মাদারীপুরের কালকিনিতে পাওনা টাকা চাইতে গেলে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই মো. ফালান বেপারী(৫৫) নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে কালকিনি উপজেলার সাহেবরামপুর ইউনিয়নের আন্ডার চর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মো. ফালান বেপারী ও অভিযুক্ত কালাম বেপারী একই উপজেলার সাহেবরামপুর ইউনিয়নের আন্ডার চর গ্রামের মৃত দলিল উদ্দিন বেপারীর ছেলে।

পুলিশ ও ভুক্তভোগী সুত্রে জানা যায়, পাওনা টাকা নিয়ে ফালান বেপারী ও কালাম বেপারীর মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। কয়েকদিন আগে কালাম বেপারী কিছু জমি বিক্রির কথা বলে বায়না বাবদ ফালান বেপারীর বড় ছেলে প্রবাসী শামিম বেপারীর কাছ থেকে ১৪ হাজার টাকা নেন । কিন্তু সেই জমির দলিল না দিলে শামিম তার টাকা ফেরত চান। এক পর্যায় চার হাজার টাকা ফেরত দেন কালাম বেপারী। কিন্তু বাকি ১০ হাজার টাকা ফেরত দেওয়া নিয়ে তালবাহানা করতে থাকেন। সকালে আবার পাওনা টাকা চাইতে গেলে কালাম বেপারী, তার স্ত্রী, ও তার ছেলে রাজিব বেপারী ক্ষুব্ধ হয়ে ফালান বেপারী ও ছেলে শামিম বেপারীর উপর হামলা করেন। এক পর্যায়ে ছোট ভাই কালাম বেপারীর হাতে থাকা কাঠের টুকরা দিয়ে ফালান বেপারীকে আঘাত করলে তিনি মাটিতে পড়ে যান। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ফালান বেপারীর প্রবাসী ছেলে শামিম বেপারী বলেন, ছোট চাচাকে জমির বায়না বাবদ টাকা দিয়েছিলাম। আজ টাকা চাইতে গেলে উল্টো তারা আমাদের উপর হামলা করে। আমরা বাবার হত্যার বিচার চাই।

এ ঘটনার পর থেকে কালাম বেপারী ও তার পরিবারের লোকজন পলতক রয়েছে।

এ ব্যাপারে কালকিনি থানার ওসি ইশতিয়াক আশফাক রাসেল জানান, খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।