বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জ্যেষ্ঠ আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেছেন, খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ। সেক্ষেত্রে সাময়িকভাবে তার সাজা স্থগিত করে তাকে উন্নত চিকিৎসার সুযোগ দেওয়া সরকারের মানবিক দায়িত্ব। এটা খালেদা জিয়ার সাংবিধানিক অধিকারও। 

মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, অ্যাটর্নি জেনারেল বলেছেন, দণ্ডিত আসামিকে প্রমাণ করতে হবে তার দণ্ডাদেশ স্থগিত করা দরকার। কার্যত তিনি স্বীকার করছেন এ ক্ষমতা সরকারের রয়েছে। ফৌজদারি কার্যবিধির ৪০১ ধারা মতে সরকার এ সিদ্ধান্ত নিতে পারে। আইনের বিধান অনুসারে এটা সরকারের একক দায়িত্ব। তাই আমাদের দাবি, খালেদা জিয়ার জীবন রক্ষার জন্য দণ্ডাদেশ সাময়িকভাবে স্থগিত করে তার নিজ ইচ্ছায় দেশে বা বিদেশে উন্নত চিকিৎসা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হোক।

খন্দকার মাহবুব হোসেন আরও বলেন, আইনে বিধান রয়েছে জরুরি ক্ষেত্রে সরকার ৪০১ (১) ধারা মতে যেকোনো দণ্ডিত ব্যক্তির সাজা সাময়িকভাবে স্থগিত করে পারে। যেহেতু খালেদা জিয়া তিন বারের প্রধানমন্ত্রী, একজন বয়স্ক মহিলা। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসকদের প্রতিবেদন অনুযায়ী তিনি অত্যন্ত 'অসুস্থ' এবং তার উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজন। আইনি প্রক্রিয়ায় তার জামিন সময় সাপেক্ষ এবং ইতোমধ্যে দেশের সর্বোচ্চ আদালত তার জামিনের আবেদন খারিজ করেছেন। সেহেতু আমি মনে করি, একজন নাগরিকের বেঁচে থাকার যে মৌলিক অধিকার রয়েছে সেটা বিবেচনা করে সরকার তাকে উন্নত চিকিৎসা নেওয়ার সুযোগ করে দেবে।