বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গ্রাফিক নভেল ও চলচ্চিত্র

খোকা যখন ছোট্ট ছিলেন

প্রকাশ: ২১ এপ্রিল ২০১৯       প্রিন্ট সংস্করণ     

সমকাল প্রতিবেদক

শনিবার জাতীয় জাদুঘরে 'খোকা যখন ছোট্ট ছিলেন' গ্রাফিক নভেল ও চলচ্চিত্র উদ্বোধনের পর চিত্রপ্রদর্শনী ঘুরে দেখেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীসহ অতিথি ও আয়োজকরা- সমকাল

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বাবা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে লিখেছিলেন 'আমার পিতা শেখ মুজিব'। স্মৃতিচারণামূলক এ বইটি অবলম্বনে রাকীব রাজ্জাক ও আবদুল্লাহ মামুনের চিত্রাঙ্কণে প্রকাশিত হয়েছে গ্রাফিক নভেল 'খোকা যখন ছোট্ট ছিলেন'। সুদীপ্ত সাহা ও সাজ্জাদ আহমেদ রচিত বইটি সম্পাদনা করেছেন জুনায়েদ হালিম ও দুরন্ত বিপ্লব। এটি প্রকাশ করেছে সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন হাসুমণির পাঠশালা। একই সঙ্গে গ্রাফিক নভেলটি অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে গ্রাফিক চলচ্চিত্রও। সাজ্জাদ আহমেদের চিত্রনাট্যে এটি পরিচালনা করেছেন সুদীপ্ত সাহা।

গতকাল শনিবার জাতীয় জাদুঘরের নলিনীকান্ত ভট্টশালী প্রদর্শনালয়ে বইটির মোড়ক উন্মোচন ও চলচ্চিত্রটির উদ্বোধনী প্রদর্শনী হয়। উদ্বোধন করেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। প্রধান অতিথি ছিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ।

হাসুমণির পাঠশালার সভাপতি মারুফা আক্তার পপির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব আকরাম আল হোসেন। স্বাগত বক্তব্য দেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন বিভাগের অধ্যাপক জোনায়েদ হালিম।

এ অনুষ্ঠানে চিত্রশিল্পী জাকির হোসেন পুলকের আঁকা 'খোকা যখন ছোট্ট ছিলেন' শিরোনামে বঙ্গবন্ধুর শিশু-কিশোর জীবনের ২০টি সিরিজ চিত্রকর্ম প্রদর্শন করা হয়েছে।

অনুষ্ঠান উদ্বোধনের পর শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন আপসহীন নেতা। জনগণের মুক্তির লক্ষ্যে আজীবন অন্যায় ও বৈষম্যের বিরুদ্ধে লড়াই সংগ্রাম করেছেন। বঙ্গবন্ধুর জীবন, আদর্শ আমাদের তার গভীর জীবনবোধ, রাজনৈতিক দর্শন এবং দেশ ও জনগণের প্রতি অপরিসীম ভালোবাসার কথাই মনে করিয়ে দেয় প্রতিনিয়ত। নদী, মাটি আর কাদাজল মেখে বেড়ে ওঠা খোকা ছিলেন অদম্য সাহসী আর প্রতিবাদী। বঙ্গবন্ধু ছিলেন সেই মহান নেতা, যিনি ফাঁসির মঞ্চে দাঁড়িয়েও মৃত্যুকে আলিঙ্গন করতে ভয় পাননি। দেশের মানুষের প্রতি নিবিড় ভালোবাসার জন্য বঙ্গবন্ধুর আসন প্রতিটি বাঙালির হৃদয়ে স্থায়ী হয়ে আছে।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা জাতির জীবনে সব সময় আসে না। আমরা ধন্য যে, বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা পেয়েছিলাম। বঙ্গবন্ধুর মানবিক গুণগুলো শিশুদের কোমল মনে ছড়িয়ে দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, পৃথিবীর কোনো দেশেই জাতির পিতাকে নিয়ে বিতর্ক নেই। সে রকম আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বিতর্ক থাকতে পারে না। এ ব্যাপারে কোনো আপস চলবে না। একটি মৌলবাদী ও সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী সুপরিকল্পিতভাবে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নতুন প্রজন্মের কাছে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস ও চেতনা ছড়িয়ে  দেওয়ার প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

মারুফা আক্তার পপি জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী 'মুজিব বর্ষ' উপলক্ষে হাসুমণির পাঠশালার উদ্যোগে 'আমার পিতা শেখ মুজিব' উৎসব পর্যায়ক্রমে সারা দেশে পরিচালিত হবে।

বইটির মোড়ক উন্মোচন ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জীবনভিত্তিক ধারাবাহিক চিত্রকর্মের উদ্বোধন করা হয়। সেই সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর ওপরে বয়নকৃত সূচিশিল্পও প্রদর্শিত হচ্ছে। এ প্রদর্শনী আজ রোববার পর্যন্ত চলবে।

বিষয় : বঙ্গবন্ধু খোকা