পণ্য বদলের ঘটনায় দারাজের বিবৃতি

প্রকাশ: ১৫ এপ্রিল ২০১৯      

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইনে মোবাইল ফোন অর্ডার করে তিনটি হুইল সাবান সরবরাহের ঘটনায় বিবৃতি দিয়েছে দারাজ বাংলাদেশ লিমিটেড।

গত ৬ এপ্রিল ঘটে যাওয়া ঘটনাটির ব্যাপারে দারাজের পক্ষ থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়,  কাস্টমারকে তার অর্ডার করা পণ্য স্যামসাং গ্যালাক্সি-৮ এস প্লাস মোবাইল ফোনের বদলে তিনটি হুইল সাবান দেওয়া হয়েছে। ঘটনাটি সম্পূর্ণ অনাকাঙ্ক্ষিত ও দারাজের নিয়ন্ত্রণ বহির্ভূত।

দারাজের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জনৈক কাস্টমারের কাছ থেকে অর্ডারটি পাওয়ার পর দারাজের ওয়্যারহাউজ থেকে মোবাইল ফোনটি যথাযথভাবে প্যাকেজিং করে প্রস্তুত  রাখা হয়। অর্ডার করা পণ্যটি প্যাকেজিং করে একটি কুরিয়ার সার্ভিসকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়। এ সংক্রান্ত সব সিসিটিভি ফুটেজ বর্তমানে দারাজের কাছে সংরক্ষিত রয়েছে। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখজনক যে, কুরিয়ার সার্ভিসে যে কর্মচারীকে পার্সেলটি দেওয়া হয়েছিল, তিনি পার্সেল থেকে ওই নির্দিষ্ট মোবাইল ফোনটি সরিয়ে তিনটি হুইল সাবান বক্সে ভরে গ্রাহককে সরবরাহ করেন। 

ঘটনাটি সম্পর্কে জানার পর দারাজ বাংলাদেশ লিমিটেড কাস্টমারের সঙ্গে যোগাযোগ করে। কাস্টমারকে অনতিবিলম্বে সঠিক পণ্যটি ডেলিভারি দেওয়া হবে বলে আশ্বস্ত করে। 

দারাজ জানিয়েছে, দোষী ব্যক্তির শাস্তির জন্য থার্ড পার্টি কুরিয়ার প্রতিষ্ঠানটি ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে খুব দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

দারাজ বাংলাদেশ লিমিটেড থেকে কাস্টমার আমজাদ হোসেইন লিটনকে রিপ্লেসমেন্ট হিসেবে তার অর্ডার করা পণ্যটি ডেলিভারি দেওয়া হয়েছে। গত ৮ এপ্রিল পণ্য নিয়ে অভিযোগের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই কাস্টমার তার সমাধান পান। 

এ ব্যপারে তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি দারাজ থেকে মোবাইল ফোনটি বুঝে পেয়েছি। সমস্যার দ্রুত সমাধানে আমি আনন্দিত। আমি বুঝতে পেরেছি ৬ তারিখের ঘটনাটি কুরিয়ার সার্ভিস প্রতিষ্ঠানের ভুল। আশা করছি দারাজ তার উন্নত মানের সেবা অব্যাহত রাখবে। এ বিষয়ে খুব শিগগির আমি একটি ভিডিও করে তা প্রকাশ করবো।


বিষয় : দারাজ পণ্য বিবৃতি