বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেছেন, তারেক রহমানের যদি এতই ক্ষমতা থাকতো তাহলে তিনি লন্ডনে থাকতেন না।

শুক্রবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গ্যাস সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ও উত্তর বিএনপি  আয়োজিত সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

দেশে দ্রব্যমূল্য বাড়ানোর পেছনে তারেক রহমানের সম্পৃক্ততা আছে বলে তথ্যমন্ত্রী যে বক্তব্য দিয়েছেন তার জবাবে বিএনপির এ যুগ্ম মহাসচিব বলেন, তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, তারেক রহমান লন্ডন থেকে টেলিফোন করে ব্যবসায়ীদের দ্রব্যমূল্য বাড়ানোর কথা বলেছেন। আর এজন্য নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বেড়েছে। তারেক রহমানের যদি এতই ক্ষমতা থাকতো তাহলে তিনি লন্ডনে থাকতেন না। আপনারা যদি মনে করেন তারেক রহমানের অনেক ক্ষমতা তাহলে ভালোভাবে দেশ চালানোর জন্য তার কাছ থেকে পরামর্শ নেন।

বিএনপির এ নেতা  বলেন, বাংলাদেশের সব কিছুর দাম বাড়ে শুধু মূল্য কমেছে সাধারণ মানুষের। আওয়ামী লীগের আমলে সবকিছুর দাম বাড়ে শুধু দাম কমে মানুষের জীবনের, যারা প্রতিবাদ করে তাদের জীবনের।

আলাল বলেন, এই যে প্রতিবাদ সভা হচ্ছে। আস্তে আস্তে দেশের জনগণ রাস্তায় নামা শুরু করছে। যেভাবে একের পর এক পদ্মা সেতুর স্প্যান বসানো হয়েছে একইভাবে আন্দোলনের স্প্যান বসানো হচ্ছে। যেদিন এই স্প্যান বসানো শেষ হবে সেদিন আওয়ামী লীগকে নরকে পাঠানো হবে।

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সদস্যসচিব আমিনুল হক এবং দক্ষিণে সদস্যসচিব রফিকুল আলম মজনুর যৌথ সঞ্চালনায় সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন দক্ষিণের আহ্বায়ক আব্দুস সালাম। অন্যদের মধ্যে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, ঢাকা মহানগর উত্তরের আহ্বায়ক আমানুল্লাহ আমান, ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, নির্বাহী কমিটির সদস্য নাজিম উদ্দিন আলম, শ্রমিক দলের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম বাবুল, মহিলা দলের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হেলেন জেরিন খান বক্তব্য দেন।