করোনার প্রভাবে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষ ও তাদের পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে  বাংলাদেশ জুডিসিয়াল সার্ভিসের ১০ম ব্যাচের বিচারকরা।  দেশের বিভিন্ন স্থানে ২৩৩ টি পরিবারের কাছে  ঈদ উপহার পৌঁছে দিয়েছন তারা।

এই উদ্যোগে কয়েকটি স্থানে সামাজিক সংগঠনের মাধ্যমে এবং ভোলা, সাতক্ষীরায় সরাসরি বিচারকদের মাধ্যমে করোনা ও ঘূর্ণিঝড় আম্পানে বিপর্যস্তদের মাঝে ঈদ উপহার তুলে দেওয়া হয়।

মিনি ল স্কুলের মাধ্যমে চট্টগ্রাম অঞ্চলের ৩০ জন বিধবা ,আঞ্চলিক সংগঠন ‘আশ্রয়ের মাধ্যমে মাদারিপুরে ২৫ টি পরিবারকে , সাতক্ষীরায় করোনা এবং ঘূর্ণিঝড় আম্পানের কারণে বিপর্যস্ত ৪০ টি পরিবারকে চিহ্নিত করে অন্তত ১০ দিনের খাবার সহায়তা দেওয়া হয়।

ভোলায় একইভাবে করোনা ও ঘূর্ণিঝড়ে বিপর্যস্ত ১৫ টি পরিবারকে, পিরোজপুরে  স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন স্বপ্নযাত্রা-৯৯ এর মাধ্যমে করোনার কারণে অসহায় হয়ে পড়া ২৩ টি পরিবারকে ঈদ উপহার পৌঁছে দেওয়া হয় ।

কিশোরগঞ্জে দারুল আরকাম ইনিস্টিউটের মাধ্যমে ১০০ টি পরিবারকে ইদ উপহার পৌঁছে দিয়েছেন সেখানকার দশম ব্যাচের দুই বিচারক। এ ক্ষেত্রে বয়োঃবৃদ্ধ এবং বিশেষ সুবিধা বঞ্চিতদের অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে।

প্রত্যেকটি প্যাকেটে চাল, ডাল, আলু, সেমাই, চিনিসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী সরবরাহ করা হয়েছে।

সার্বিক এই কার্যক্রম  প্রসঙ্গে নোয়াখালী জেলায় কর্মরত এই ব্যাচের একজন বিচারক বলেন,  বিচার বিভাগে কাজ করার কারণে খুব কাছ থেকে সাধারণ মানুষের দুখ দুর্দশা দেখার সুযোগ হয় বিচারকদের। মূলত সেই মানবিক দায়িত্ববোধ থেকে আমাদের ব্যাচের বিচারকগণ করোনা কালে সুবিধা বঞ্ছিত অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য যৎসামান্য এই উপহার পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগ।