রাজধানীকে বাসযোগ্য করতে পদক্ষেপের নির্দেশ হাইকোর্টের

প্রকাশ: ১৫ মে ২০১৯     আপডেট: ১৫ মে ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

ফাইল ছবি

রাজধানীতে বায়ুদূষণ রোধে উচ্চ আদালতের আদেশ অনুযায়ী পদক্ষেপ না নেওয়ায় আবারও অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন হাইকোর্ট। এ সময় আদালত দুই সিটি করপোরেশনের (ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার উদ্দেশে বলেন, আপনারা প্রজতন্ত্রের কর্মচারী, আদালতের আদেশ আপনাদের মানতে হবে। নগরীকে বাসযোগ্য করতে যে সব পদক্ষেপ নেওয়া দরকার তাই করুন। একই সঙ্গে এ সংক্রান্ত বিস্তারিত প্রতিবেদন দাখিল করতে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনকে একমাস সময় দেওযা হয়।

আদালতের নির্দেশে দুই সিটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হাজিরের পর বুধবার বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান এবং বিচারপতি কে এম কামরুল কাদের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। একইসঙ্গে তাদেরকে ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে অব্যাহতি দিয়ে আগামী ২৬ জুন পানি ছিটানোর বিষয়ে প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার। সিটি করপোরেশনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী নুরুন্নাহার আক্তার।

গত ৫ মে ব্যাখ্যা দিতে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান এবং উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল হাইকে তলব করেছিলেন হাইকোর্ট।

ঢাকার বায়ুদূষণ নিয়ে গণমাধ্যমে গত ২১ জানুয়ারি প্রকাশিত প্রতিবেদন যুক্ত করে পরিবেশবাদি সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের পক্ষে এ রিট করা হয়। ওই রিটের শুনানি নিয়ে ২৮ জানুয়ারি আদালত রুলসহ আদেশ দেন। ১৫ দিনের মধ্যে আদালতের অন্তবতীকালীন এ আদেশ পালন করে এর দুই সপ্তাহের মধ্যে সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও পরিবেশ অধিদফতরের মহাপরিচালককে এ বিষয়ে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়।

এছাড়াও যেসব এলাকায় উন্নয়ন ও সংস্কার কাজ চলছে এবং যেসব এলাকা ধুলাবালি প্রবণ, যেসব এলাকায় ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে দিনে দুইবার পানি ছিটাতে দুই সিটির মেয়র ও প্রধান নির্বাহীকে নির্দেশ দেওয়া হয়। যাদের কারণে বায়ুদূষণের সৃষ্টি হচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সপ্তাহে দুইবার ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করতে পরিবেশ আদালতের মহাপরিচালকের প্রতি নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট।

বিষয় : রাজধানী ঢাকা বায়ুদূষণ হাইকোর্ট