ঢাকা সোমবার, ২০ মে ২০২৪

নতুন আইন পাস

হাটবাজারের জমি দখলের শাস্তি ১ বছরের কারাদণ্ড

হাটবাজারের জমি দখলের শাস্তি ১ বছরের কারাদণ্ড

ফাইল ছবি

সমকাল প্রতিবেদক

প্রকাশ: ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ | ১৮:০০ | আপডেট: ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ | ০৯:৫৪

হাটবাজারের জমি দখলের শাস্তি এক বছরের কারাদ ও ৫ লাখ টাকা অর্থদণ্ডের বিধান রেখে হাট ও বাজার (স্থাপন ও ব্যবস্থাপনা) ২০২৩ আইন প্রণয়ন করা হয়েছে। গতকাল শনিবার ভূমি মন্ত্রণালয় থেকে এই তথ্য জানানো হয়। মন্ত্রণালয় বলেছে, হাট ও বাজারের সরকারি খাসজমি অবৈধভাবে দখলে রাখা অথবা যথাযথ অনুমতি ছাড়া সেখানে কোনো স্থাপনা নির্মাণ বা নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ দ নীয় অপরাধ। তবে হাট ও বাজারের জমিতে জনস্বার্থে মার্কেট নির্মাণ করা যাবে। কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর দখলে রাখা যাবে না। আইনের আওতাভুক্ত সংঘটিত অপরাধগুলো বিচারিক আদালতের মাধ্যমে বিচারের কথা বলা হয়েছে। এ ছাড়া এই আইনের অধীন সংঘটিত অপরাধগুলো প্রযোজ্য ক্ষেত্রে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমেও বিচার করা যাবে।

ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী গত ৯ ফেব্রুয়ারি জাতীয় সংসদে হাট ও বাজার (স্থাপন ও ব্যবস্থাপনা) ২০২৩ বিলটি উপস্থাপন করেন। ভূমি মন্ত্রণালয় কর্তৃক বিলটিতে উল্লেখযোগ্য কোনো পরিবর্তন ছাড়াই জাতীয় সংসদে আইন হিসেবে প্রণীত হয়। গত ১৩ ফেব্রুয়ারি প্রকাশ হয় এই আইনের গেজেট। শিগগির ভূমি মন্ত্রণালয় এই আইনের আওতায় বিধি প্রণয়ন করবে।

সূত্র জানায়, ২০২১-২২ অর্থবছরের হিসাব অনুযায়ী সারাদেশে মোট হাট ও বাজার সংখ্যা ১০ হাজার ২৭৩টি। এর মধ্যে ৭ হাজার ৯৭২টি ইজারাকৃত হাট ও বাজার থেকে সরকারের প্রায় ৭৪৪ কোটি টাকা রাজস্ব আয় হয়।

হাট ও বাজার আইনে সরকারি অনুমতি প্রাপ্তির পূর্বশর্তসহ জনস্বর্থে সরকারি বা বেসরকারি অর্থায়নে অথবা বৈদেশিক সাহায্যে আধুনিক বহুতলবিশিষ্ট বিপণি ভবন (মার্কেট) নির্মাণের বিধান রয়েছে। এসব বিপণি ভবনের ব্যবস্থাপনা ও আয় বণ্টন নির্ধারিত পদ্ধতিতে সম্পন্ন করতে হবে। এ ছাড়া নতুন আইনে হাটবাজারে কোনো জমির স্থায়ী বন্দোবস্তু বা ইজারা দেওয়া নিষিদ্ধ। শুধু বার্ষিক ইজারা দেওয়া যাবে। নিয়মিত ইজারার বাইরে হাটবাজারের একটি সংরক্ষিত খালি জায়গা কৃষক এবং ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের অস্থায়ীভাবে বসার জন্য 'তোহা বাজার' হিসেবে ব্যবহার করতে হবে। স্থায়ী হাট ও বাজারের পাশাপাশি এই আইনে অস্থায়ী হাট ও বাজার স্থাপনেরও বিধান রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন

×