ঢাবির ৬৯ শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার

প্রকাশ: ৩০ আগস্ট ২০১৯      

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে ৬৯ জন শিক্ষার্থীকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। একই সঙ্গে কেন তাদের স্থায়ী বহিষ্কার করা হবে না- এই মর্মে তাদের কারণ দর্শানোর (শোকজ) নোটিশ প্রদানেরও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। নোটিশ প্রদানের সাত দিনের মধ্যে জবাব দিতে হবে।

বৃহস্পতিবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরাম সিন্ডিকেট সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সিন্ডিকেট সদস্য এবং বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল সমকালকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে শৃঙ্খলা পরিষদের সুপারিশের ভিত্তিতে ৬৯ জন শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে সাত দিনের মধ্যে তাদের কারণ দর্শানোর জন্য নোটিশ প্রদানেরও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

গত ৬ আগস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা পরিষদের সভায় ৬৯ জন শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কারের জন্য সুপারিশ করা হয়। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য গণমাধ্যমকে জানানো হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, অভিযুক্ত এসব শিক্ষার্থী ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষ থেকে ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষ পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়।

এর আগেও ভর্তি জালিয়াতির ঘটনায় ১৫ শিক্ষার্থীকে স্থায়ী বহিষ্কা করেছিল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে জালিয়াতির ঘটনায় গোয়েন্দা সংস্থা ও আইনশৃংখলা বাহিনী ১২৫ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দিয়েছিল। এর মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ৮৭ জন।