কাঠমান্ডু ট্র্যাজেডি

আপনজনের মরদেহের প্রতীক্ষায় অশ্রুসজল স্বজনরা

প্রকাশ: ১৪ মার্চ ২০১৮     আপডেট: ১৪ মার্চ ২০১৮      

ইজাজ আহমেদ মিলন, কাঠমান্ডু থেকে

স্বামী আর সন্তানের খোঁজে চিকিৎসকের সহযোগিতায় হুইল চেয়ারে করে হাসপাতালের বারান্দায় ঘুরছেন নিহত ফটোগাফার প্রিয়কের স্ত্রী আলমুন নাহার অ্যানী। এখনও প্রিয়জনের মৃত্যুর কথা জানেন না তিনি

পুড়ে অঙ্গার হয়ে যাওয়া আপনজনদের দেখতে হাসপাতালের ফরেনসিক ল্যাবের সামনে স্বজনদের কী ব্যাকুল প্রতীক্ষা! ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করেও কাঠমান্ডু ট্র্যাজেডিতে প্রাণ হারানো আপনজনদের দু’দিনেও দেখার সুযোগ পাননি তাদের স্বজনরা। হাসপাতালের সামনে প্রতীক্ষায় থেকে শুধুই অশ্রুপাত করছেন তারা।

অন্যদিকে আহত যাত্রীরা কাতরাচ্ছেন হাসপাতালের বেডে। তাদের ভাগ্যে আসলে শেষ পর্যন্ত কী আছে-সেটা নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না কেউই।

বুধবার সকালে কাঠমান্ডুর টিচিং হাসপাতালের ফরেনসিক ল্যাবের সামনে গিয়ে দেখা যায়, বিক্ষুদ্ধ স্বজনরা মরদেহ শনাক্ত করার জন্য নির্ধারিত ফরম পূরণ করছেন। ৫১ মরদেহের মধ্যে ১৭-১৮টির ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হলেও পরিচয় শনাক্ত হয়নি একটিরও। স্থানীয় পুলিশের কড়াকড়ি আর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বাধায় বারবার ফিরতে হচ্ছে স্বজনদের। 

নেপালে বাংলাদেশ দূতাবাসের কর্মকর্তা ও ইউএস বাংলার কর্তা ব্যক্তিরা আপ্রাণ চেষ্টা করেও কোনো স্বজনকে তার আপনজনের দেহ দেখানোর সুযোগ করে দিতে পারেননি। 

হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের চিকিৎসক প্রমোদ শ্রেষ্ঠা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, পরিচয়  নিশ্চিত হয়েই তারা মরদেহ হাস্তান্তর করতে চান। পরিচয় শনাক্ত করতে চারটি দল কাজ করছে। এর মধ্যে দুটি দল ময়নাতদন্ত করছে। একটি দল মরদেহের নমুনা নিয়ে পরিচয় জানার চেষ্টা করছে।  আর অন্যটি পরিবারের স্বজনদের কাছ থেকে তথ্য নিয়ে নিশ্চিত হওয়া চেষ্টা করছে মরদেহের পরিচয়। চারটি দল সম্মিলিতভাবে একটি মরদেহের পরিচয় নিশ্চিত করবে।  

তিনি আরও জানান, এ প্রক্রিয়ার পরেও যদি পরিচয় নিশ্চিত না হওয়া যায় তাহলে ডিএনএ পরীক্ষা করা হবে। 

কাঠমান্ডু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, মাত্র তিন-চার সেকেন্ডের ভয়ঙ্কর সেই দৃশ্যের স্মৃতি মনে পড়তেই শিউরে উঠছেন নিহত আলোকচিত্রী এফএই প্রিয়কের আহত স্ত্রী আলমুন নাহার অ্যানী। হাসপাতালের বেডে শুয়ে তিনি ছটফট করছেন আর সন্তানকে বুকে এনে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছেন ডাক্তার নার্সদের। স্বামী আর একমাত্র কন্যাকে হারিয়ে আহত অ্যানী মানসিকভাবে বিপর্যন্ত হয়ে পড়েছেন। আনমনে অন্য দিকে তাকিয়ে থাকছেন আর গাল গড়িয়ে অশ্রু ঝরছে। এক পর্যায়ে অ্যানী ডাক্তার ও নার্সকে অনুরোধ করে তাকে হাসপাতালের বাইরে একটু ঘুরিয়ে আনার জন্য করছেন। স্বামী আর কন্যাকে খোঁজার জন্য তিনি বাইরে বের হতে চান। তার অনুরোধেই বেলা দু’টার দিকে একজন চিকিৎসক ও নার্স হুইল চেয়ারে করে অ্যানীকে হাসপাতালের অষ্টম তলার বারান্দায় কিছু সময় ঘুরিয়ে আনেন। এ সময় অ্যানী বারবার ডাক্তারের কাছে তাকে কিছু সময় একা থাকার সুযোগ করে দেওয়ার অনুরোধ করেন। মাঝে মাঝে আবার বলে উঠেন, 'আমার বাবুরে এনে দেন। ও একা থাকতে পারবে না। আমার প্রিয়ক কোথায়!' 

