বনখেকোর সেই গ্রাম গুঁড়িয়ে দিল প্রশাসন

প্রকাশ: ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮     আপডেট: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

গাজীপুর ও কালিয়াকৈর প্রতিনিধি

বুধবার জসীমের রাজত্ব নিয়ে সমকালে 'বনের জায়গায় জসীমের গ্রাম' শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ হয়

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে বনের জায়গায় ভূমিদস্যু জসীম ইকবালের গড়ে তোলা সেই 'নতুনপাড়া' গ্রামটি অবশেষে গুঁড়িয়ে দিয়েছে বন বিভাগ ও প্রশাসন। তার বিলাসবহুল চারতলা বাড়ির একাংশও বুলডোজার দিয়ে ভেঙে ফেলা হয়েছে। প্রায় শতকোটি টাকা মূল্যের ১০ একর বনভূমি উদ্ধারের মধ্য দিয়ে শনিবার শুরু হয়েছে বন বিভাগের এ অভিযান।

জানা যায়, কালিয়াকৈরের উপজেলার চন্দ্রা পল্লী বিদ্যুৎ জোড়াপাম্প এলাকায় অবৈধভাবে বনের জায়গা দখল করে স্থাপনা নির্মাণকারীদের সরে যাওয়ার জন্য শনিবার সকাল থেকেই মাইকিং করা হয়। বনখেকো জসীম ইকবালের লাশ বনের ভেতর থেকে উদ্ধারের পরপরই অবৈধভাবে ঘরবাড়ি তৈরি করা লোকজন আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। তার সহযোগীরাও গা ঢাকা দেয়। মাইকিং শুনে দ্রুত বনের জায়গায় বসবাসকারীরা তাদের মালপত্র সরিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন।

স্থানীয়রা জানান, শনিবার জসীমের আলিশান বাড়িটি ছিল সুনসান নীরব। কোনো লোক ছিল না। অথচ ক'দিন আগেও ওই বাড়িটি তার ক্যাডার বাহিনীর সদস্যরা ঘিরে রাখত। বন বিভাগের চন্দ্রা বিট কর্মকর্তা মাহমুদুল হক মুরাদ জানান, দুপুরের দিকে তাদের উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়। বন বিভাগের অন্তত দেড়শ' নিজস্ব কর্মকর্তা ও কর্মচারী এ অভিযানে অংশ নেন। তিনি বলেন, বন কর্মকর্তাদের বাধার মুখেই জসীম ওই বাড়ি নির্মাণ করেছিলেন। জমি দখল করে নতুনপাড়া নামে একটি গ্রাম গড়ে তুলেছিলেন। সেগুলো উচ্ছেদ ও বনভূমি উদ্ধার কর্যাক্রম শুরু হয়েছে। আস্তে আস্তে সব উদ্ধার করা হবে।

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রাসেল শেখ বলেন, বিরূপ পরিস্থিতি মোকাবেলা করার জন্য বন বিভাগের এ অভিযানে বিপুলসংখ্যক পুলিশ মোতায়ের করা হয়েছিল। জবরদখল হয়ে যাওয়া বনভূমি উদ্ধারের ক্ষেত্রে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

উচ্ছেদ অভিযানের সময় উপস্থিত ছিলেন গাজীপুরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জান্নাতুল ফেরদৌস, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মশিউর রহমান, জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সনজীব কুমার দেবনাথসহ বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তারা।

গাজীপুর জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর সমকালকে বলেন, জবরদখল হয়ে যাওয়া সব জমি উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। উদ্ধার অভিযান শেষে আগামী দু-একদিনের মধ্যেই ওই জায়গাকে সামাজিক বনায়নের আওতায় আনা হবে। এরই মধ্যে সে কাজের প্রস্তুতি শুরুও হয়েছে।

কালিয়াকৈর চন্দ্রা এলাকায় হাজারো মানুষের কাছে ভয়ঙ্কর জসীম বিভিন্ন জায়গায় বনের অন্তত ৩০০ বিঘা জমি দখল করে নতুন গ্রাম ও স্থাপনা গড়ে তুলেছিলেন। তার নামে বন বিভাগের ১৮টি মামলা রয়েছে।

চন্দ্রার জোড়াপাম্প এলাকায় গজারি গাছ কেটে ২৬১ বিঘা জমির বেশিরভাগই দখল করে 'নতুনপাড়া' নামে একটি গ্রাম গড়ে তোলেন। রাতারাতি পুরো বনাঞ্চল বিরানভূমিতে পরিণত করে গড়ে তোলা হয় নতুনপাড়া নামে একটি গ্রাম। প্রায় ৩০০ পরিবারের কাছ থেকে ৩-৫ লাখ করে টাকা নিয়ে সেখানে প্লট বিক্রি করে কোটি কোটি টাকার মালিক বনে যান।

শুক্রবার ভোরে বনখেকো জসীম ইকবালের গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া যায় গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার ভুলেশ্বর নেতারটেক এলাকার গভীর বনের ভেতর।

এর আগে বুধবার জসীমের রাজত্ব নিয়ে সমকালে 'বনের জায়গায় জসীমের গ্রাম' শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ হওয়ার পর প্রশাসন তৎপর হয়ে ওঠে।

আরও পড়ুন

গোপালগঞ্জে বাসচাপায় শিশু নিহত

গোপালগঞ্জে বাসচাপায় শিশু নিহত

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে বাসচাপায় পাপ্পী দাস (৭) নামে এক শিশু নিহত ...

সরকারকে আলোচনার আলটিমেটাম

সরকারকে আলোচনার আলটিমেটাম

নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার গঠনে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সব দলের ...

এবার ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় টাইগারদের

এবার ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় টাইগারদের

গল্পে পড়া উঠের পিঠে চড়া সেই বেদুইনরা নাকি এখন শুধুই ...

বালুখেকোরা খুবলে খাচ্ছে সুরমা

বালুখেকোরা খুবলে খাচ্ছে সুরমা

সিলেটের প্রাণ সুরমা নদীকে খুবলে খাচ্ছে বালুখেকোরা। অথচ এই নদী ...

বরিশালেও প্রকাশ্যে অবৈধ বালু উত্তোলন

বরিশালেও প্রকাশ্যে অবৈধ বালু উত্তোলন

হিজলা ও মুলাদী উপজেলার মধ্যবর্তী নয়াভাঙ্গুলী নদীর ৮-১০টি পয়েন্টে এবং ...

জাতিসংঘে রোহিঙ্গা নিয়ে বিশ্বের সমর্থন চাইবেন প্রধানমন্ত্রী

জাতিসংঘে রোহিঙ্গা নিয়ে বিশ্বের সমর্থন চাইবেন প্রধানমন্ত্রী

রোহিঙ্গা সংকট মোকাবেলায় বিশ্ব সম্প্রদায়কে সহযোগিতার জন্য ফের আহ্বান জানাবেন ...

সালাহ ফিরেছেন, জিতেছে লিভারপুল

সালাহ ফিরেছেন, জিতেছে লিভারপুল

'ফর্মে নেই সালাহ।' কথাটা উঠে গিয়েছিল। কারণ মিসর তারকা মোহামেদ ...

২০ হাজার টাকা ঘুষের জন্য ওসির রাতভর নাটক

২০ হাজার টাকা ঘুষের জন্য ওসির রাতভর নাটক

একটি প্রতারণার মামলায় দুর্গাপুরের ঝালুকা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মোজাহার ...