ঢাকা শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

দুস্থ নারী ও শিশুদের সাড়ে ৮২ লাখ টাকা অনুদান

দুস্থ নারী ও শিশুদের সাড়ে ৮২ লাখ টাকা অনুদান

সমকাল প্রতিবেদক

প্রকাশ: ০৫ এপ্রিল ২০২৩ | ১৪:০১ | আপডেট: ০৫ এপ্রিল ২০২৩ | ১৪:০১

নারী-শিশুর দুরারোগ্য রোগ, বার্ধক্যজনিত চিকিৎসা ও শিক্ষা সহায়তা হিসেবে ৮২ লাখ ৪৫ হাজার টাকা অনুদান দেওয়া হবে। মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দুস্থ নারী ও শিশু কল্যাণ তহবিল থেকে এ অনুদান দেওয়া হবে।

আজ বুধবার সচিবালয়ে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে দুস্থ নারী ও শিশু কল্যাণ তহবিলের বোর্ড অব ট্রাস্টির ২৪তম সভায় অনুদানের জন্য চলমান অর্থবছরে প্রাপ্ত আবেদন বিবেচনা করে এ অনুদান দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন দুস্থ নারী ও শিশু কল্যাণ তহবিলের বোর্ড অব ট্রাস্টির সভাপতি মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের অসহায় ও দুস্থ মানুষের উন্নয়নে বিভিন্ন সামাজিক নিরাপত্তামূলক কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছেন। মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয় ভিডব্লিউবি কর্মসূচির মাধ্যমে ১০ লাখ ৪০ হাজার নারীকে প্রতি মাসে ৩০ কেজি চাল এবং মা ও শিশু সহায়তা কর্মসূচি থেকে ১২ লাখ ৫৪ হাজার মাকে প্রতি মাসে ৮০০ টাকা ভাতা দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন ও কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে বিভিন্ন ট্রেডে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে।

ইন্দিরা বলেন, এ অর্থবছরে প্রাপ্ত ২ হাজার ৫৮৪টি আবেদনের মধ্যে দুরারোগ্য রোগে ৫০ জনকে ১২ লাখ ৫০ হাজার টাকা, বার্ধক্যজনিত রোগের জন্য ৬০ জনকে ৯ লাখ টাকা, সাধারণ চিকিৎসায় ১৪০ জনকে ১৪ লাখ টাকা, শিক্ষার জন্য ৬৯ জনকে ৬ লাখ ৯০ হাজার টাকা, আর্থিক বা অন্যান্য ৮০১ জনকে ৪০ লাখ ৫ হাজার টাকা অনুদান দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, সর্বমোট এক হাজার ১২০ জনকে ৮২ লাখ ৪৫ হাজার টাকার অনুদান দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। অনুদানপ্রাপ্তরা নিজ নিজ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে অনুদানের চেক গ্রহণ করবেন।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন বোর্ড অব ট্রাস্টির সহসভাপতি মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. হাসানুজ্জামান কল্লোল, ট্রাস্টির সদস্য অতিরিক্ত সচিব মো. মুহিবুজ্জামান, অতিরিক্ত সচিব মুহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান, মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ফরিদা পারভীন, বোর্ড অব ট্রাস্টির সদস্য বাংলাদেশ মহিলা সমিতির প্রতিনিধি সেলিনা খালেক, কন্যাশিশু এ্যাডোকেসি ফোরামের সম্পাদক নাসিমা আক্তার জলি, অপরাজেয় বাংলার নির্বাহী পরিচালক ওয়াহিদা বানু, হোসেন আরা সিদ্দিকি জুলি ও রওশন জাহান সাথী।


আরও পড়ুন

×