশে তাদের ডিএনএ টেস্ট করা হয়েছে। রিপোর্ট পেলেই ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত হওয়া যাবে।

মামলার বিবরণ থেকে জানা গেছে, ২০১০ সালে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক পদে যোগদান করেন ওই শিক্ষিকা। আসামি মুন্সি রুহুল আসলাম একই উপজেলায় সহকারী শিক্ষা অফিসার পদে নিয়োজিত ছিলেন। চাকরির সুবাদে রুহুল আসলামের সঙ্গে ওই শিক্ষিকার পরিচয় ও ঘনিষ্ঠতা গড়ে ওঠে। এরপর রুহুল আসলাম বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই শিক্ষিকাকে নিজ ভাড়া বাসায় নিয়ে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হতে বাধ্য করেন। 

গত ২০১২ সালে ওই শিক্ষিকা তাকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে রুহুল আসলাম মৌলভী ডেকে শরিয়াহ অনুযায়ী তাকে বিয়ে করেন। এরপর থেকে তারা স্বামী-স্ত্রী হিসেবে বসবাস করতে থাকেন। কিন্তু বিবাহ রেজিস্ট্রি করার কথা বললে রুহুল আসলাম নানান অজুহাত দেখান ও টালবাহানা শুরু করেন। এর মধ্যে ২০১৪ সালে ওই শিক্ষিকা অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। পরে একটি পুত্রসন্তানের জন্ম দেন। এরপর আসলাম কাশিয়ানী উপজেলা থেকে মুকসুদপুরে বদলি হয়ে যান এবং কৌশলের আশ্রয় নিয়ে সন্তানকে অস্বীকার করতে থাকেন। উপায় না পেয়ে ওই শিক্ষিকা ২০১৮ সালের ৯ এপ্রিল গোপালগঞ্জে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে একটি মামলা দায়ের করেন।

আরও পড়ুন

সালাহ ফিরেছেন, জিতেছে লিভারপুল

সালাহ ফিরেছেন, জিতেছে লিভারপুল

'ফর্মে নেই সালাহ।' কথাটা উঠে গিয়েছিল। কারণ মিসর তারকা মোহামেদ ...

২০ হাজার টাকা ঘুষের জন্য ওসির রাতভর নাটক

২০ হাজার টাকা ঘুষের জন্য ওসির রাতভর নাটক

একটি প্রতারণার মামলায় দুর্গাপুরের ঝালুকা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মোজাহার ...

আয়কর রিটার্ন দাখিল আরও সহজ করতে হবে: প্রধান বিচারপতি

আয়কর রিটার্ন দাখিল আরও সহজ করতে হবে: প্রধান বিচারপতি

জনগণের হয়রানি বন্ধে আয়কর রিটার্ন দাখিল আরও সহজ করার আহ্বান ...

সাগরে ১০ ফিশিং ট্রলার ডুবি, অর্ধশতাধিক জেলে নিখোঁজ

সাগরে ১০ ফিশিং ট্রলার ডুবি, অর্ধশতাধিক জেলে নিখোঁজ

বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপের প্রভাবে আকস্মিক ঝড়ের কবলে পড়ে অন্তত ১০টি ফিশিং ...

ষড়যন্ত্রের ঐক্য কোনো ফল দেবে না: সমাজকল্যাণমন্ত্রী

ষড়যন্ত্রের ঐক্য কোনো ফল দেবে না: সমাজকল্যাণমন্ত্রী

সমাজকল্যাণমন্ত্রী ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেছেন, ...

ভারত-পাকিস্তান লড়াই কি জমবে?

ভারত-পাকিস্তান লড়াই কি জমবে?

ক্রিকেটে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ মানেই নতুন কিছুর স্বাদ। নতুন দৃশ্যপট। নতুন ...

সড়ক দুর্ঘটনার প্রধান কারণ দ্রুতগতি আর ওভারটেকিং: ইলিয়াস কাঞ্চন

সড়ক দুর্ঘটনার প্রধান কারণ দ্রুতগতি আর ওভারটেকিং: ইলিয়াস কাঞ্চন

দ্রুতগতি ও ওভারটেকিং সড়ক দুর্ঘটনার প্রধান কারণ বলে মন্তব্য করেছেন ...

মালয়েশিয়ায় ৫৫ অবৈধ বাংলাদেশি আটক

মালয়েশিয়ায় ৫৫ অবৈধ বাংলাদেশি আটক

মালয়েশিয়ায় ৩৩৮ জন বিদেশি অবৈধ শ্রমিককে আটক করেছে অভিবাসন দপ্তর। ...