করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে দেশের মানুষ যাতে কষ্ট না পায় সে জন্যই প্রণোদনা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করতে সোমবার সকালে ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগের অন্তর্ভুক্ত জেলাসমূহের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে তিনি এ কথা জানান।

প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে আটটি জেলার সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হন। জেলাগুলো হলো- কিশোরগঞ্জ, টাঙ্গাইল, মানিকগঞ্জ, গাজীপুর, জামালপুর, শেরপুর, নেত্রকোনা ও ময়মনসিংহ। খবর ইউএনবির।

শেখ হাসিনা বলেন, 'আমরা যে প্রণোদনা দিয়েছি- এটা শুধু এ বছরের জন্য না, আগামী তিন বছরের জন্য। আমাদের অর্থনীতির চাকা যেন সচল থাকে, সেটা মাথায় রেখে এটা আমরা অব্যাহত রাখব, যাতে আমাদের দেশের মানুষ কষ্ট না পায়।'

তিনি বলেন, 'বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের ফলে দুর্ভিক্ষ দেখা দিতে পারে। এটা থেকে আমাদের দেশকে বাঁচানোর লক্ষ্য নিয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আমি এটুকু অনুরোধ করবো- আপনাদের যে আপনারা আন্তরিকতার সাথে কাজ করবেন।'

আসন্ন পবিত্র রমজান মাসে যাতে দেশে খাদ্য ঘাটতি দেখা না দেয় সেজন্য সরকার বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছে বলেও এ সময় উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।

সরকার ২১ লাখ মেট্রিক টন খাদ্যদ্রব্য কিনবে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'ধান সংগ্রহ করার ইতোমধ্যেই ঘোষণা দিয়েছি। সাধারণত বোরোতে আগে আমরা যা নিতাম তার থেকে আরও অনেক বেশি আমরা নিচ্ছি। ৮ লাখ মেট্রিক টন ধান, ১০ লাখ মেট্রিক টন চাল, ২ লাখ ২০ হাজার মেট্রিক টন আতপ চাল এবং ৮০ হাজার মেট্রিক টন গম কিনবে সরকার। তাতে ভবিষ্যতে আমাদের আর অভাব হবে না। আমরা মানুষকে খাবার সহযোগিতা দিতে পারব।'