মুক্তিযুদ্ধকালীন সংবাদ তরুণ প্রজন্মকে জানাতে হবে, সেমিনারে বক্তারা

প্রকাশ: ১২ জুলাই ২০১৮      

জবি প্রতিবেদক

সেমিনারে জবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান (বাঁ থেকে দ্বিতীয়) ও সমকালের নির্বাহী সম্পাদক মুস্তাফিজ শফিসহ (ডানে) অন্যরা— সমকাল

মুক্তিযুদ্ধকালীন প্রকাশিত সংবাদ, সাংবাদিকদের লেখা ও তাদের স্মৃতিকথা পুস্তক আকারে বের করে তরুণ প্রজন্মকে জানাতে হবে। এতে করে তরুণ প্রজন্ম মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে পারবে।

বৃহস্পতিবার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ আয়োজিত 'মুক্তিযুদ্ধ ও সাংবাদিকতা' শীর্ষক সেমিনারে বক্তারা এ কথা বলেন।

সেমিনারে মুক্তিযোদ্ধা ও বিশিষ্ট সাংবাদিক হারুন হাবীব 'মুক্তিযুদ্ধ ও সাংবাদিকতা' শীর্ষক মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

সেমিনারে জবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান বলেন, বাঙালি জাতির ইতিহাসে হাজারো বছরের শ্রেষ্ঠ অর্জন হচ্ছে স্বাধীনতা। মুক্তিযুদ্ধের সময় সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশ পায় বিভিন্ন গণমাধ্যমে। তা একদিকে যেমন মুক্তিযুদ্ধের সময়ে বাঙালি জাতিকে উজ্জীবিত করতে সহায়তা করেছে, তেমনি আজও এসব প্রতিবেদন ইতিহাসের অকাট্য দলিল হিসেবে বিবেচিত হয়। তাই মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানাতে মুক্তিযুদ্ধের সময় প্রকাশিত সংবাদ নতুন প্রজন্মকে জানানো দরকার।

সেমিনারে বক্তব্য দেন সমকালের নির্বাহী সম্পাদক মুস্তাফিজ শফি— সমকাল

সমকালের নির্বাহী সম্পাদক মুস্তাফিজ শফি বলেন, যুদ্ধকালীন সাংবাদিকতা অনেক সময় হলুদ সাংবাদিকতার স্বীকার হয়। কিন্তু ১৯৭১ সালের বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সংবাদ প্রচারে দেশি ও বিদেশি সাংবাদিকরা বস্তুনিষ্ঠতা বজায় রেখেছেন। ওই সময়ে এন্থনি ম্যাসকারানহাসসহ ৮ জন পাকিস্তানি সাংবাদিককে পাকিস্তান সরকার তাদের পক্ষে লেখার জন্য নিয়ে আসে। কিন্তু সরেজমিনে পর্যবেক্ষণের পর ম্যাসকারানহাস বিবেকের তাড়নায় পালিয়ে লন্ডনে গিয়ে 'সানডে টাইমস' পত্রিকায় বাংলাদেশের গণহত্যার প্রতিবেদন প্রকাশ করেন। এছাড়া ডেইলি টেলিগ্রাফ পত্রিকার সাংবাদিক সাইমন ড্রিং ও এপির ফটোগ্রাফার মাইক্যাল লোঁরা বিপদের ঝুঁকি নিয়ে গণহত্যার সংবাদ ও ছবি প্রকাশ করেন। সে সময় 'নিউইয়র্ক টাইমস', 'গার্ডিয়ান', 'সানডে টাইমস'সহ আন্তজার্তিক পত্রিকাগুলো মানবতার পক্ষে, মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে থেকেছে।

তিনি আরও বলেন, মুক্তিযুদ্ধকালীন সুবিখ্যাত সাংবাদিক হারুণ হাবীবসহ মুক্তিযুদ্ধকালীন প্রথিতযশা সাংবাদিকদের লেখা, তাদের স্মৃতিকথা এবং মুক্তিযুদ্ধকেন্দ্রীক সংবাদগুলো যদি নির্বাচন করে পুস্তক আকারে বের করা হয়। তবে সাংবাদিকতার শিক্ষার্থীসহ তরুণ প্রজন্ম মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে পারবে।

