৪ কারণে রোগীরা চিকিৎসা নিতে বিদেশ যান: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশ: ১২ জুলাই ২০১৮     আপডেট: ১২ জুলাই ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

ফাইল ছবি

আর্থিক সচ্ছলতা, বিদেশে চিকিৎসাপ্রীতি, হেলথ ট্যুরিজম ও ক্ষেত্রবিশেষে উপযুক্ত চিকিৎসক স্বল্পতা- এই চার কারণে রোগীদের একটি বড় অংশ চিকিৎসার জন্য বিদেশে যান। বৃহস্পতিবার সংসদের বৈঠকে মন্ত্রীদের জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তরে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পক্ষে এ কথা বলেন স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী। 

এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হয়। স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের অনুপস্থিতিতে প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক প্রশ্নের জবাব দেন। 

সরকারি দলের সংসদ সদস্য ডা. এনামুর রহমানের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী জানান, রোগীদের বিদেশ যাওয়ার প্রবণতা কমাতে দেশের সব মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, বিশেষায়িত হাসপাতাল ও জেনারেল হাসপাতালকে আধুনিক যন্ত্রপাতি দিয়ে সুসজ্জিত করে উন্নত সেবা দেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়া বাংলাদেশে বেসরকারি পর্যায়ে আন্তর্জাতিক মানের আধুনিক হাসপাতাল রয়েছে, যেখানে অন্য দেশ থেকে রোগী এসে চিকিৎসা নিচ্ছেন। বাংলাদেশের রোগীদের বিদেশ গিয়ে চিকিৎসাসেবা গ্রহণের বিষয়ে সরকারের নীতিমালা প্রণয়নের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান তিনি। 

সরকারি দলের নুরুন্নবী চৌধুরীর প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, গত ৯ বছরে ৪২৭ জন ডেন্টাল সার্জনসহ ১৩ হাজার ৬৬৫ জন চিকিৎসক নিয়োগ করা হয়েছে। এ সময় স্বাস্থ্য বিভাগে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির পদে ২৬ হাজার ৬৫৯ জন কর্মচারী নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

সরকারি দলের মুহা. গোলাম মোস্তফা বিশ্বাসের প্রশ্নের জবাবে ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান জানান, এ বছর (২০১৮) সরকারি ব্যবস্থাপনায় ছয় হাজার ৭৮৯ জন এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এক লাখ ২০ হাজারসহ মোট এক লাখ ২৬ হাজার ৭৯৮ জন হজে যাবেন। ধর্মমন্ত্রীর পক্ষে রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক সংসদে প্রশ্নের জবাব দেন।