অ্যানীর বেড়ের পাশেই অন্য একটি বেডে শুয়ে অসহ্য যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছেন দুর্ঘটনায় আহত মেহেদী হাসান মাসুম। 

সমকালকে তিনি বলেন, তিন বছরের শিশুকন্যাকে নিয়ে বাঁচতে গিয়ে প্রাণ হারালেন এফএইচ প্রিয়ক। ইচ্ছে করলে প্রিয়ক একা বিমান থেকে লাফিয়ে বাইরে বের হয়ে আসতে পারতেন। কিন্তু চোখের সামনে কন্যার এমন মৃত্যু সইতে পারবেন না জেনেই হয়তো তাকে কোলে নিয়ে বের হতে চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছেন। 

তিনি বলেন, মাত্র কয়েক সেকেন্ডের ব্যবধান। তার স্ত্রী স্বর্ণা আর প্রিয়কের স্ত্রী অ্যানীকে নিয়ে দ্রুত তিনি বের হয়ে এসে ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান। 

প্রিয়কের স্বজন সোহানুর রহমান সোহান বলেন, অ্যানী ভাবীকে এখনও বলতে পারিনি তার স্বামী আর সন্তান নেই! কিন্তু হয়তো বুঝে গেছেন তার আদরের তামাররা ও স্বামী প্রিয়ক বেঁচে নেই। মাঝে মাঝে অ্যানী এলোমেলো কথা বলছেন হাসপাতালের বেডে শুয়ে। 

বিমান দুর্ঘটনায় সস্ত্রীক নিহত মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলামের ভাই আহমেদ শফিক জানান, তার ভাই ও ভাবি এই দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন। তার ভাই নজরুল ইসলাম ১৯৭১ সালে ৭ নম্বর সেক্টরে কর্নেল নূরুজ্জামানের আন্ডারে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন। 

ভাইয়ের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে আহমেদ শফিক বলেন, ভাইয়ের সাথে তার শেষ কথা হয় ওইদিন বাংলাদেশ সময় সকাল ১১টা ১৩ মিনিটে। ভাইয়া জানান, ভাবিকে নিয়ে তিনি নেপাল যাচ্ছেন। শফিক তাকে বলেন, আচ্ছা ঘুরে আসেন। সাবধানে থাকবেন।

কাঠমান্ডুতে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মাশফি বিনতে শামস সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, দুর্ঘটনায় নিহতদের সবার মরদেহ সনাক্ত করে দেশে পাঠাতে আরও কয়েকদিন লাগতে পারে। 

তিনি বলেন, ফরেনসিক বিভাগের ময়নাতদন্ত শেষ করতে আরও চার দিন লাগবে। তারপর তারা স্বজনদের তালিকার সাথে মিলিয়ে তথ্য নিশ্চিত করে মরদেহের পরিচয় নিশ্চিত করবেন। মরদেহ ফেরত পাঠাতে পরে হয়ত আরও ২-১ দিন বেশি লাগতে পারে।

রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, সব মিলিয়ে এ পর্যন্ত ১৮ জনের ময়নাতদন্ত  শেষ হয়েছে। মরদেহ শনাক্ত করার পর দেশে কীভাবে পাঠানো হবে তা নিয়ে নেপাল ও বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় পর্যায়ে আলোচনা চলছে বলে জানান রাষ্ট্রদূত।

ইউএস বাংলার সিইও ইমরান আসিফ বলেন, কাঠমান্ডুর ওঁম হাসপাতালে চিকিৎসাধী ড. রেজোয়ানুল হকের অবস্থা বেশ গুরুতর। বিশেষ ব্যবস্থায় খুব দ্রুত তাকে সিঙ্গাপুর পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। এ ছাড়া আহত সকলের চিকিৎসা ব্যয়ভার কোম্পানি বহন করছে বলে জানান তিনি।

ইমরান আসিফ বলেন, মরদেহ সনাক্ত করে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় তাদের স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে। আইন অনুযায়ী নিহত পরিবারগুলোকে ক্ষতিপূরণও দেবে ইউএস বাংলা। 

সিলেট বিভাগের ১৯ আসনে জয়-পরাজয়ে যত ফ্যাক্টর

সিলেট বিভাগের ১৯ আসনে জয়-পরাজয়ে যত ফ্যাক্টর

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট বিভাগের ১৯ আসন নিয়ে পুলিশের ...

টি২০-তেও দারুণ চমকের অপেক্ষা

টি২০-তেও দারুণ চমকের অপেক্ষা

দূরে মাইকে কোথাও বেজে চলেছে বিজয় দিবসে কচিকাঁচার কণ্ঠে আমার ...

সরব বাবলা, নীরব সালাহ উদ্দিন

সরব বাবলা, নীরব সালাহ উদ্দিন

ঢাকা-৪ আসনে নির্বাচনী প্রচারণায় ব্যাপকভাবে এগিয়ে আছেন মহাজোটভুক্ত জাতীয় পার্টির ...

২৭ লাখ নারী ভোটার নিয়ে বিশেষ কৌশল ৩২

২৭ লাখ নারী ভোটার নিয়ে বিশেষ কৌশল ৩২

চট্টগ্রামের বন্দর-পতেঙ্গা আসনে ৫ লাখ ৮ হাজার ভোটারের প্রায় অর্ধেকই ...

রক্তিম অলরেডসে রং চটা ম্যানইউ

রক্তিম অলরেডসে রং চটা ম্যানইউ

কোন দলের রং বেশি লাল। রেড ডেভিলস নাকি অল রেডসদের। ...

আ স ম রবের নির্বাচনী অফিসে তালা, ভাঙচুরের অভিযোগ

আ স ম রবের নির্বাচনী অফিসে তালা, ভাঙচুরের অভিযোগ

লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলার বড়খেরী ও চরগাজী ইউনিয়নে আ স ম ...

শিক্ষামন্ত্রীকে সমর্থন দিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন সমশের

শিক্ষামন্ত্রীকে সমর্থন দিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন সমশের

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-৬ (গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজার) আসনে বিকল্পধারা বাংলাদেশ মনোনীত ...

ড. কামাল নীতিহীন: তোফায়েল

ড. কামাল নীতিহীন: তোফায়েল

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য ও বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, ...