সাবেক প্রধান তথ্য কমিশনার অধ্যাপক ড. মো. গোলাম রহমান বলেন, মুক্তিযুদ্ধের আগে ষাটের দশকে পূর্ব বাংলার অবস্থা, বাংলার অর্থনীতি, বঞ্ছনা, যে বৈষম্য ব্যবস্থা কায়েম করা হয়েছিল, তখনকার সাংবাদিকেরা অনেক কষ্ট করে উপস্থাপন করেছিলেন। গণতন্ত্র, ভাষা আন্দোলন, ছয় দফা আন্দোলন, ঊনসত্তরের গণ অভ্যুত্থান, সত্তরের নির্বাচন— সব কিছুতেই সাংবাদিকদের অবস্থান ছিল স্পষ্ট। আর এসকল আন্দোলনের চূড়ান্ত রূপ হচ্ছে মুক্তিযুদ্ধ। সংবাদপত্রে যে অবিচ্ছিন্ন ধারা এবং ঐতিহাসিকভাবে সাংবাদিকরা যে দায়িত্ব পালন করেছেন সেটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

সেমিনারে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান ড. শাহ্ মো. নিসতার জাহান কবীরের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য দেন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক অবন্তী মেহতাজ এবং উপস্থাপনা করেন প্রভাষক মো. মিনহাজ উদ্দীন।

আরও পড়ুন

ডাকসু না হওয়ায় নেতৃত্বের বিকাশ ঘটছে না

ডাকসু না হওয়ায় নেতৃত্বের বিকাশ ঘটছে না

 ডাকসু ভিপি ১৯৬৩-৬৪ জ্ঞান-বিজ্ঞান, শিল্প-সাহিত্য, মুক্তবুদ্ধি চর্চা, রাজনৈতিক কর্মী ও নেতৃত্ব ...

উদ্ধার হলো শাহনাজের বাইক, ধরা পড়ল চোর

উদ্ধার হলো শাহনাজের বাইক, ধরা পড়ল চোর

অ্যাপভিত্তিক রাইড শেয়ার ব্যবহারের মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহ করা আলোচিত শাহনাজ ...

গণধর্ষণের ঘটনায় দায়িত্বে অবহেলায় চরজব্বার থানার ওসিকে প্রত্যাহার

গণধর্ষণের ঘটনায় দায়িত্বে অবহেলায় চরজব্বার থানার ওসিকে প্রত্যাহার

নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলায় গৃহবধূকে দলবেঁধে ধর্ষণের ঘটনায় দায়িত্ব পালনে অবহেলার ...

২৮ বছর পর 'দ্বিতীয় পার্লামেন্ট' স্বপ্ন ডানা মেলছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে

২৮ বছর পর 'দ্বিতীয় পার্লামেন্ট' স্বপ্ন ডানা মেলছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে

টানা ২৮ বছর পর দেশের 'দ্বিতীয় পার্লামেন্ট' হিসেবে খ্যাত 'ঢাকা ...

শাস্তির বদলে পদোন্নতি! লেক দূষণ রোধের ৫০ কোটি টাকা নয়ছয়

শাস্তির বদলে পদোন্নতি! লেক দূষণ রোধের ৫০ কোটি টাকা নয়ছয়

গুলশান-বারিধারা লেকের দূষণ রোধে ৫৪ কোটি টাকার প্রকল্প নিয়েছিল ঢাকা ...

সব আপসকামিতার ঊর্ধ্বে উঠতে হবে সরকারকে

সব আপসকামিতার ঊর্ধ্বে উঠতে হবে সরকারকে

মানবাধিকার আন্দোলনের নেত্রী অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল বলেছেন, সরকার আন্তরিক হলে ...

সৈয়দ আশরাফের আসন নিয়ে বিপাকে সংসদ ও ইসি

সৈয়দ আশরাফের আসন নিয়ে বিপাকে সংসদ ও ইসি

আওয়ামী লীগ নেতা সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের মৃত্যুতে কিশোরগঞ্জ-১ আসনে পুনর্নির্বাচন ...

কোথায় গেল সাড়ে ১২ কোটি টাকা

কোথায় গেল সাড়ে ১২ কোটি টাকা

২৮ বছর বন্ধ থাকার পর এবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র ...