কাঠমান্ডু পোস্টের প্রতিবেদন ভিত্তিহীন: ইউএস-বাংলা

প্রকাশ: ২৭ আগস্ট ২০১৮      

অনলাইন ডেস্ক

ইউএস-বাংলার বিধ্বস্ত উড়োজাহাজ-ফাইল ছবি

কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলার উড়োজাহাজ বিধ্বস্তের ঘটনা ও এর পাইলট আবিদ সুলতান সম্পর্কে নেপালের ইংরেজি দৈনিক কাঠমান্ডু পোস্টে সোমবার যে প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে তা মনগড়া ও ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ।

সোমবার বিকেলে গণমাধ্যামে পাঠানো ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এমনটাই দাবি করা হয়েছে। 

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলার উড়োজাহাজ বিধ্বম্তের ঘটনায় তদন্ত এখনও শেষ হয়নি। আন্তর্জাতিক অ্যাভিয়েশন নিয়ম অনুযায়ী দুর্ঘটনা পরবর্তী পূর্ণাঙ্গ তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ হওয়ার আগ পর্যন্ত এই ধরনের অসমর্থিত মতামত প্রকাশ কোনো গণমাধ্যমের কাছেই কাম্য নয়। নেপালের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ এবং বিমান চলাচল বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে বাংলাদেশের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় এই দুর্ঘটনা বর্তমানে তদন্তাধীন আছে। একটি দুর্ঘটনা তদন্তাধীন অবস্থায় এই ধরনের প্রতিবেদন উদ্দেশ্যমূলক। এয়ারলাইন্স এবং ক্রু-দের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন ও দুর্ঘটনার প্রকৃত কারণ লুকাতে এমনটা করা হতে পারে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, কাঠমান্ডু পোস্টে প্রতিবেদনে প্রকাশিত কোনো তথ্যের ভিত্তি নেই কারণ এই দুর্ঘটনা সম্পর্কে গঠিত তদন্ত কমিটি এখন পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে  কোনো তদন্ত প্রতিবেদন বা বক্তব্য দেয় নি।

উল্লেখ্য, সোমবার নেপালের ইংরেজি দৈনিক কাঠমান্ডু পোস্টের এক প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলার বিধ্বস্ত উড়োজাহাজটির পাইলট আবিদ সুলতান মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ও বেপরোয়া ছিলেন। প্রতিবেদনে আরও দাবি করা হয়, ক্যাপ্টেন আবিদ সুলতান ব্যক্তিগত বিষয়ে মানসিক চাপ এবং উদ্বেগের মধ্যে ছিলেন। মানসিক চাপে থাকায় উড়োজাহাজটি অবতরণের সময় অনেকগুলো ভুল সিদ্ধান্ত নেন তিনি। ফলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নেপাল সরকারের এক প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে এমন সংবাদ প্রকাশ করেছে দৈনিকটি।