বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, সরকার মানুষের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে। এতে ভয়ঙ্কর ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে দেশ ও জাতি। তাদের ব্যর্থতায় মানুষের লাশের সারি বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রতিদিনই এর সংখ্যা বাড়ছে।

রোববার সকালে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ত্রাণ বিতরণের সময় তিনি এসব কথা বলেন।

জেলা বিএনপির সাবেক সহসভাপতি ও আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহমুদুর রহমান সুমনের উদ্যোগে খাদ্য ও নগদ অর্থ বিতরণ করা হয়। এ সময় জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনিসহ বিএনপি, ছাত্রদল, যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

রিজভী বলেন, জনগণের টাকায় কেনা ত্রাণ সরকারি দলের লোকেরা চুরি করছে। আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান-মেম্বারদের ঘর থেকে, খড়ের পালা থেকে, খাটের নিচ থেকে চাল-ডাল-তেল পাওয়া যাচ্ছে। এ ধরনের রাজনৈতিক দল দিয়ে প্রধানমন্ত্রী করোনা মহামারিতে দুর্ভিক্ষ মোকাবেলা করতে পারবেন না। হাজার হাজার বস্তা চাল ধরা পড়ছে চেয়ারম্যান-মেম্বার অথবা আওয়ামী লীগ নেতার বাড়িতে। গোটা দেশকে দুর্ভিক্ষের মধ্যে ফেলে দিয়ে দেশ পরিচালনা করবেন- জনগণ সেটি মেনে নেবে না।

তিনি বলেন, আজকে চিকিৎসকরা মারা যাচ্ছেন। হাসপাতালে চিকিৎসা নেই। করোনার বিরুদ্ধে যে প্রস্তুতি নেওয়ার দরকার ছিল তা নেয়নি। এখন সিটিতে গার্মেন্টস খুলে দেবে। সব শ্রমিক এলে কী ভয়াবহ অবস্থা হবে তা অনুমান করা যায়। একজনের হলে সবাই আক্রান্ত হবে। ব্যাপক বিস্তার লাভ করতে পারে।

সরকারের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, প্রতিদিন ৪০০ থেকে ৫০০ লোকের আক্রান্ত হওয়ার খবর পাচ্ছি। মারা যাচ্ছেন বহুলোক। যথাযথ পদক্ষেপ নিলে এত আক্রান্ত হতো না। ভিয়েতনাম ও ভুটান পদক্ষেপ নেওয়ায় সে দেশে আক্রান্ত হয়নি। কিন্তু আমাদের দেশে সরকার পদক্ষেপ নেয়নি; বরং সরকারি দলের লোকেরা আত্মসাৎ করছে, চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে; আর তাতে সহযোগিতা করছে সরকার।

এ সময় মাহমুদুর রহমান সুমন বলেন, গত ১২ বছরে দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছে। এটি করেই ক্ষমতাসীনরা ক্ষান্ত হননি, দলীয় নেতাকর্মীদের নির্যাতন-নিপীড়নের মাধ্যমে বিএনপিকে তারা ধ্বংস করার চেষ্টা করেছেন। বিএনপিকে ধ্বংস করা যাবে না। বরং বিএনপি আরও সুসংগঠিত ও শক্তিশালী হয়েছে।