নির্বাচনের আগে বাড়ছে না অবসরের বয়স: অর্থমন্ত্রী

প্রকাশ: ২৯ আগস্ট ২০১৮     আপডেট: ২৯ আগস্ট ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

ফাইল ছবি

সরকারি চাকরি থেকে অবসরের বয়স বর্তমান সরকারের মেয়াদে বাড়ছে না বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বুধবার সচিবালয়ে অর্থনীতি সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়স বাড়ালে তার আপত্তি নেই জানিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, অবসরের বয়স বাড়ানোর পরিকল্পনা আমার ছিল। আমি প্রস্তাবও দিয়েছিলাম। কিন্তু হয়নি। আমার মনে হয় নির্বাচনের আগে (অবসরের বয়স) এটির পরিবর্তন হবে না।

মুহিত বলেন, আমার মতে (সরকারি) চাকরি হওয়া উচিত কনট্রাক্ট বেসিসে। এভরিওয়ান সুড বি গিভেন এ জব ফর টেন ইয়ার্স, ফিনটিন ইয়ার্স… এনি বয়সে।

এদিকে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে নির্বাচনকালীন সরকারে নিজের থাকার সম্ভাবনার কথা জানিয়ে মুহিত বলেন, আমি মনে হয়, ইন্টেরিম সরকার পর্যন্ত আছি। 

এই সরকার কবে গঠন করা হবে- জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‌আমার ধারণা অক্টোবর মাসে হবে। ডিসেম্বরে তো নির্বাচন। সো অক্টোবরের মিডেলে হতে পারে। নির্বাচনকালীন সরকারের সদস্য সংখ্যা কত হবে জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদের সিনিয়র এই সদস্য বলেন, নো আইডিয়া।

বর্তমানে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩০ বছর এবং অবসরের বয়স ৫৯ বছর। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩০ বছর থেকে বাড়িয়ে ৩৫ বছর এবং অবসরের বয়সসীমা ৫৯ বছর থেকে বাড়িয়ে ৬৫ বছর করার সুপারিশ করেছে।

আর জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছিলেন, চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩২ বছর করার প্রস্তাব তৈরি করছেন তারা। বর্তমান সরকারের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই সেটির ঘোষণা আসবে।