কোটা সংস্কার আন্দোলন

জবি'র সুহেলকে ডিবি পরিচয়ে তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ

প্রকাশ: ১২ জুলাই ২০১৮     আপডেট: ১২ জুলাই ২০১৮      

বিশেষ প্রতিনিধি ও জবি প্রতিনিধি

ছবি: এপিএম সুহেল

কোটা সংস্কার আন্দোলনের সংগঠক ও বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের যুগ্ম আহ্বায়ক এপিএম সুহেলকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গণজাগরণ মঞ্চের নেত্রী লাকী আক্তার বলেছেন, বৃহস্পতিবার ভোরে শান্তিনগরে আমার বাসায় অভিযান চালিয়ে সুহেলকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। সুহেল বিশ্ববিদ্যালয়ে আমার বিভাগের ছাত্র। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডিবির অতিরিক্ত কমিশনার দেবদাস ভট্টাচার্য জানান, এই নামে কাউকে আটক বা গ্রেপ্তার করেননি তারা।


এদিকে ফেসবুকে সুহেলকে তুলে নিয়ে যাওয়ার ঘটনার বিবরণ তুলে ধরে স্ট্যাটাস দিয়েছেন লাকী আক্তার। এতে তিনি লিখেছেন, বৃহস্পতিবার ভোর ৪টা নাগাদ ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ৮ থেকে ১০ জনের একটি দল তার বাসায় অভিযান চালায়। তারা দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করার চেষ্টা করে। পরে বাড়ির মালিককে সঙ্গে নিয়ে তার বাসায় তল্লাশি চালিয়ে সুহেলকে নিয়ে গেছে। তল্লাশিকালে তারা সুহেলকে একটি কক্ষে হাতকড়া পরিয়ে আটকে রাখে। পরে কোটা সংস্কার আন্দোলন নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের কথা বলে তাকে তুলে নিয়ে যায়।

এর আগে গত ২৩ মে বিকেলে পরীক্ষা শেষে ক্যাম্পাস থেকে ফেরার পথে হামলার শিকার হয়েছিলেন জবি ইংরেজি বিভাগের ১০ম ব্যাচের ছাত্র সুহেল। সুহেল তখন জানিয়েছিলেন, কোটা আন্দোলনের জন্য দুইবার মার খেতে হয়েছে তাকে। প্রথমবার চড়-থাপ্পড় ও লাথি মারা হয়েছিল। দ্বিতীয়বারের মারধরে ঠোঁটের বাইরে ৯টি ও ভেতরে দুটি সেলাই দিতে হয়েছে।