প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সংক্রমণের ৫০তম দিনে এসে বাংলাদেশে আক্রান্তের সংখ্যা ৫ হাজার ছাড়িয়েছে। রোববার নতুন করে আরও ৪১৮ জনের শরীরে করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে পাঁচ হাজার ৪১৬ জনে পৌঁছাল।

একই সঙ্গে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে দেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৪৫ জনে পৌঁছেছে। 

রোববার বেলা আড়াইটার দিকে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে নিয়মিত বুলেটিনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এ তথ্য জানান।

ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় পাঁচজন মারা গেছেন। এর মধ্যে ২ নারী এবং ৩ জন পুরুষ। এই ৫ জনের মধ্যে ঢাকা শহরের চারজন এবং দোহারের একজন। এর মধ্যে একজন শিশু মারা গেছে, তার বয়স ১০ বছরের নিচে। মারা যাওয়া শিশু আগে থেকে কিডনি সমস্যায় ভুগছিল। বাকি চারজনের মধ্যে একজনের বয়স ৬০ বছরের ওপরে এবং ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে তিনজন রয়েছেন।

তিনি বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৯ জন সুস্থ হয় বাড়ি ফিরে গেছেন। এ পর্যন্ত ১২২ জন করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। তবে যারা শুধু হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছেন এখানে শুধু সেই তথ্য আমরা দিচ্ছি। করোনায় আক্রান্ত বেশিরভাগই বাড়িতে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। বাড়িতে যারা সুস্থ হচ্ছেন সেই তথ্য আমরা এখানে দিচ্ছি না। 

ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় তিন হাজার ৬৮০টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে, যা গতকালের তুলনা ৭.৫ শতাংশ বেশি। তার মধ্যে তিন হাজার ৪৭৬টি নমুনা পরীক্ষা করে নতুন ৪১৮ জনের সংক্রমণ নিশ্চিত হওয়া গেছে। নমুনা পরীক্ষা গতকালের তুলনা ৪ শতাংশ বেশি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৪৬ হাজার ৫৮৯টি। 

অতিরিক্ত মহাপরিচালক বলেন, কিট নিয়ে কোনো সমস্যা নেই। যথেষ্ট কিট আমাদের আছে। আমরা ধারাবাহিকভাবে কিট আমদানি করে যাচ্ছি। সন্দেহভাজন রোগীদের কিট দিয়ে পরীক্ষার জন্য আমাদের উপযুক্ত সরঞ্জাম রয়েছে।