দারফুরে করোনা সম্পর্কিত মৃত্যুর আশঙ্কা দাতাদের

প্রকাশ: ১৪ জুন ২০২০     আপডেট: ১৪ জুন ২০২০   

অনলাইন ডেস্ক

সুদানের সবচেয়ে পশ্চিমের অঞ্চল দারফুরে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে অস্বাভাবিক হারে। মৃতদের মধ্যে বেশির ভাগই বয়স্ক। বিভিন্ন ত্রাণসংস্থার কর্মীরা আশঙ্কা করছেন, করোনা  মহামারির সঙ্গে অস্বাভাবিক হারে বাড়া এসব মৃত্যুর সম্পর্ক রয়েছে।

ওই অঞ্চলে স্বল্পসংখ্যক হাসপাতালের চিকিৎসকরা বলেছেন, আক্রান্ত রোগীরা জ্বর, শ্বাসকষ্ট ও খাবারে অরুচিসহ বিভিন্ন উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। সরকারিভাবে এই মৃত্যুর পেছনে ‘অজ্ঞাত’ কারণ রয়েছে বলে বর্ণনা করা হয়েছে। খবর আল জাজিরার।

তবে মানবাধিকার কর্মী ও চিকিৎসকদের ধারণা, সুদানের প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলোতে করোনা সংক্রমণ ব্যাপকহারে বাড়ছে। তবে পর্যাপ্ত সুবিধার অভাবে রোগ নির্ণয় করা সম্ভব হচ্ছে না। এলাকাগুলো যুদ্ধবিধ্বস্ত এবং চিকিৎসাসহ নানারকম সুবিধা থেকে যুগ যুগ ধরে বঞ্চিত। সেখানকার শরণার্থী ক্যাম্পগুলোতে মানবেতর জীবন যাপন করছে উদ্বাস্তুরা। বর্তমানে তাদের সংখ্যা ১৬ লাখেরও বেশি।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের হিসাব অনুযায়ী সুদানে ৬ হাজার ৮৭৯ জনের মধ্যে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে মারা গেছে ৪৩৩ জন। দারফুরে শনাক্ত হয়েছে ১৯৩টি সংক্রমণও প্রাণহানি ঘটেছে ৫৪ জনের।  তবে বিশেষজ্ঞ এটাকে ‘অসম্পূর্ণ সরকারি’ হিসাব বলে নাকচ করে দিয়েছেন।