ঢাকা সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

বাড়িতে ডাকাতির পর ৯ জন গ্রেপ্তার

বাড়িতে ডাকাতির পর ৯ জন গ্রেপ্তার

অভিযান চালিয়ে ৯ জনকে গ্রেপ্তার ও বিভিন্ন সামগ্রী উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রানীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি

প্রকাশ: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ১২:৩৯ | আপডেট: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ১২:৩৯

নওগাঁর রানীনগর উপজেলার গহেলাপুর গ্রামে প্রণব সাহা টগরের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। গত শুক্রবার রাতে ডাকাতদল বাড়িতে হানা দিয়ে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার, পিতলের রাধা-গোবিন্দ মূর্তি ও পূজার সরঞ্জাম লুট করে। রাতেই অভিযান চালিয়ে এতে জড়িত থাকার অভিযোগে ৯ জনকে গ্রেপ্তার ও বিভিন্ন সামগ্রী উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বাড়ির মালিক প্রণব সাহা জানান, শুক্রবার সন্ধ্যায় গরুর খাবার কেনার জন্য বাজারে যান তিনি। পরে রাত ৮টার দিকে খবর আসে, তাঁর বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। বাড়িতে শুধু তাঁর স্ত্রী ময়না রানী ছিলেন। সন্ধ্যায় পূজা শেষে ঘরে বসে মালা জপের সময় মুখোশ পরা ডাকাতদল প্রাচীর টপকে বাড়িতে ঢুকে পড়ে।


এ সময় ধারালো চাকু ধরে ময়না রানীর হাত-পা ও মুখ বেঁধে ২৬ হাজার টাকা, কানের দুল, হাতের বালা, পিতলের মূর্তি এবং পূজার সরঞ্জাম নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে স্ত্রীর চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে আসে। রাতে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে বলে জানান প্রণব সাহা।


রানীনগর থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ জানান, ঘটনার পর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালানো হয়। অভিযানে ডাকাতিতে জড়িত সন্দেহে গ্রেপ্তাররা হলো গহেলাপুর মধ্যপাড়ার মমিন মণ্ডল, গহেলাপুর কবিরাজপাড়ার মাসুদ রানা, পশ্চিম গোবিন্দপুর গ্রামের জাকির হোসেন জেমস, বিলকৃষ্ণপুরের ইমদাদুল হক স্বপন ও মুনসুর মণ্ডল, পশ্চিম চকবলরামপুরের ইমদাদুল হক বুলেট, পূর্ব বালুভরার হাফিজুর রহমান, গহেলাপুরের (নিশ্চিন্দাকুড়ি) মাসুদ রানা ও স্মরণ আলী।


ওসি আরও জানান, গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের কাছ থেকে ডাকাতি হওয়া ২৬ হাজার টাকা, কয়েন, পিতলের মূর্তিসহ বিভিন্ন সামগ্রী উদ্ধার করা হয়েছে। ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত ধারালো ছোরা ও একটি অটো চার্জারভ্যান উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় প্রণব সাহা থানায় মামলা করেছেন। গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের পাঁচ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন

×