জাবালে নূরের মালিক-চালকসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র

প্রকাশ: ০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮     আপডেট: ০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

ফাইল ছবি

রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে শহীদ রমিজউদ্দীন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার ঘটনার দায়ের করা মামলায় জাবালে নূর বাসের মালিক-চালকসহ ছয়জনকে আসামি করে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক কাজী শরিফুল ইসলাম ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে দণ্ডবিধির ৩০৪ ধারায় আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্রটি জমা দেন। আজই এটি আদালতের কাছে উপস্থাপন করা হবে।

অভিযুক্ত ছয় আসামি হলেন- জাবালে নূর পরিবহনের দু'টি বাসের মালিক শাহাদাত হোসেন ও জাহাঙ্গীর আলম, দুই চালক মাসুম বিল্লাহ ও জুবায়ের সুমন এবং তাদের সহকারী এনায়েত হোসেন ও কাজী আসাদ। এদের মধ্যে কাজী আসাদ ও জাহাঙ্গীর আলম এখনো পলাতক। আর শাহাদাত হোসেনের মালিকানাধীন বাসটির চাপায় ওই দুই শিক্ষার্থী মারা যায়।

অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে, ঘটনার দিন দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে দুই চালক ও তাদের সহকারীরা যাত্রীদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা না করে যাত্রী ওঠানোর লোভে ওই সড়কের পাশে অবস্থান নেওয়ার প্রতিযোগিতা করে। এই সময় চালক মাসুম বিল্লাহ সেখানে বাসের জন্য দাঁড়িয়ে থাকা ১৪-১৫ জনের ওপর বাস উঠিয়ে দেয়। এতে শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থী ঘটনাস্থলেই মারা যায়। সেদিন বাস দু'টির চালক ও তাদের সহকারীরা রাস্তায় দুই থেকে তিনবার ওভারটেকিংয়ের প্রতিযোগিতায় নামে।

গত ২৯ জুলাই দুপুরে রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে জাবালে নূর পরিবহনের তিনটি বাসের রেষারেষির এক পর্যায়ে একটি বাস রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা লোকজনের ওপর উঠে পড়ে। এতে শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল করিম রাজীব (১৭) ও একাদশ শ্রেণির ছাত্রী দিয়া খানম মিম (১৬) নিহত হয়। আহত হয় আরো নয়জন। এই ঘটনায় নিহত দিয়া খানমের বাবা জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলা করেন।

এরপর রাজধানীর মিরপুর ও বরিশালের বরগুনায় অভিযান চালিয়ে জাবালে নূরের ওই তিন বাসের তিন চালক ও তাদের দুই সহযোগীকে গ্রেফতার করেন র‌্যাব-১ এর সদস্যরা। গত ১ আগস্ট সন্ধ্যায় গ্রেফতার করা হয় জাবালে নূরের বাসের মালিক শাহাদাত হোসেনকে (৬০)। পরে তাদের পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। বর্তমানে মামলাটি ডিবি পুলিশ তদন্ত করছে।

উত্তাপের সঙ্গে মিশে আছে উত্তেজনাও

উত্তাপের সঙ্গে মিশে আছে উত্তেজনাও

সারাদেশের ৩০০ নির্বাচনী এলাকার মধ্যে ঢাকা-১ আসন সম্পূর্ণ ব্যতিক্রম। ঢাকা ...

সরব এশিয়া-ইউরোপ

সরব এশিয়া-ইউরোপ

পাকিস্তান সেনাবাহিনীর গণহত্যা ও নৃশংসতায় বিক্ষুব্ধ হয়ে ইউরোপ ও এশিয়ার ...

তারাই আমাদের বাতিঘর

তারাই আমাদের বাতিঘর

আবার এসেছে ফিরে ডিসেম্বর। শোক, শক্তি ও সাহসের মাস, আমাদের ...

মর্মন্তুদ সেই দিন আজ

মর্মন্তুদ সেই দিন আজ

'আজ এই ঘোর রক্ত গোধূলিতে দাঁড়িয়ে/ আমি অভিশাপ দিচ্ছি তাদের/ ...

রাজনীতিবিদরা কি হারিয়ে যাবেন

রাজনীতিবিদরা কি হারিয়ে যাবেন

পরিসংখ্যান অনেক সময় নির্মম, যেমন পানিতে ডুবে মারা যাওয়া শিশুদের, ...

ব্যবসায়ীদের হাতেই এখন নাটাই

ব্যবসায়ীদের হাতেই এখন নাটাই

গত ৬ অক্টোবর ২০১৮ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫১তম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে মহামান্য ...

নির্বাচন উদ্দীপনার নাকি আশঙ্কার

নির্বাচন উদ্দীপনার নাকি আশঙ্কার

২০১৪ সালে যেমন কোনো বিকল্প ছিল না, এই ২০১৮-তেও তেমনি ...

তোমার আমার মার্কা...

তোমার আমার মার্কা...

বিষণ্ণ মনে সোফায় বসে পেপার পড়ছিলেন বাবা। ক্লাস নাইনে পড়া ...