ঈদুল ফিতর উপলক্ষে আগামী ২৭ এপ্রিল থেকে পোশাক শ্রমিকদের পর্যায়ক্রমে ছুটি দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

রোববার সচিবালয়ে এক সভা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ তথ্য জানান প্রতিমন্ত্রী। বিজিএমইএ ও বিকেএমইএর বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিজিএমইএ ও বিকেএমইএ থেকে জানানো হয়েছে, আগামী ২৭ এপ্রিল থেকে তারা পর্যায়ক্রমে পোশাক শ্রমিকদের ছুটির ব্যবস্থা করবে। যাতে করে রাস্তা এবং নৌপথে অতিরিক্ত চাপ তৈরি না হয়।

তিনি আরও বলেছেন, চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ২ বা ৩ মে মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে। সেই তারিখটির প্রতি নজর রেখে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

খালিদ মাহমুদ বলেন, যে ফেরিগুলো মেরামতের জন্য ডকইয়ার্ডে আছে সেগুলো দ্রুত ঠিক করে ঈদের যানবাহন পরিবহনের জন্য প্রস্তুত হয়ে যাবে। তারা আমাদের নিশ্চিত করেছে এবার ৫১টি ফেরির সেবা বিভিন্ন নৌ-রুটে দিতে পারবো।

তিনি আরও বলেন, লঞ্চের ক্ষেত্রে যাত্রীদের টিকেট সংগ্রহের আগে জাতীয় পরিচয়পত্রের (এনআইডি) কপি দিতে হবে। সেটা কেবিনে হোক কিংবা ডেকেই হোক, লঞ্চে উঠতে গেলে পরিচয়পত্রে কপি সরবরাহ করতে হবে। এছাড়া টিকেট দেওয়া হবে না। যাত্রীদের নিরাপত্তার জন্যই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এদিকে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে নৌপথে স্টিমার, লঞ্চসহ জলযান সুষ্ঠুভাবে চলাচল, যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে যথাযথ কর্মপন্থা গ্রহণে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় জানানো হয়, নৌপথে চলাচলকারী যাত্রী সাধারণ যেকোনো জরুরি প্রয়োজনে ও সেবা সংক্রান্ত বিষয়ে সাহায্যার্থে বিআইডব্লিউটিএর হটলাইন নম্বরে (১৬১১৩) যোগাযোগ করতে পারবেন।