করোনাভাইরাসে (কভিড-১৯) আক্রান্ত গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর স্ত্রী শিরিন পারভিন হক ও ছেলে বারিশ হাসান চৌধুরীও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

রোববার সন্ধ্যায় ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী নিজেই সমকালকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, তার স্ত্রী শিরিন পারভিন হকও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। তার অবস্থা তুলনামূলকভাবে কিছুটা খারাপ। জ্বর ও কাশি আছে। রোববার রাতে তাকেও গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া জাফরুল্লাহ চৌধুরীর ছেলে করোনায়ও আক্রান্ত হয়ে বাসায় আইসোলেশনে আছেন। তার শারীরিক অবস্থা ভালো।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী আরও জানান, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত র‌্যাপিড কিটে নমুনা পরীক্ষায় তাদের দু'জনের করোনা পজিটিভ আসে। আরটি-পিসিআরে টেস্ট করাতেও নমুনা দেওয়া হবে।

নিজের শরীরের অবস্থা সম্পর্কে তিনি জানান, এখন জ্বর নেই। বুকে কফ আটকে থাকায় কাশি আছে। এছাড়া একটু শ্বাসকষ্ট থাকায় অক্সিজেন নিচ্ছেন।

গত ২৫ মে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি জানানো হয়। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত কিটে নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হওয়ার পর তাকে গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) পিসিআর পরীক্ষাতেও তার করোনা পজিটিভ আসে। এরপর দুই দফা প্লাজমা থেরাপি নেন ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।