পরীক্ষা বর্জন করে ঢাবির আইন বিভাগের মানববন্ধন

প্রকাশ: ০৯ জুলাই ২০১৮      

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের ছাত্র তারিকুল ইসলামের ওপর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

সোমবার সকাল পরীক্ষা বর্জন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদের কাজী মোতাহার হোসেন ভবনের সামনে আয়োজিত এক মানববন্ধনে এসব দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে সংহতি জানিয়ে বক্তৃতা করেন আইন বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক নাইমা হক, অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল, তারিকুলের বাবা সেনাবাহিনীর সাবেক সিনিয়র ওয়ারেন্ট অফিসার শফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

অধ্যাপক আসিফ নজরুল বলেন, তারিকুলকে একটি ন্যায্য দাবির আন্দোলন থেকে ছাত্রলীগ মারধর করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে। এরপরে একটি পুরোনো মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে, যেটা পুরোপুরি অসঙ্গতিপূর্ণ। এ রকম একটা ঘটনায় আমরা বিবেকবান মানুষ হিসেবে চুপ করে থাকতে পারি না।

সোমবার বিভাগের প্রথম বর্ষ থেকে চতুর্থ বর্ষ পর্যন্ত ফার্স্ট টার্ম পরীক্ষা ছিল। শিক্ষার্থীরা বর্জন করায় পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়নি। 

এ প্রসঙ্গে বিভাগের তৃতীয় বর্ষের এক শিক্ষার্থী বলেন, তারেক এই বিভাগের শিক্ষার্থী। অন্যায়ভাবে তাকে আটক করে রাখা হয়েছে। তার মুক্তি না হওয়া পর্যন্ত আমরা পরীক্ষায় অংশ নেবো না।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা ‘তারেকের নিঃশর্ত মুক্তি চাই’, ‘মিথ্যা মামলা মিথ্যা মামলা আর কত আর কত?’, ‘নো ক্লাস নো এক্সাম উইদাউট তারেক’, ‘মিথ্যা মামলার নামে প্রহসন বন্ধ কর’ ইত্যাদি লেখা সম্বলিত প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের ছাত্র তারিকুলকে গত ২ জুলাই শহীদ মিনারে বিক্ষোভ মিছিল থেকে ছাত্রলীগ তুলে নিয়ে যায়। এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবন ভাঙচুর মামলায় কেরানীগঞ্জ থানায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়।