ভাসানচরে আসছে জাতিসংঘের প্রতিনিধিদল: শহীদুল হক

প্রকাশ: ০২ ডিসেম্বর ২০১৯      

কূটনৈতিক প্রতিবেদক

পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক - ফাইল ছবি

পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক বলেছেন, কক্সবাজার থেকে রোহিঙ্গাদের স্থানান্তরের জন্য প্রস্তুত করা ভাসানচরের পরিস্থিতি দেখতে জাতিসংঘের একটি কারিগরি দল বাংলাদেশ সফরে আসছে। আবহাওয়া অনুকূল থাকলে তারা এ মাসেই ভাসানচর সফরে আসবেন।  

সোমবার ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে সাংবাদিকদের সঙ্গে মত বিনিময়কালে শহীদুল হক এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তর নিয়ে জাতিসংঘের আর কোনো বিরোধিতা নেই। পররাষ্ট্র সচিব বলেন, 'জাতিসংঘ বেশ কিছুদিন এই ইস্যুতে বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করছে। একটা টেকনিক্যাল টিম আছে এবং সেই টেকনিক্যাল টিম ভাসানচর সফরে যাবে। ওখানে কিছু বিষয়ে তারা পর্যবেক্ষণ দিয়েছেন। এসব বিষয়ে তারা নিশ্চিত হতে চান। তাদের সফরের পর বিষয়গুলো নিশ্চিত হলেই রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তর প্রক্রিয়া শুরু হবে।'

আর্ন্তজাতিক আদালতে বিচার প্রক্রিয়া রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে কোনো সংকট সৃস্টি করতে পারে কি-না, জানতে চাইলে পররাষ্ট্র সচিব বলেন, রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া এবং আর্ন্তজাতিক আদালতে বিচার- দুটি একে অপরের পরিপূরক। ফলে প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ায় এটি নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে না। তিনি আরও বলেন, রোহিঙ্গা সংকটের স্থায়ী সমাধান নিশ্চিত করার জন্য বাংলাদেশ দ্বিপক্ষীয় ও বহুপাক্ষীয় কূটনৈতিক তৎপরতা চলাচ্ছে।

রোহিঙ্গারা আগেও বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, ফিরে গেছে এবং আবার এসেছে। এবার বাংলাদেশ চায় সংকটের স্থায়ী সমাধান, যেন এবার প্রত্যাবাসনের পর আর ফিরে আসতে না হয়। এ কারণে সম্মানজনক এবং নিরাপদ প্রত্যাবাসনের কথা বলা হচ্ছে এবং এটা করতে হলে জবাবদিহিতাও নিশ্চিত হতে হবে। শহীদুল হক বলেন, ২০১৭ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যখন বক্তব্য দিয়েছিলেন, মূলত তার মাধ্যমেই বাংলাদেশ এ সংকট জাতিসংঘে নিয়ে গেছে। মিয়ানমার তখন থেকেই জানে, সংকট সমাধানে বাংলাদেশ দুইভাবেই কাজ করছে। মিয়ানমারের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয়ভাবে এবং জাতিসংঘের মাধ্যমের বহুপাক্ষীয়ভাবে।

এর আগে ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের স্থানান্তর নিয়ে জাতিসংঘ আপত্তি তুলেছিল। সেখানে কতটা বসবাসযোগ্য পরিবেশ আছে তা নিয়েও জাতিসংঘের একাধিক সংস্থা প্রশ্ন তোলে। যে কারণে সরকার একাধিকবার উদ্যোগ নিয়েও রোহিঙ্গাদের এর আগে ভাসানচরে স্থানান্তর করতে সফল হয়নি। শেষ পর্যন্ত অব্যাহত কূটনৈতিক প্রচেষ্টার মধ্য দিয়ে জাতিসংঘের সম্মতিতেই রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তর প্রক্রিয়া শুরু হতে যাচ্ছে, সে কথাই স্পষ্ট করে জানালেন পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক।