ঢাকা শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪

সরকার পতনে সমাবেশ ডাকলেন চরমোনাই পীর

সরকার পতনে সমাবেশ ডাকলেন চরমোনাই পীর

ছবি: সমকাল

সমকাল প্রতিবেদক

প্রকাশ: ০৮ জুলাই ২০২৩ | ১৬:৪০ | আপডেট: ০৮ জুলাই ২০২৩ | ১৬:৪০

বর্তমান সরকারকে কর্তৃত্ববাদী ও স্বৈরাচার বলে আখ্যা দিয়েছেন ইসলামী আন্দোলনের আমির তথা চরমোনাইয়ের পীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম। তিনি বলেছেন, ‘রাতের ভোটের অবৈধ সরকারের পতন ঘটিয়ে কল্যাণ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। জাতীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হতে হবে।’ এ দাবি আদায়ে আগামী ১৫ জুলাই ঢাকায় সমাবেশের কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন চরমোনাইয়ের পীর।

শনিবার বিকেলে রাজধানী পুরানা পল্টনে ইসলামী আন্দোলনের কার্যালয়ের মিলনায়তনে আলোচনা সভায় তিনি রাজধানীতে সমাবেশ ছাড়াও ১৬ জুলাই থেকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত সারাদেশে থানায় উপজেলায় তৃণমূল প্রতিনিধি সম্মেলন, সেপ্টেম্বরে সব জেলা ও মহানগরে সমাবেশ করা ঘোষণা দেন।

প্রধান নির্বাচন কমিশনের পদত্যাগ, সংখ্যানুপাতিক নির্বাচন পদ্ধতি প্রবর্তন, সংসদ ভেঙ্গে দিয়ে জাতীয় সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে এ আলোচনা সভা হয়। চরমোনাইয়ের পীরের সভাপতিত্বে এতে বক্তৃতা করেন  ইসলামী আন্দোলনের মহাসচিব মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানীসহ দলটির কেন্দ্রীয় এবং সকল অঙ্গ ও সমর্থক সংগঠনের নেতারা।

তত্ত্বাবধায়ক সরকার পদ্ধতিকে বিতর্কিত ব্যবস্থা বলে আখ্যা দেন রেজাউল করীম। তিনি বলেছেন, সরকার দেশে বিদেশি হস্তক্ষেপের সুযোগ দিয়েছে। এ সঙ্কট নিরসনে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন প্রয়োজন। সব দলের সমন্বয়ে গঠিত জাতীয় সরকার ছাড়া গ্রহণযোগ্য নির্বাচন সম্ভব নয়। দলীয় সরকারের অধীনে কখনো সুষ্ঠু নির্বাচন হয়নি। ভবিষ্যতেও হবে না। ১৯৭৩, ২০১৪ এবং ২০১৮ সালের নির্বাচন তার প্রমাণ।

আওয়ামী লীগের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন হয়- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই বক্তব্যকে মিথ্যা বলে আখ্যা দেন মোসাদ্দেক বিল্লাহ। তিনি বলেছেন, সোজা আঙ্গুলে ঘি উঠবে না, আঙুল বাঁকা করতে হবে। তাই কঠিনতর আন্দোলন করতে হবে।

আরও পড়ুন

×