মুজিব জন্মশতবর্ষ

রাজধানীর আকাশে ফানুস ও আতশবাজির ঝলকানি

প্রকাশ: ১৭ মার্চ ২০২০   

সমকাল প্রতিবেদক

লাল, নীল, বেগুনি, সবুজ, হলুদ, কমলা, গোলাপির বিচ্ছুরণে অনন্য সাজে সেজেছিল রাজধানী ঢাকার রাতের আকাশ। আলোকের সেই ঝর্ণাধারা আর আতশবাজির শব্দের সঙ্গে দূর আকাশে ফানুসের উড়ে চলার নান্দনিক দৃশ্য উপভোগ করেছে রাজধানীবাসী। মঙ্গলবার রাতে এমন সৌন্দর্যে স্নাত হয়ে ঘরের চার দেয়াল ছেড়ে রাস্তায় ভিড় জমিয়েছিলেন তারা। বিমুগ্ধ নগরবাসীকে এই রাতে স্পর্শ করেনি করোনা আতঙ্ক। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের অংশ হিসেবে গোটা রাজধানীই সেজেছিল আলোর এই শৈল্পিক সাজে।

জাতির পিতার জন্মশতবর্ষের সঙ্গে ইতিহাসের সাক্ষী হতে এমন নান্দনিকতাকে সেলফি বন্দি করে রাখতেও ভুল করেননি অনুষ্ঠানে আগতরা। বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতির সামনে দাঁড়িয়ে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা প্রদর্শনের দৃশ্যও ছিল চোখে পড়ার মতো। ধানমন্ডির ৩২ নম্বর থেকে শুরু করে জাতীয় সংসদ ভবন, বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম, ধানমন্ডির রবীন্দ্র সরোবর, আবাহনী মাঠ, কলাবাগান মাঠ, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, হাতিরঝিলসহ গোটা রাজধানীতেই ছড়িয়ে পড়েছিল আতশবাজি ও আলোর খেলার নান্দনিকতা। আওয়ামী লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ, ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনসহ বিভিন্ন সংগঠনের সম্মিলিত প্রয়াসে হয় বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর বর্ণাঢ্য এ আয়োজন। রাজধানীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সরকারি, আধাসরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি ভবনগুলোকেও লাল-সবুজের পতাকার রঙে রাঙানো হয়।

মঙ্গলবার রাত ৮টায় রাজধানীর রবীন্দ্র সরোবর এবং বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউর আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় প্রাঙ্গণে আতশবাজি ও ফানুস উত্তোলন করা হয়। রবীন্দ্র সরোবরের আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরসহ দলের নেতারা।

একই সময়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান কার্যালয় নগর ভবনে আতশবাজি ফোটানো হয়। এ সময় সদ্য নির্বাচিত সিটি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসসহ করপোরেশনের বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

রাজধানীর হাতিরঝিলে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে আতশবাজি প্রদর্শনী ও ফানুস ওড়ানো হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। উপস্থিত ছিলেন সিটি মেয়র আতিকুল ইসলামসহ করপোরেশনের বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের আয়োজনে সন্ধ্যা ৭টায় কলাবাগান ক্লাব মাঠে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণিল আতশবাজি উৎসব। জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে আতশবাজির সঙ্গে ছিল জন্মশতবর্ষের কেক কাটা। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া সচিব আকতার হোসেন, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব মাসুদ করিমসহ বিভিন্ন ফেডারেশনের কর্মকর্তারা। সন্ধ্যা ৭টায় স্টেডিয়ামে ফ্লাডলাইটের আলোতে ১০০ পাউন্ডের কেক কাটা হয়।