নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠনে অবশেষে আইন হতে যাচ্ছে। এরই মধ্যে একটি খসড়া তৈরি হয়েছে। সোমবার মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এ খসড়ায় নীতিগত ও চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এখন ভেটিংয়ের জন্য এটি আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে।

পরে জাতীয় সংসদে উত্থাপিত হলে আইন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করবে। তারপর চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য জাতীয় সংসদে উত্থাপন করা হবে।

আইনের খসড়ায় বলা হয়েছে, প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) ও নির্বাচন কমিশনার নিয়োগে ছয় সদস্যের একটি অনুসন্ধান (সার্চ) কমিটি গঠন করা হবে। রাষ্ট্রপতির অনুমোদনসাপেক্ষে গঠিত সেই কমিটি যোগ্য ব্যক্তিদের নাম প্রস্তাব করবে। সেখান থেকেই রাষ্ট্রপতি সিইসি ও কমিশনারদের নিয়োগ দেবেন।

ইসি গঠনের এই প্রক্রিয়ায় রাজনৈতিকভাবে একমত হওযা যাবে কি?  আলোচনা করেছেন সমকালের সিনিয়র রিপোর্টার মসিউর রহমান খান ও সহ-সম্পাদক রিফাত তাসনুভা