২০৩০ সালের মধ্যে বিশ্বের ২৫ কোটি মানুষকে সেবা দিতে চায় ব্র্যাক

প্রকাশ: ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯     আপডেট: ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯      

অনলাইন ডেস্ক

২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়নের বৈশ্বিক লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে ভূমিকা রাখতে বিশ্বের ২৫ কোটি মানুষের কাছে সেবা পৌঁছে দিতে চায় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাক। বৃহস্পতিবার ব্র্যাকের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে ব্র্যাকের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ার ইমেরিটাস স্যার ফজলে হাসান আবেদ বলেন, ‘টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার মাধ্যমে বিশ্ববাসীর কাছে ২০৩০ সালের মধ্যে পৃথিবী থেকে অতি দারিদ্র্য নির্মূলের যে অঙ্গীকার করা হয়েছে, সেই লক্ষ্য অর্জন করতে হলে বাকি ১০ বছরে আমাদের সবাইকে আরও জোরদার ভূমিকা রাখতে হবে।’

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ব্র্যাকের বৈশ্বিক কর্মকৌশলের তিনটি মূল লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। সেগুলো হলো বিশ্বব্যাপী অন্তত ২৫ কোটি মানুষ যাতে নিজেদের জীবিকার সংস্থান করতে পারে, সে জন্য তাদের সক্ষম করে তোলা, এর মধ্যে অন্তত ৩০ শতাংশ মানুষকে একের অধিক উদ্যোগের সঙ্গে অন্তর্ভুক্ত করা এবং বৈশ্বিক উন্নয়ন পরিমণ্ডলে উদ্ভাবন ও অভিজ্ঞতা বিনিময়ে নেতৃত্ব প্রদান।

ব্র্যাকের বৈশ্বিক লক্ষ্য অর্জন এবং এ-সংক্রান্ত কর্মকৌশল বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে সঠিক দিকনির্দেশনা প্রদানের জন্য ব্র্যাক তার গ্লোবাল বোর্ড গঠন করেছে। যেখানে প্রাথমিকভাবে তিনজন সদস্য মনোনীত হয়েছেন। ব্র্যাক যাতে তার লক্ষ্য অর্জনে সঠিক পথে এগিয়ে যেতে পারে, সে জন্য স্বচ্ছ দিকনির্দেশনা নিশ্চিত করাই গ্লোবাল বোর্ডের প্রধান দায়িত্ব হবে।

ব্র্যাকের বিদ্যমান বোর্ড এবং পরিচালন কাঠামোতে আপাতত কোনো পরিবর্তন ঘটছে না। ব্র্যাকের রূপকল্প বাস্তবায়নে বিশ্বব্যাপী অনুসৃত ‘ওয়ান ব্র্যাক’ ধারণাকে সুসংহত করতে ভবিষ্যতে গ্লোবাল বোর্ডের পক্ষ থেকে প্রয়োজন বোধে এর পরিচালনপদ্ধতি ও কার্যক্রম পর্যালোচনা করে যথাযথ নির্দেশনা দেওয়া হবে।

ব্র্যাক গ্লোবাল বোর্ডের চেয়ারের দায়িত্ব পালন করবেন ব্র্যাক ইন্টারন্যাশনালের সুপারভাইজরি বোর্ডের বর্তমান চেয়ার আমিরা হক। ব্র্যাকের বর্তমান চেয়ারপারসন হোসেন জিল্লুর রহমান গ্লোবাল বোর্ডের সিনিয়র ট্রাস্টি হিসেবে মনোনীত হয়েছেন। বোর্ডের তৃতীয় সদস্য হলেন লর্ড মার্ক ম্যালক ব্রাউন কেসিএমজি। কফি আনান জাতিসংঘের মহাসচিব থাকাকালে তিনি ডেপুটি সেক্রেটারি জেনারেল এবং চিফ অব স্টাফ হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন।

ব্র্যাকের নির্বাহী পরিচালক আসিফ সালেহ্ ও ব্র্যাক ইন্টারন্যাশনালের নির্বাহী পরিচালক মুহাম্মাদ মুসা গ্লোবাল বোর্ড গঠনের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন। ব্র্যাকের কার্যক্রমের প্রভাবকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দিতে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ বলে তারা উল্লেখ করেন।

প্রসঙ্গত, ১৯৭২ সালে বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠার পর ব্র্যাক বর্তমানে এশিয়া ও আফ্রিকার ১১টি দেশে ১০ কোটিরও বেশি মানুষের মধ্যে উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এর কার্যক্রমভুক্ত দেশগুলো হচ্ছে বাংলাদেশ, আফগানিস্তান, ফিলিপাইন, নেপাল, মিয়ানমার, লাইবেরিয়া, সিয়েরা লিওন, দক্ষিণ সুদান, তানজানিয়া, উগান্ডা ও রুয়ান্ডা। পাশাপাশি চরম দরিদ্র জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে ব্র্যাকের আলট্রা পুওর গ্র্যাজুয়েশন মডেল বিশ্বের ৪০টিরও বেশি দেশের সরকার, বিভিন্ন বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ও বহুপক্ষীয় প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে বাস্তবায়িত হচ্ছে।