আগামী ২ মার্চ থেকে বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রীদের নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হবে। 'সাধারণ' ও 'ইকোনমি' নামে দুটি প্যাকেজ হবে। কোরবানি ছাড়া 'সাধারণ' প্যাকেজে পবিত্র হজ পালনে খরচ হবে ৩ লাখ ৬১ হাজার ৮০০ টাকা। আর 'ইকোনমি' প্যাকেজের খরচ ৩ লাখ ১৭ হাজার টাকা।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি হোটেলে হজ এজেন্সিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব) আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন হাবের সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন। এ সময় হাব মহাসচিব ফারুক আহমদ সরদার, সহ-সভাপতি ইয়াকুব শরাফতি, যুগ্মসচিব মাওলানা ফজলুর রহমান।

হাব সভাপতি বলেন, দুই প্যাকেজের বাইরে প্রতিটি এজেন্সি নিজ নিজ বিশেষ প্যাকেজ ঘোষণা করতে পারবে। তবে কোনো প্যাকেজের দামই হাব ঘোষিত সর্বনিম্ন প্যাকেজের চেয়ে কম দামে হতে পারবে না। হজযাত্রীরা নিবন্ধনের সময় বিমানভাড়া বাবদ ১ লাখ ৩৮ হাজার টাকাসহ সর্বনিম্ন মোট ১ লাখ ৫১ হাজার ১৯০ টাকা জমা দিয়ে নিবন্ধন সম্পন্ন করতে পারবেন। তবে হজযাত্রীদের ৩০ মার্চের মধ্যে প্যাকেজের পুরো টাকা অবশ্যই সংশ্লিষ্ট হজ এজেন্সিকে পরিশোধ করতে হবে।

তিনি বলেন, 'কোরবানির খরচ বাবদ প্রত্যেক হজযাত্রীকে কমপক্ষে ৫২৫ সৌদি রিয়ালের সমপরিমাণ ১২ হাজার ৭৫ টাকা আলাদাভাবে নিজ দায়িত্বে সঙ্গে নিতে হবে। চাঁদ দেখা সাপেক্ষে ৩০ জুলাই পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হবে। এ বছর বাংলাদেশ থেকে মোট ১ লাখ ৩৭ হাজার ১৯৮ জন পবিত্র হজ পালন করতে পারবেন। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ১৭ হাজার ১৯৮ জন এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১ লাখ ২০ হাজার হজযাত্রী হজে যেতে পারবেন।

সম্প্রতি সরকারি ব্যবস্থাপনায় ২০২০ সালের জন্য তিনটি হজ প্যাকেজের অনুমোদন দেয় সরকার। এর মধ্যে প্রথম প্যাকেজে খরচ পড়বে ৪ লাখ ২৫ হাজার টাকা, দ্বিতীয় প্যাকেজে ৩ লাখ ৬০ হাজার টাকা এবং তৃতীয় প্যাকেজে ৩ লাখ ১৫ হাজার টাকা।